kalerkantho

শুক্রবার । ৯ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


একটু আলাদা

পিংক ফেয়ারি আর্মাডিলো

৩০ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



পিংক ফেয়ারি আর্মাডিলো

দেখতে ওরা একেবারে ছবিটার মতোই। ছোটখাটো নাদুসনুদুস।

আর পিঠের ওপর সারাক্ষণ বয়ে বেড়ায় একটা বর্ম, যেন শত্রুর তীর থেকে পিঠ বাঁচাতে মরিয়া। গোলাপি রঙের এ ছোট প্রাণীটা আর্মাডিলো গোত্রের। নাম পিংক ফেয়ারি আর্মাডিলো। আর্মাডিলো দেখতে অনেকটা বনরুইয়ের মতো। পার্থক্য আছে ওই বর্মে। পিংক ফেয়ারি নাম হওয়ার কারণ এর পশমের রং একটু হলদেটে। ছোট ছোট চোখ। আর অন্য আর্মাডিলোদের মতো এটিও নিজেকে গোল করে রোল বানিয়ে ফেলতে পারে। প্রাণীটিকে এখন বেশি দেখা যায় আর্জেন্টিনার কয়েকটি অঞ্চলে। বনরুই তথা পিঁপড়াভুকদের মতো এরও প্রধান খাবার পিঁপড়া। এ ছাড়া পোকামাকড় ও শামুকও খায়। প্রাণীটি সাড়ে তিন থেকে সর্বোচ্চ সাড়ে চার ইঞ্চি পর্যন্ত লম্বা হয়। নরম শরীর ও বিশেষ থাবার কারণে প্রাণীটি দ্রুত ছুটতে পারে। বলা হয় মাছ যেমন পানিতে সাঁতার কাটে, তেমনি পিংক ফেয়ারি আর্মাডিলো সাঁতার কাটে মাটিতে। তবে এখন মানুষের জন্য বেশ বিপদে আছে আদুরে এ প্রাণীটি। একদিকে আবাসস্থল কমে আসছে, অন্যদিকে এরা আবার বিশেষ পরিবেশ ছাড়া বাঁচতে পারে না। এমনকি খাঁচায় পুরে যতই খাবারদাবার দেওয়া হোক না কেন, পিংক ফেয়ারি আর্মাডিলোর তা একেবারেই পছন্দ নয়।

—ঈশিকা নাজনীন


মন্তব্য