kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৯ জানুয়ারি ২০১৭ । ৬ মাঘ ১৪২৩। ২০ রবিউস সানি ১৪৩৮।


ফিলিপাইনের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গভর্নরের ভাষ্য

অর্থপাচারের ঘটনায় ঝুঁকির মুখে পড়েছে ফিলিপাইনের অর্থনৈতিক ব্যবস্থা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৮ মার্চ, ২০১৬ ১৪:৫৪



অর্থপাচারের ঘটনায় ঝুঁকির মুখে পড়েছে ফিলিপাইনের অর্থনৈতিক ব্যবস্থা

বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ থেকে ৮ কোটি ১০ লাখ ডলার চুরি ও ফিলিপাইনের ম্যানিলায় পাচার হওয়ার ঘটনায় ঝুঁকির মুখে পড়েছে দেশটির অর্থনৈতিক ব্যবস্থা। ফিলিপাইনের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গভর্নর আমান্দো তেতাংকো আজ শুক্রবার সাংবাদিকদের কাছে এ আশঙ্কার কথা জানিয়েছেন।

আমান্দো বলেন, ''ফিলিপাইনের অর্থবাজারের গত কয়েক দিনের গতিপ্রকৃতি দেখলে কোনো নেতিবাচক প্রভাবের আভাস পাওয়া যাবে না। তবে ঝুঁকি যে আছে, তা আমাদের মেনে নিতে হবে। ''

আমান্দো মনে করেন, এ ধরনের আন্তসীমান্ত অর্থপাচারের ঘটনা ফিলিপাইনে এটাই প্রথম। তিনি জোর দিয়ে বলেন, এ রকম ঘটনা যাতে আর না ঘটে, এ জন্য স্থানীয় আইনের ফাঁকফোকর মেরামতে গুরুত্ব দেওয়া হবে। এসব ফাঁকফোকর দূর করতে সরকার ও কংগ্রেসের সঙ্গে কাজ করবেন বলেও গুরুত্বারোপ করেন তিনি।

ফিলিপাইনের গভর্নরের দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি আমান্দো অর্থপাচাররোধ কাউন্সিলেরও (অ্যান্টি মানি লন্ডারিং কাউন্সিল) সভাপতি। তিনি বলেন, আইনপ্রণেতাদের সাহায্য নিয়ে কাউন্সিল অর্থপাচার আইন জোরদার করার চেষ্টা চালাচ্ছে। বিভিন্ন এলাকার ক্যাসিনো ও রিয়েল এস্টেট বিক্রেতাদেরও এই আইনের আওতায় আনা হবে।

গভর্নর আমান্দো বলেন, ফিলিপাইন অর্থপাচারের কেন্দ্র হতে চায় না। এ ঘটনায় অর্থপাচার রোধসংক্রান্ত কর্মপরিকল্পনা জোরদার করার সুযোগ এসেছে। একই সঙ্গে সন্ত্রাসবিরোধী কর্মপরিকল্পনাও জোরদার করতে হবে।

চুরি ও অর্থপাচারের ঘটনা তদন্ত করছে ফিলিপাইনের সিনেট কমিটি ব্লু রিবন। তাদের তথ্যের ভিত্তিতে জানা যায়, বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ থেকে চুরি যাওয়া ৮ কোটি ১০ লাখ মার্কিন ডলারের মধ্যে ৪ কোটি ৬০ লাখ ডলার ফিলিপাইনের রিজাল ব্যাংক হয়ে ক্যাসিনোয় (জুয়া খেলার স্থান) ঢুকেছে।


মন্তব্য