kalerkantho


দিল্লিতে প্রকাশ্যে শৌচকর্ম করলে ৫ হাজার টাকা জরিমানা!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৬ মার্চ, ২০১৬ ২৩:৩০



দিল্লিতে প্রকাশ্যে শৌচকর্ম করলে ৫ হাজার টাকা জরিমানা!

প্রকাশ্যে খোলা জায়গায় শৌচকর্ম করলে কড়া আর্থিক জরিমানার প্রস্তাব। কেন্দ্রের পক্ষ থেকে সব রাজ্যকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে, দিনেদুপুরে রাস্তাঘাটে মল-মূত্র ত্যাগ করলে অপরাধী ব্যক্তির কাছ থেকে বড় অঙ্কের জরিমানা আদায় করতে হবে।

২০০ টাকা থেকে ৫০০০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করার প্রস্তাব দিয়েছে কেন্দ্র। এ ব্যাপারে সব রাজ্যের মুখ্য সচিবদের চিঠি পাঠিয়েছে কেন্দ্রীয় নগরোন্নয়ন  মন্ত্রক। তাতে বলা হয়েছে, ৩০ এপ্রিলের মধ্যে প্রতিটি শহরের অন্তত একটি ওয়ার্ডে কঠোর আর্থিক জরিমানা নিতে হবে। ১০-১৫টি শহরের সব ওয়ার্ডে জরিমানা নেওয়া চালু করতে হবে এ বছরের শেষ নাগাদ। আর দেশের সব শহরের সব ওয়ার্ডে চড়া হারে জরিমানা ধার্য করার প্রক্রিয়া শুরু করে দিতে হবে ২০১৮-র ৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে।

পাশাপাশি যথেষ্ট সংখ্যক গণ-শৌচাগার ও ময়লা-আবর্জনা সংগ্রহের ব্যবস্থা করার জন্যও সময় বেঁধে দিয়েছে কেন্দ্রীয় মন্ত্রক। বলে দেওয়া হয়েছে, যেসব  ওয়ার্ডে চড়া হারে জরিমানা নেওয়া হবে, সেখানে যাতে সর্বত্র গণ-শৌচাগার, বাড়ি বাড়ি জঞ্জাল সংগ্রহ পরিষেবা থাকে এবং রাস্তায় রাস্তায় ময়লা ফেলার ডাস্টবিন থাকে, তা সুনিশ্চিত করতে হবে।

সূত্রের খবর, দেশের শহর এলাকায় স্বচ্ছ ভারত মিশন কর্মসূচিতে প্রত্যাশিত সাফল্য পাওয়া যায়নি। সেজন্য চড়া হারে জরিমানা আদায়ের পথে হাঁটার কথা ভাবছে কেন্দ্রীয় মন্ত্রক।

গণ শৌচাগার পরিষেবা দেওয়ার ক্ষেত্রে যাদের অগ্রণী ভূমিকা রয়েছে, সেই সুলভ ইন্টারন্যাশনালের প্রতিষ্ঠাতা বিন্ধ্যেশ্বর পাঠক বলেছেন, জরিমানা ধার্য করার আগে সরকার যথেষ্ট সংখ্যক  শৌচাগারের ব্যবস্থা  করবে, এটাই নিয়ম। কিন্তু প্রকাশ্যে খোলা জায়গায় মল-মূত্র ত্যাগ করার অভ্যাস শহরগুলিতে এত ব্যাপক যে কোথাও একটা কঠোর উদ্যোগ নিতেই হবে।

কেন্দ্রীয় জনস্বাস্থ্য ও পরিবেশ সংক্রান্ত প্রযুক্তি সংগঠন যে নিয়মবিধি দিয়েছে, সেই অনুসারে শহরে প্রতি এক কিমি রাস্তায় একটি করে  শৌচাগার চাই। মহিলা ও পুরুষদের জন্য সমান সংখ্যক শৌচাগার দরকার। কিন্তু বাস্তবে দেখা যায়, মেট্রো শহরগুলিতে কিমির পর কিমি হেঁটেও শৌচাগার পাওয়া যায় না। মহিলা শৌচাগার নেই বলা যায়।

সূত্র: এবিপি আনন্দ


মন্তব্য