kalerkantho

রবিবার। ৪ ডিসেম্বর ২০১৬। ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


৬৫ ভাগ ক্যান্সারই প্রতিরোধযোগ্য

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২২:৩১



৬৫ ভাগ ক্যান্সারই প্রতিরোধযোগ্য

৩ দিনের আন্তর্জাতিক ক্যান্সার স্ক্রিনিং নেটওয়ার্কের সভা শুরু হল সোমবার রাজ্য অতিথিশালায়। দেশ–‌বিদেশের ১৪ জন ক্যান্সার বিশেষজ্ঞ এই সভায় অংশ নিয়েছেন।

সভায় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, নেদারল্যান্ডস, ইতালি, কোপেনহেগেন, ফ্রান্স, জেনেভা এবং  বাংলাদেশের বিশেষজ্ঞ ক্যান্সার চিকিৎসকরা এসেছেন।

এছাড়া ভারতের রাজধানী‌সহ বিভিন্ন রাজ্যের বিশেষজ্ঞরাও সভায় অংশ গ্রহণ করেন। আন্তর্জাতিক ক্যান্সার নির্ণায়ক সংস্থা (‌আই সি এস এন)‌–‌এর  এটা  পরিকল্পনামূলক সভা। যার উদ্যোক্তা আগরতলা রিজিওনাল ক্যান্সার সেন্টার এবং  আগরতলা সরকারি মেডিক্যাল কলেজ। রাজ্যে প্রথম এই ধরনের  সভা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। চলবে ৭ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। সোমবার  বিকেলে ক্যান্সার হাসপাতালে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে দেশ–‌বিদেশের ক্যান্সার বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা রোগ নির্ণয় এবং প্রতিরোধের  ওপর বেশি গুরুত্ব দেন।   তবে বেশি গুরুত্বারোপ করেন সচেতনতার ওপরই। ন্যাশনাল ক্যান্সার ইনস্টিটিটের  প্রধান ডা.‌ জি কে রথ বলেন,  প্রায় ৬৫ শতাংশ ক্যান্সার প্রতিরোধযোগ্য।

তাছাড়া  ৮০ শতাংশ ক্যান্সার নিরাময় যোগ্য যদি  প্রাথমিক অবস্থায় তা চিহ্নিত করা যায়। এর জন্য মূল ওষুধ মানুষের সচেতনতা। এরজন্য গণমাধ্যমেরও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকার কথা উল্লেখ করেন তিনি। বিশেষজ্ঞরা এও বললেন প্রতিরোধের জন্য  সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হল যে কারণে ক্যান্সার হয় সেগুলিকে বর্জন করা।   এর মধ্যে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হল তামাক ও মদের ব্যবহার বন্ধ করা। পান, ঘোটকা, খৈনি ক্যান্সারের কারণ। বাংলাদেশ, মায়ানমারসহ দেশের  উত্তর–‌পূর্বাঞ্চল রাজ্যগুলিতে এই সব দ্রব্যসামগ্রী খাবার ফলে মুখগহ্বরে, ফুসফুসে এবং  পাকস্থলিতে ক্যান্সারে আক্রান্ত হচ্ছেন বহু মানুষ। তাতে উদ্বেগ  প্রকাশ করে বিশেষজ্ঞরা। বলেন  আমাদের লক্ষ্য হল এই সমস্ত অঞ্চল থেকে  ক্যান্সার আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা কমানো।  

সভায় এ নিয়ে আলোচনা হবে। উল্লেখ্য, আগরতলায় রিজিওনাল ক্যান্সার হাসপাতালটি উন্নত করা হচ্ছে। বর্তমানে এটি স্টেট ক্যান্সার ইনস্টিটিউ হিসাবে স্বীকৃতি পেয়েছে। বিশেষজ্ঞরা জয়ায়ু ও মুখগহ্বর ক্যান্সারকে নিয়ন্ত্রণের জন্য বিশেষভাবে এইচ পি ভি টিকাকরণের ওপর জোর দেন। লিভার উপশমের জন্য হেপাটাইটিস টিকার ওপরও জোর দিলেন তাঁরা।

সূত্র: আজকাল


মন্তব্য