kalerkantho

রবিবার । ১১ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


মিয়ানমারের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে সু চির প্রার্থী থিন কিয়াও

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১০ মার্চ, ২০১৬ ১২:৪১



মিয়ানমারের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে সু চির প্রার্থী থিন কিয়াও

মিয়ানমারের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ক্ষমতাসীন ন্যাশনাল লিগ ফর ডেমক্রেসি (এনএলডি) দুজন প্রার্থীর নাম ঘোষণা করেছে। বিবিসি বলছে, প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রক্রিয়া শুরু হওয়ার পর দেশটির বৃহত্তম এই রাজনৈতিক দলটি তাদের প্রার্থীর নাম ঘোষণা করল।

মিয়ানমারে নিযুক্ত বিবিসির প্রতিনিধিরা জানিয়েছেন, এটি প্রায় নিশ্চিত যে এনএলডি নিয়ন্ত্রিত পার্লামেন্টে থিন কিয়াওই প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন। কারণ তিনি সু চির খুব কাছের মানুষ এবং বন্ধু। ২০০৮ সালে সেনাবাহিনীর প্রবর্তিত সংবিধানের ধারা অনুযায়ী সন্তান বিদেশি নাগরিক হওয়ায় এনএলডি প্রধান সু চি প্রেসিডেন্ট প্রার্থী হতে পারবেন না।

সু চির প্রয়াত স্বামী যুক্তরাজ্যের নাগরিক ছিলেন, তার সন্তানরাও যুক্তরাজ্যের নাগরিক। মিয়ানমারের সংবিধান অনুযায়ী মোট তিনজন প্রেসিডেন্ট প্রার্থী হতে পারবেন। এদের মধ্যে পার্লামেন্টের উচ্চকক্ষ থেকে একজন, নিম্নকক্ষ থেকে একজন ও সেনাবাহিনীর জন্য সংরক্ষিত প্রতিনিধিদের মধ্য থেকে একজন। এরপর নির্বাচিত-সংরক্ষিত সব সদস্যদের ভোটে বিজয়ী ব্যক্তিই হবেন প্রেসিডেন্ট। পরাজিত দুই প্রেসিডেন্ট প্রার্থী ভাইস প্রেসিডেন্ট হবেন। অবশ্য, সু চি এর আগে বলেছিলেন, তার স্থান প্রেসিডেন্টের ওপরেই হবে।

নিজের মনোনীত প্রার্থী প্রেসিডেন্ট হলে তার মাধ্যমেই সু চি দেশ শাসন করবেন এমন ইঙ্গিত দিয়ে রেখেছেন। তিনি বলেছেন এনএলডির প্রার্থী প্রেসিডেন্ট হলে তিনি তার (সু চির) নিয়ন্ত্রণেই থাকবেন। প্রেসিডেন্ট সু চির প্রক্সি হিসেবে কাজ করবেন। নভেম্বরে অনুষ্ঠিত মিয়ানমারের সাধারণ নির্বাচনে পার্লামেন্টে ব্যাপক সংখ্যাগরিষ্ঠতা পায় এনএলডি। তবে মিয়ানমারের সংবিধান অনুযায়ী, সংসদের এক-চর্তুথাংশ আসন সেনাবাহিনীর জন্য সংরক্ষিত।

 


মন্তব্য