kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


শিকাগোতে ট্রাম্পবিরোধী বিক্ষোভে সংঘর্ষ, র‌্যালি বাতিল

নিউ ইয়র্ক প্রতিনিধি    

১২ মার্চ, ২০১৬ ১৩:০৯



শিকাগোতে ট্রাম্পবিরোধী বিক্ষোভে সংঘর্ষ, র‌্যালি বাতিল

যুক্তরাষ্ট্রের শিকাগোতে ট্রাম্পবিরোধী বিক্ষোভে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনার পর প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রিপাবলিকান দল থেকে মনোনয়ন প্রত্যাশী ডোনাল্ড ট্রাম্প গতকাল শুক্রবার শিকাগোতে তাঁর নির্ধারিত নির্বাচনী র‍্যালি নিরাপত্তাজনিত কারণে বাতিল করে দেন।

নিজের সমর্থক ও বিরোধী আন্দোলনকারীদের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষের পর ট্রাম্প নিজেই এটি বাতিল ঘোষণা করেন।

ট্রাম্পের প্রচারাভিযানের সঙ্গে সম্পৃক্তরা জানান, স্থানীয় পুলিশের সঙ্গে বৈঠকের পর ট্রাম্প নিজেই নির্ধারিত ওই র‍্যালি বাতিল করেন। শিকাগো অঙ্গরাজ্যের ইলিনোইস বিশ্ববিদ্যালয়ে ওই র‍্যালি অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু যুক্তরাষ্ট্রে প্রেসিডেন্ট প্রার্থিতার দৌড়ে এগিয়ে থাকা ট্রাম্প সভাস্থলে পৌঁছানোর আগেই শত শত বিক্ষোভকারী সেখানে জড়ো হয় এবং তাঁর বিরুদ্ধে স্লোগান দিতে থাকে। এ সময় অডিটরিয়ামের ভেতরেও তাঁর সমর্থক ও বিরোধীদের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয়।

ট্রাম্পের সমর্থকরা তাদের নেতার পক্ষে স্লোগান দিলেও বিরোধীরা তাঁর বিপক্ষে স্লোগান দিতে থাকে। এ সময় কয়েকজন বিক্ষোভকারীকে ডেমোক্রেট দলের বার্নি স্যান্ডার্সের পক্ষেও স্লোগান দিতে দেখা যায়। এক পর্যায়ে দুই পক্ষের মধ্যে হাতিহাতি শুরু হয়। এ সময় ট্রাম্প সমর্থকরা বিরোধীদের পতাকা ছিড়ে ফেলে। একজনকে তো মঞ্চ থেকেও ধাক্কা দিয়ে নামিয়ে দেওয়া হয়। সংঘর্ষ চলাকালে মিলনাতয়নের বাইরেও পুরোদমে বিশৃঙ্খলতায় লিপ্ত থাকে বিপুল জনতা। এ সময় পুলিশ তাদের নিবৃত্ত করার চেষ্টা চালাতে থাকে।

ট্রাম্পের সভায় এ ধরনের বিশৃঙ্খলা বা বিক্ষোভ কোনো নতুন ঘটনা নয়। এর আগে মিসৌরি অঙ্গরাজ্যে তাঁর সেন্ট লুইসের সভা থেকে বিক্ষোভ করার অভিযোগে ৩২ জনকে আটক করেছিল পুলিশ। কয়েকজন বিক্ষোভকারীকে সভা থেকে বের করে দেয় নিরাপত্তাকর্মীরা। পরে এ নিয়ে পুলিশের সঙ্গে বৈঠক করার পর মঞ্চে উঠে সভা বাতিলের ঘোষণা দেন স্বয়ং ট্রাম্প। তিনি বলেন, "আপনারা এখানে জড়ো হওয়ায় আমি কৃতজ্ঞ। দয়া করে শান্তি বজায় রাখুন এবং বাড়ি ফিরে যান। " এ সম্পর্কে পরে তিনি ফক্স নিউজকে দেওয়া এক বিবৃতিতে বলেন, "আমি মনে করি আমরা সঠিক সিদ্ধান্ত নিয়েছি এবং সে সময় এটিই ছিল সবচাইতে উত্তম সিদ্ধান্ত। " তবে তিনি কোনোরকম বিদ্বেষমূলক বক্তব্য রাখার অভিযোগ নাকচ করে দিয়েছেন।


মন্তব্য