kalerkantho

বুধবার । ১৮ জানুয়ারি ২০১৭ । ৫ মাঘ ১৪২৩। ১৯ রবিউস সানি ১৪৩৮।


স্মৃতি ইরানি নয়, ডিম্পলের গাড়ির ধাক্কায় মারা যান চিকিৎসক : পুলিশ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১১ মার্চ, ২০১৬ ২০:০৫



স্মৃতি ইরানি নয়, ডিম্পলের গাড়ির ধাক্কায় মারা যান চিকিৎসক : পুলিশ

খোঁজ মিলল যমুনা এক্সপ্রেসওয়ের দুর্ঘটনায় বাইকে ধাক্কা মারা গাড়ির। পুলিশ জানিয়েছে, গাড়িটি কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানির কনভয়ের নয়। তার মালিক দিল্লির বাসিন্দা ডিম্পল অরোরা।

গতকাল বৃহস্পতিবার দিল্লি পুলিশের হাতে আটক হওয়া গাড়িটিকে কেন্দ্র করে আবারও স্মৃতি ইরানি বিতর্ক নতুন মাত্রা পেল। এর আগে যমুনা এক্সপ্রেসওয়ের দুর্ঘটনায় মৃত আগ্রার চিকিৎসক রমেশ নাগরের কিশোরী কন্যা সন্দালি দাবি করেছিলেন, কেন্দ্রীয় মানবসম্পদ উন্নয়নমন্ত্রী স্মৃতি ইরানির কনভয়ে অংশ নেওয়া একটি গাড়ি তাঁর বাবার মোটরসাইকেলে ধাক্কা মেরেছিল। দুর্ঘটনায় রমেশ নাগরের মৃত্যু হয় এবং সন্দালি ও তাঁর এক নাবালক ভাই আহত হয়। অভিযোগ, মন্ত্রী গাড়ি থেকে নেমে এলেও আহতদের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার ব্যাপারে কোনও উদ্যোগ নেননি। যদিও মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রণালয়ের তরফ থেকে এই অভিযোগ অস্বীকার করা হয়।

সন্দালির বয়ানের ভিত্তিতে ঘটনায় এফআইআর দায়ের করা হয়। মৃত রমেশ নাগরের ছেলে অভিষেক নাগর জানান, বিষয়টিতে রাষ্ট্রপতির হস্তক্ষেপ চেয়ে তিনি রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়কে চিঠি লিখেছেন।

এর একদিন পর মন্থ পুলিশ থানার সাব ইনস্পেক্টর গিরীশ জানিয়েছেন, গত শনিবার রাতে রমেশ নাগরের মোটরসাইকেলে ধাক্কা মারা হন্ডা সিটি গাড়িটি (রেজিস্ট্রেশন নম্বর ডিএল থ্রিসি বিএ ৫৩১৫) পুলিশ আটক করেছে। যমুনা এক্সপ্রেসওয়ের ওপর মথুরা টোল প্লাজার কাছে গাড়িটি রাখা হয়েছে। আদালতের নির্দেশ পাওয়া গেলে গাড়িটি ছাড়া হবে।

এদিকে ডিম্পল অরোরার কিংসওয়ে ক্যাম্পের বাড়িতে উপস্থিত হলে দরজায় তালা ঝুলতে দেখা যায়। ডিম্পলের হদিশ পাওয়া যায়নি।
এ বিষয়ে মন্থ থানার স্টেশন অফিসার দুর্গেশ কুমার জানিয়েছেন, নাগরের গাড়িতে ধাক্কা মারার পর থেকে নাগাড়ে ৫ দিন ধরে ডিম্পল নিখোঁজ। টিওআই-কে পুলিশ জানিয়েছে, ইতিমধ্যে ডিম্পলের উদ্দেশে থানায় হাজিরা দেওয়ার অনুরোধ জানানো হয়েছে। তাঁকে আশ্বাস দেওয়া হয়েছে, অপরাধ জামিনযোগ্য হওয়ার দরুণ তাঁর গ্রেপ্তার হওয়ার আশঙ্কা নেই।

পুলিশ আরও জানিয়েছে, স্থানীয় সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত রিপোর্ট ভিত্তিহীন। দুর্ঘটনার কোনও সিসিটিভি ফুটেজ পাওয়া যায়নি। এমনকি, আততায়ী গাড়িটি ডিম্পল না তাঁর চালক চালাচ্ছিলেন তা নিয়েও পুলিশ ধন্দে। টিওআই'কে দেওয়া সাক্ষাত্‍কারে মথুরার এসএসপি রাকেশ সিং জানিয়েছেন, স্মৃতি ইরানির কনভয়ে অংশ নেওয়া কোনও গাড়িই যে রমেশ নাগরের মোটরসাইকেলে ধাক্কা মেরেছিল, এমন কোনও ফুটেজ পাওয়া যায়নি। তবে আমাদের তদন্তে জানা গিয়েছে, ডিম্পল অরোরার হন্ডা সিটি গাড়িটি রমেসবাবুর মোটরসাইকেলে ধাক্কা মারে। এরপর ডিম্পল অরোরার সঙ্গে কথা বলে জানা গিয়েছে, শনিবার রাতে তাঁর ড্রাইভার গাড়িটি চালাচ্ছিলেন। সূত্র: এই সময়

 


মন্তব্য