kalerkantho


তৃণমূলের দূত’ হওয়ার অভিযোগ !

কলকাতার পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমার কে সরাল নির্বাচন কমিশন

সুব্রত আচার্য্য, কলকাতা   

৩১ মার্চ, ২০১৬ ০১:০৬



কলকাতার পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমার কে সরাল নির্বাচন কমিশন

শাসক দলের হয়ে কাজ করার অভিযোগে সরিয়ে দেওয়া হল কলকাতার পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমার কে। রাজীব কুমার দীর্ঘদিন সিআইডি ও বিধাননগরের পুলিশ কমিশনার পদে কাজ করেছেন। সুব্রত বাইন সহ বাংলাদেশের বেশ কয়েকজন শীর্ষ সন্ত্রাসী গ্রেফতার ছাড়াও খগড়াগড় কান্ডে অন্যতম অভিযুক্তকে গ্রেফতারেরও তার সুনাম রয়েছে পুলিশ মহলে। দীর্ঘ দিন কলকাতা পুলিশের স্পেশাল টাস্ক ফোর্সের প্রধান হিসাবে দায়িত্ব পালন করেছেন ইন্ডিয়ান পুলিশ সার্ভিস আইপিএস ক্যাডারের ওই সিনিয়র কর্মকর্তা।
পাশাপাশি মমতা ব্যানার্জির অত্যন্ত ঘনিষ্ট ও øেহভাজন পুলিশ কর্মকর্তা হিসাবেও তার নাম সব মহলেই চর্চিত ছিল ২০১১ সাল থেকে। বিশেষ করে সারদা কান্ডের মামলা দেখভালের দায়িত্ব ছিল যে বিধাননগরের কমিশনারের ওপর সেই কমিশনারের দায়িত্বেও ছিলেন আজকের সরিয়ে দেওয়া রাজীব কুমারই।
নির্বাচন কমিশন সূত্রে জানা গেছে, বুধবার সন্ধ্যায় নির্বাচন কমিশনের দিল্লি অফিস থেকে রাজীব কুমারকে সরিয়ে দেওয়ার নির্দেশ পাঠানো হয়। রাজীব কুমারের জায়গায় এখনও পর্যন্ত নতুন কোন পুলিশ কর্মকর্তার নাম ঘোষণা করেনি প্রশাসন।
কদিন আগে বিজেপির প্রাক্তন রাজ্যসভাপতি ও কেন্দ্রীয় বিজেপি নেতা রাহুল সিনহার বাড়িতে দুজন গোয়েন্দা পুলিশ গরু ব্যবসায়ী সেজে স্টিং অপারেশন করতে গিয়ে হাতেনাতে ধরা পড়েন। পুলিশের কর্মীদের দিয়ে এই ধরনের স্টিং অপারেশন চালানোর জন্য বিজেপি মমতা ব্যানার্জির প্রশাসনকে দায়ি করে সরাসরি কলকাতার পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমারকেই অপসারনের দাবি জানায়। মঙ্গলবার দিল্লিতে নির্বাচন কমিশনের প্রধান দফতরে গিয়ে বিজেপির শীর্ষ নেতারা রাজীব কুমারের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগও জানিয়ে আসেন। অভিযোগ পাওয়ার ২৪ ঘন্টার মধ্যেই রাজীব কুমারকে সরিয়ে দেওয়া হয়।
এর আগে মমতা ঘনিষ্ট মেদেনীপুরের পুলিশ সুপার ভারতী ঘোষকেও সরিয়ে দেওয়া হয়েছিল একই অভিযোগে। আইপিএস অফিসার ভারতী ঘোষ শাসক তৃণমূল কংগ্রেসের হয়ে কাজ করতেন বলে অভিযোগ করেছেন বিরোধী বামফ্রন্ট, বিজেপি এবং কংগ্রেসের শীর্ষ নেতৃত্ব। ৪ মার্চ নির্বাচনের নির্ঘণ্ট প্রকাশ হওয়ার ৪৮ ঘন্টার মধ্যেই মমতা ঘনিষ্ট ভারতী ঘোষকে ওএসডি করে সিআইডিতে বদলি করা হয়।


মন্তব্য