kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৭ জানুয়ারি ২০১৭ । ৪ মাঘ ১৪২৩। ১৮ রবিউস সানি ১৪৩৮।


১০০ বছরের রেকর্ড ভাঙল, উষ্ণায়নের ভ্রূকুটিতে উদ্বিগ্ন নাসা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৫ মার্চ, ২০১৬ ০০:২৪



১০০ বছরের রেকর্ড ভাঙল, উষ্ণায়নের ভ্রূকুটিতে উদ্বিগ্ন নাসা

শতাব্দী প্রাচীন রেকর্ড ভেঙে দিল ফেব্রুয়ারি মাসের গরম। নাসার তথ্য বলছে, একশ' বছরের ইতিহাসে বিশ্বজুড়ে গত ফেব্রুয়ারির তাপমাত্রা ১.৩৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস বেশি ছিল।

নাসার আবহাওয়াবিদদের দাবি, ১৯৫১ থেকে ১৯৮০- এই সময়কালে বিশ্বের জল ও স্থলভাগে নথিভুক্ত ফেব্রুয়ারি মাসের গড় তাপমাত্রার নিরিখে গত ফেব্রুয়ারির তাপমাত্রা ১.৩৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস বেশি ছিল। চলতি বছরে এর আগে ১০০ বছরের রেকর্ড ভাঙে গত জানুয়ারি মাসে। গড় তাপমাত্রার চেয়ে ১.১৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস বেশি উষ্ণ ছিল এই বছরের জানুয়ারি।

নাসার বিজ্ঞানী জেফ মাস্টার্স এবং বব হেনসন তাঁদের আবহাওয়া ও পরিবেশ বিষয়ক ব্লগে জানিয়েছেন, 'চমকে দেওয়ার মতো তথ্য যা আরও একবার মনে করিয়ে দিল মানুষের সৃষ্টি গ্রিনহাউস গ্যাসের জেরে ক্রমবর্দ্ধমান বিশ্ব উষ্ণায়ন ঘিরে দীর্ঘ দিনের বিতর্ক। '

তবে উষ্ণতম মাসের রেকর্ড ভাঙতে পারেনি ফেব্রুয়ারির তাপমাত্রা। আসন্ন গ্রীষ্মে উত্তর গোলার্ধ্বে সেই নজির তৈরি হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে বলে মনে করছেন আবহাওয়াবিদরা।

বিশ্বজুড়ে তাপমাত্রা বাড়ার পিছনে প্রত্যক্ষ ভূমিকা রয়েছে এল নিনোর। আবহাওয়ার এই অভিনব কাণ্ডের জেরে প্রশান্ত মহাসাগরের উত্তপ্ত জলস্তরের এলাকা বৃদ্ধি পেয়েছে যার জেরে বিশ্বের মহাসাগরগুলি আবহাওয়ামণ্ডলে দ্রুত উত্তাপ ছড়িয়ে দিচ্ছে। উল্লেখ্য, ১৯৯৭-৯৮ সালের এল নিনো রেকর্ডের তুলনায় বর্তমানে ০.৫ ডিগ্রি বেশি উত্তাপ ছড়িয়েছে।

জার্মানির পট্‌সড্যাম ইনস্টিটিউট অফ ক্লাইমেট ইমপ্যাক্ট রিসার্চের আবহাওয়া গবেষক স্তেফান রাহমস্টর্ফ-এর সতর্কবাণী, 'আমরা এক রকম জরুরি আবহাওয়া পরিস্থিতির মধ্যে দিয়ে যাচ্ছি। '

অন্যদিকে, জেফ মাস্টার্স ও বব হেনসনের বক্তব্য, 'সংক্ষেপে, গত বিশ্ব আবহাওয়া বৈঠকে পূর্ব নির্ধারিত ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস উষ্ণায়ণ সীমা ছোঁয়ার পথে আমরা এই মুহূর্তে ভয়ঙ্কর বেগে ছুটে চলেছি। '

সূত্র: এই সময়


মন্তব্য