kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


কলকাতায় দুই ছাত্রী উবর চালকের নিগ্রহের শিকার

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২২:০৭



কলকাতায় দুই ছাত্রী উবর চালকের নিগ্রহের শিকার

খারাপ ব্যবহারই শুধু নয় ফোন করে যাদবপুরের দুই ছাত্রীকে কাঁচা খিস্তি দেওয়ার অভিযোগ উঠল এক উবর চালকের বিরুদ্ধে। অভিযোগ, লোক দিয়ে উঠিয়ে নিয়ে যাবে বলেও হুমকি দেয় উবরচালক দিলীপ।

কলকাতার যাদবপুরের ছাত্রী শ্রেয়শী গুহঠাকুরতা ও তার বন্ধু দেবলীনা একটি উবর বুক করে হিন্দুস্থান পার্কের সামনে থেকে। তখন রাত ৮.১৫।  

শ্রেয়শীর কথা মতো উবরে উঠেই তারা দিলীপ নামের চালককে জানিয়ে দেয়, তারা কসবার কাছে অ্যাক্রোপোলিশ মলের সামনে নামবে। দেবলীনা অ্যাক্রোপোলিশের কিছু আগেই নেমে যায়। অ্যাক্রোপলিশের কাছাকাছি পৌঁছানোর পর দেবলীনা দিলীপকে অনুরোধ করেন রাস্তাটার ওপারে মলের সামনে যেন তাঁকে নামানো হয়। তার উত্তরে দিলীপ জবাব দেয়, ' যেটা আমার নামোনোর জায়গা আমি সেখানেই নামবো, আপনি এখানেই নেমে যান। '

এই নিয়ে শ্রেয়শীর সঙ্গে কথা কাটাকাটি শুরু হয় দিলীপের। এক সময় আচমকাই দিলীপ চিৎকার করে বলে ওঠা 'আপনার যা ছেঁড়ার ছিঁড়ে নিন। আপনাকে এখানেই নামতে হবে। ' আচমকা এই ধরনের আক্রমণে হতভম্ব শ্রেয়শী দিলীপকে জানায়, সে তার বিরুদ্ধে উবরে অভিযোগ জানাবে। এরপরেও দিলীপ খারাপ ইঙ্গিতে কথা বলতে থাকে। সে যে ওইসব অভিযোগ নিয়ে বিশেষ চিন্তিত নয় তার অঙ্গ-ভঙ্গিমাতেই তা বুঝিয়ে দেয় বলেই শ্রেয়শীর অভিযোগ। যদিও তা শোনার মতো মানসিকতায় শ্রেয়শী ছিলেন না।  

এরপর অসম্মানিত শ্রেয়শী টাকা মিটিয়ে গাড়ি থেকে নেমে যায়। নামার সময় শ্রেয়শী গাড়ির দরজাটা জোরে বন্ধ করে দেয়। জোরে দরজা বন্ধ করায় দিলীপ খেপে যায় আরো। এরপর সে আক্রমণ করে শ্রেয়শীর বন্ধু দেবলীনাকে। রাগে হিতাহিত জ্ঞান শূন্য হয়ে দিলীপ শ্রেয়শীর বদলে দেবলীনার নম্বরে ফোন করে ফেলে। শুধু ফোনই নয় দেবলীনাকে 'খানকি' বলে সম্বোধন করে, সে বলে " তোর বাপের দরজাটা কি ও রকম করে বন্ধ করিস?তোর বাড়িতো দেখে নিলাম, লোক দিয়ে উঠিয়ে নেবো।

উবরে অভিযোগ জানানোর পরও তারা দিলীপের বিরুদ্ধে এখন পর্যন্ত কোনও ব্যবস্থা নেয়নি বলেই নিজের ফেসবুক ওয়ালে জানিয়েছে শ্রেয়শী। শ্রেয়শী আর দেবলীনা জনস্বার্থে তাদের ফেসবুকের পাতায় এই তিক্ত অভিজ্ঞতার কথা জানিয়েছেন। উবর আর দিলীপের যাবতীয় মোবাইল তথ্যের ছবিও দিয়েছেন। যাতে তাদের মতো তিক্ত অভিজ্ঞতার সম্মুখীন এই শহরের আর কারুর সঙ্গে না ঘটে। উবের আর দিলীপের বিরুদ্ধে কসবা থানায় অভিযোগ করেছে শ্রেয়শী ও দেবলীনা।


মন্তব্য