kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


উত্তর কোরিয়ার আবার পারমাণবিক বোমা পরীক্ষা, কৃত্রিম ভূমিকম্প

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০৯:৪৩



উত্তর কোরিয়ার আবার পারমাণবিক বোমা পরীক্ষা, কৃত্রিম ভূমিকম্প

উত্তর কোরিয়া পঞ্চমবারের মতো পারমাণবিক বোমার পরীক্ষা চালিয়েছে বলে অভিযোগ করেছে দক্ষিণ কোরিয়া। উত্তর কোরিয়ার পারমাণবিক পরীক্ষা চালানোর এলাকায় ৫ দশমিক ৩ মাত্রার একটি ভূমিকম্প শনাক্ত হওয়ার পর এ অভিযোগ তোলা হয়েছে।

দক্ষিণ কোরিয়ার দাবি, এ ভূকম্পনটি কৃত্রিম। পারমাণবিক পরীক্ষা চালানোর সময়ই এ কম্পন অনুভূত হয়েছে। দক্ষিণ কোরিয়ার সংবাদমাধ্যম ইয়নহাপ এবং মার্কিন ভূতাত্ত্বিক জরিপ সংস্থা এর বরাত দিয়ে বিবিসি খবরটি নিশ্চিত করেছে। অবশ্য দক্ষিণ কোরিয়ার পক্ষ থেকে এ ব্যাপারে কোনো মন্তব্য করা হয়নি।

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়, শুক্রবার সকালে ৫ দশমিক ৩ মাত্রার ভূমিকম্পে কেঁপে ওঠে উত্তর কোরিয়া। মার্কিন ভূতাত্ত্বিক জরিপ সংস্থার তথ্য অনুযায়ী যে স্থানটিতে ভূকম্পনটির উৎপত্তি হয়েছে সেখানে উত্তর কোরিয়া পারমাণবিক পরীক্ষা চালিয়ে থাকে। ইউএসজিএস এর তথ্যমতে, 'বিস্ফোরণ' থেকে ওই কম্পন অনুভূত হয়েছে। তবে এটি কোন ধরনের বিস্ফোরণ তা নিশ্চিত না করলেও ইউএসজিএস বলছে, 'পারমাণবিক বোমা একই ধরনের কোনো বোমার বিস্ফোরণের কারণে এ কম্পন হতে পারে'।

শুক্রবার (৯ সেপ্টেম্বর) উত্তর কোরিয়ার জাতীয় দিবস। এ দিনটিকে দেশের নেতৃত্বের শাসন শুরু হওয়ার দিন হিসেবে উদযাপন করা হয়। পাশাপাশি নিজেদের সামরিক শক্তি প্রদর্শন করতে এ ধরনের দিবসকে কাজে লাগায় উত্তর কোরিয়া।

যুক্তরাষ্ট্রের মিডলবেরি ইন্সটিটিউট অব ইন্টারন্যাশনাল স্টাডিজ এর উত্তর কোরিয়া বিষয়ক গবেষক জেফ্রে লেউয়িস ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বলেন, 'কম্পনের মাত্রাকে বিবেচনায় নিলে, শুক্রবার উত্তর কোরিয়া তাদের বিস্ফোরক ডিভাইসে ২০ থেকে ৩০ কিলোটন উপকরণ ব্যবহার করেছে। '

উল্লেখ্য, জাতিসংঘ সনদ অনুযায়ী পরমাণু ও ব্যালাস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র উন্নয়নের নিষেধাজ্ঞার আওতায় রয়েছে উ. কোরিয়া। তবে দক্ষিণে থাড নামে পরিচিত উচ্চপ্রযুক্তির মিসাইল প্রতিরোধ ব্যবস্থা মোতায়েন নিয়ে গত জুলাইয়ে দক্ষিণ কোরিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে চুক্তি হওয়ার পর নড়েচড়ে বসে দেশটি। দ. কোরিয়ায় উচ্চতর ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা গড়ে তোলার ঘোষণার বিপরীতে ধারাবাহিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা শুরু করে উ. কোরিয়া। দক্ষিণ কোরিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের পরিকল্পনার বিপরীতে একে তারা যোগ্য জবাব বলে মনে করে।

শুক্রবারের 'বিস্ফোরণের' আগ পর্যন্ত চারটি পারমাণবিক পরীক্ষা চালিয়েছে উত্তর কোরিয়া। আর শুক্রবারের খবরটি নিশ্চিত হলে তা হবে পঞ্চম পারমাণবিক পরীক্ষা। এর আগে চলতি বছরের জানুয়ারিতে সর্বশেষ পারমাণবিক পরীক্ষা চালিয়েছিল উত্তর কোরিয়া। আর এ পরীক্ষার প্রতিক্রিয়ায় ২ মার্চ জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ সর্বসম্মতিক্রমে উত্তর কোরিয়ার ওপর এক কঠোর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে। ওই নিষেধাজ্ঞায় প্রথমবারের মতো উত্তর কোরিয়ায় যাওয়া বা দেশটি থেকে আসা সব কার্গো জাতিসংঘের সদস্য দেশ কর্তৃক তল্লাশি করার বিধান রাখা হয়। সেই সাথে নতুন করে ১৬ জন ব্যক্তি এবং ১২টি সংস্থাকে কালো তালিকাভুক্ত করা হয়। এ ছাড়া উত্তর কোরিয়ার ওপর আরোপ করা চলমান অস্ত্র নিষেধাজ্ঞাকে বিস্তৃত করে দেশটির কাছে ক্ষুদ্র আকারের অস্ত্র বিক্রির ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়।   তবে এরপরও বিভিন্ন সময়ে ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালিয়ে আসছে দেশটি।


মন্তব্য