kalerkantho

রবিবার । ১১ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


জনসন বেবি পাউডারের নমুনা পরীক্ষার জন্য পাঠাল মহারাষ্ট্র খাদ্য-ওষুধ কর্তৃপক্ষ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৯ মার্চ, ২০১৬ ২৩:০৩



জনসন বেবি পাউডারের নমুনা পরীক্ষার জন্য পাঠাল মহারাষ্ট্র খাদ্য-ওষুধ কর্তৃপক্ষ

জনসন বেবি পাউডারের নমুনা ল্যাবরেটরিতে পরীক্ষার জন্য পাঠাল মহারাষ্ট্রের খাদ্য ও ওষুধ সংক্রান্ত কর্তৃপক্ষ (এফডিএ)।
বেশ কয়েক মাস ধরে জনসন অ্যান্ড জনসন বেবি পাউডার মাখার ফলে আমেরিকায় এক ৬২ বছরের মহিলা জরায়ুতে ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে মারা গিয়েছেন বলে একটি খবরে সম্প্রতি আলোড়ন উঠেছে।

তার পরিপ্রেক্ষিতেই মহারাষ্ট্র প্রশাসনের এহেন পদক্ষেপ।
এফডিএ কমিশনার হর্ষদীপ কাম্বলে বলেছেন, আমরা জনসন অ্যান্ড জনসন বেবি পাউডারের নমুনা সংগ্রহ করে ল্যাবরেটরিতে পরীক্ষার জন্য পাঠিয়েছি। আমেরিকার ঘটনাটির পর আগাম সাবধানতা হিসাবেই এটা করা হল। কোম্পানির কর্তাব্যক্তিদের সঙ্গে কথাও বলেছি।
জনসনের বেবি পাউডারের মতো দুনিয়াজুড়ে সুপরিচিত পণ্যের গুণমান নিয়ে প্রশ্ন ওঠায় মহারাষ্ট্রে ওদের আর যেসব জিনিসপত্র বিক্রি হয়, সেগুলি কতদূর সুরক্ষিত, ভাল, এবার সেই প্রশ্নও উঠছে বলে জানিয়েছেন এফডিএ-র আরেক প্রতিনিধি।
ঘটনাচক্রে মার্কিন মুলুকে গত মাসে এক দেওয়ানি মামলায় বিশ্বের সবচেয়ে বড় স্বাস্থ্য সুরক্ষা সংক্রান্ত পণ্য নির্মাতা কোম্পানিটি জালিয়াতি, উদাসীনতা, চক্রান্তের দায়ে দোষী সাব্যস্ত হয়েছে। মৃত বৃদ্ধার পরিবারকে ৭ কোটি ২০ লক্ষ মার্কিন ডলার ক্ষতিপূরণ দেবে জনসন কর্তৃপক্ষ, এমন নির্দেশ দিয়েছে জুরি।
যদিও জনসন কর্তৃপক্ষের দাবি, তাদের পণ্য সম্পূর্ণ নিরাপদ, ব্যবহারের যোগ্য। বৃদ্ধার মৃত্যুর পর তারা বলেছে, বেবি পাউডারের ওপর আমাদের ভরসার কারণ হল, নিরপেক্ষ বৈজ্ঞানিকদের দল, রিভিউ বোর্ড, আন্তর্জাতিক কর্তৃপক্ষ সকলে ৩০ বছরের বেশি সময় ধরে এর ওপর গবেষণা করেছেন। তারাই রায় দিয়েছেন, ওই পাউডার সম্পূর্ণ নিরাপদ। - সূত্র : এবিপি


মন্তব্য