kalerkantho


ইতালিতে ১৩ রোগীকে হত্যার সন্দেহে নার্স গ্রেপ্তার

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১ এপ্রিল, ২০১৬ ১৩:০৭



ইতালিতে ১৩ রোগীকে হত্যার সন্দেহে নার্স গ্রেপ্তার

ইতালিতে ১৩ জন রোগীকে হত্যার সন্দেহে একজন রেজিস্টার্ড নার্সকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। বিবিসি বলছে, পুলিশ এই কেইসটিকে 'দ্য কিলার অন ওয়ার্ড' বলে অভিহিত করেছে।

ইতালির তাসকানি অঞ্চলের উপকূলীয় ছোট্ট শহর পিয়োমবিনোর একটি হাসপাতালে ওই নার্স অ্যানাসথেসিয়া এবং ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটে কাজ করতেন। ২০১৪ থেকে ২০১৫ সালের মধ্যে ওই রোগীরা মারা যান। তারা সবাই ইঞ্জেকশনের মাধ্যমে কিংবা অন্য উপায়ে শরীরে ওষুধ প্রয়োগের কারণে মারা যান বলে ইতালির গণমাধ্যম জানিয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, কয়েক মাস ধরেই তারা সন্দেহভাজনকে পর্যবেক্ষণ করছিলেন।

আনসা সংবাদ সংস্থার বরাতে জানা গেছে, গ্রেপ্তার হওয়া ৫৫ বছর বয়সী সন্দেহভাজন ওই নারী ১৯৮০র দশক থেকে তাসকানিতে বসবাস করছেন।  

গত বুধবার দিনের শেষভাগে তাকে স্বাস্থ্য ও ওষুধ সম্পর্কে বিশেষজ্ঞ ইতালির এনএএস পুলিশ ইউনিট গ্রেপ্তার করে। নিহতরা মূলত বয়স্ক মানুষ। তাদের প্রত্যেকেরই বিভিন্ন ধরনের অসুস্থতা ছিল। ইতালির মানুষেরা ইতিমধ্যে অপর এক নার্সের একই ধরনের কর্মকাণ্ডের ঘটনায় মর্মাহত।

ওই নার্সকে গেল মাসের প্রথম দিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

৪৪ বছর বয়সী দানিয়েল পোজ্জিয়ালি নামের ওই নার্স ইতালির উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় রাভেনার একটি হাসপাতালে ৭৮ বছর বয়সী এক রোগীকে প্রাণঘাতী পটাসিয়াম ক্লোরাইড ইঞ্জেকশন পুশ করেছিলেন।
অপর এক রোগীকে হত্যার ঘটনাতেও তাকে সন্দেহ করা হয়।


মন্তব্য