kalerkantho

মঙ্গলবার । ৬ ডিসেম্বর ২০১৬। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


ভারতে ২৪ ঘণ্টার ধর্মঘট শুরু

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১১:৪৯



ভারতে ২৪ ঘণ্টার ধর্মঘট শুরু

ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের শ্রমিকবিরোধী নীতির প্রতিবাদে ও ১৪ দফা দাবি আদায়ের লক্ষ্যে আজ শুক্রবার ২৪ ঘণ্টার সাধারণ ধর্মঘট শুরু হয়েছে। ১১টি ট্রেড ইউনিয়ন ও ফেডারেশনের ডাকে সকাল ৬টা থেকে পশ্চিমবঙ্গসহ বিভিন্ন রাজ্যে এই ধর্মঘট শুরু হয়।

ধর্মঘটে বাম, কংগ্রেস প্রভাবিত ও বিজেপি বিরোধী রাজ্যে মোটামুটি সাড়া ফেলেছে।
পশ্চিমবঙ্গে এই ধর্মঘটের তেমন প্রভাব পড়েনি। কলকাতার জনজীবন প্রায় স্বাভাবিক রয়েছে। তবে বেসরকারি বাস কম চলছে। রাস্তায় নামানো হয়েছে প্রচুর সরকারি বাস। ধর্মঘট চলাকালে অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতি মোকাবিলায় কলকাতায় তিন হাজার পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আগেই ঘোষণা দিয়েছেন, এই রাজ্যে সাধারণ ধর্মঘট হবে না। কলকাতা পৌর করপোরেশনও শহরজুড়ে ধর্মঘটবিরোধী বহু পোস্টার-ব্যানার লাগিয়েছে। তবে কোচবিহার, আলিপুরদুয়ার, নদীয়া, বাঁকুড়া, মুর্শিদাবাদ, মধ্যমগ্রামে সরকারি বাস ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে।

ধর্মঘটের মুম্বাই, বেঙ্গালুরু, ওড়িশা, চেন্নাই, কর্নাটক ও ভুবনেশ্বর প্রভাব পড়েছে। বাস ও ট্রেন আটকে পড়েছে।

ধর্মঘটকে প্রতিহত করার জন্য রাজ্য সরকার পর্যাপ্ত ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। নামানো হয় অতিরিক্ত পুলিশ। রাজ্য সরকারও সরকারি কর্মীদের অফিসে উপস্থিত থাকার নির্দেশ জারি করে।

শ্রমিকদের ১৪ দফা দাবির মধ্যে রয়েছে শ্রম আইন সংশোধন, শ্রমিকদের মাসিক বেতন ১৮ হাজার রুপি করা, দুই টাকা কেজি দরে চাল-গম দেওয়া, শ্রমিকদের মাসিক পেনশন তিন হাজার রুপি করা প্রভৃতি।

ধর্মঘটে পশ্চিমবঙ্গে ট্রেন চলাচলে ব্যাঘাত
১১ শ্রমিক সংগঠনের ডাকা বন্ধের ব্যাপক প্রভাব পড়ল দূরপাল্লার ট্রেনগুলিতে। বন্ধে আটকে রয়েছে হাওড়ামুখী করমন্ডল এক্সপ্রেস। বন্ধকারীদের অবস্থান বিক্ষোভের জেরে আটকা পড়েছে বেঙ্গালুরু গুয়াহাটি এক্সপ্রেস। কেওনঝড় স্টেশনেও একই ছবি ধরা পড়েছে। সমস্যার সম্মুখীন হয়েছেন খুর্দা স্টেশনে আটকা পড়া ইস্ট-কোস্ট এক্সপ্রেসের যাত্রীরাও। সবথেকে বড় সমস্যায় পড়েছেন ওড়িশার দূরপাল্লার ট্রেনগুলি। থমকে গিয়েছে ধৌলি এক্সপ্রেস। জলেশ্বর, বালেশ্বর, ভুবনেশ্বরের আটকা পড়েছে বহু ট্রেন। অবরোধ থেকে ছাড় পায়নি ওড়িশার প্যাসেঞ্জার ট্রেনগুলিও।

কলকাতা প্রায় স্বাভাবিক
বামেদের ১১টি শ্রমিক সংগঠনের ডাকা ধর্মঘটের প্রভাব পড়ল না ভারতের পশ্চিমবঙ্গের রাজধানী শহর কলকাতায়। শুক্রবার সকাল থেকেই যান চলাচল ছিল ছিল প্রায় স্বাভাবিক।

পথে ট্যাক্সি থেকে বাস, অটো সমান তালে চলাচল করছে। যাত্রীদের সংখ্যাও নেহাত কম নয়। বন্ধকে উপেক্ষা করেই অন্যন্য দিনের মতো অফিসযাত্রীরা বেরিয়ে পড়েছেন রাস্তায়। অসুবিধার সম্মুখীন হতে হয়নি কলকাতা বিমানবন্দরে আগত যাত্রীদেরও। অন্যান্য বন্ধে অনেক সময় ট্যাক্সি বা অন্য কোনো গাড়ি পেতে সমস্যা হলেও এদিন সে সব কিছুই চোখে পড়েনি।


মন্তব্য