বঙ্গোপসাগরে শক্তিশালী ক্ষেপণাস্ত্র-332443 | বিদেশ | কালের কণ্ঠ | kalerkantho

kalerkantho

শুক্রবার । ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৬। ১৫ আশ্বিন ১৪২৩ । ২৭ জিলহজ ১৪৩৭


বঙ্গোপসাগরে শক্তিশালী ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালাবে ভারত

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৫ মার্চ, ২০১৬ ১৫:০০



বঙ্গোপসাগরে শক্তিশালী ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালাবে ভারত

বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী আন্ডার-সি মিসাইলের চূড়ান্ত পরীক্ষামূলক উৎক্ষেপন করতে চলেছে ভারত। কে-৪ নামের ওই ক্ষেপণাস্ত্র ৭ বা ৮ মার্চ ছোড়া হবে বঙ্গোপসাগরের গভীর থেকে। নির্মাতা সংস্থা ডিফেন্স রিচার্স অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশনের (ডিআরডিও) পক্ষ থেকে বলা হয়েছে তাদের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন। খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।
 
সাবমেরিন থেকে নিক্ষেপযোগ্য ওই মিসাইল ২০০০ কিলোগ্রাম ওজনের পরমাণু অস্ত্র বহন করে ৩৫০০ কিলোমিটার দূরে আঘাত হানতে পারবে। কে-৪ ক্ষেপণাস্ত্র খুব গোপনে তৈরি করেছে ডিআরডিও। এ ক্ষেপণাস্ত্রের একটি সফল পরীক্ষামূলক উৎক্ষেপণ ইতিমধ্যেই হয়ে গিয়েছে। তবে সে বার ৩০০০ কিলোমিটার দূরে ছোড়া হয়েছিল ক্ষেপণাস্ত্রটি। আর দিনকয়েকের মধ্যে যে উৎক্ষেপণ হতে চলেছে, সেই উৎক্ষেপণে কে-৪ ক্ষেপণাস্ত্র তার পাল্লার সম্পূর্ণ দূরত্ব অতিক্রম করেই আঘাত হানবে।
 
সমুদ্রগর্ভ থেকে নিক্ষেপযোগ্য যে সব মিসাইল ভারতের হাতে রয়েছে, তার মধ্যে কে-৪ সবচেয়ে দীর্ঘ পাল্লার। উৎক্ষেপণস্থল থেকে ৩৫০০ কিলোমিটার দূরে আঘাত হানার ক্ষমতা থাকায় এটি ইন্টারমিডিয়েট রেঞ্জ ব্যালিস্টিক মিসাইল বা আইআরবিএম গোত্রে পড়ছে। সমুদ্রগর্ভ থেকে নিক্ষেপযোগ্য যত রকমের আইআরবিএম এখন পর্যন্ত পৃথিবীতে তৈরি হয়েছে, ভারতের তৈরি কে-৪ সেগুলির মধ্যে সবচেয়ে শক্তিশালী এবং সবচেয়ে বিধ্বংসী বলে দাবি ভারতীয় প্রতিরক্ষা বিশেষজ্ঞদের।

মন্তব্য