kalerkantho


বিশ্বে পর্যটক আগমন ৭ বছরে সর্বোচ্চ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২১ জানুয়ারি, ২০১৮ ১৫:০১



বিশ্বে পর্যটক আগমন ৭ বছরে সর্বোচ্চ

পাশের একটি টাওয়ার থেকে টোকিও স্কাইলাইনের সঙ্গে সেলফি তুলছেন পর্যটকরা। ছবি : এএফপি

যুদ্ধ, জঙ্গি হামলা ও রাজনৈতিক সংঘাত বিশ্বে এখন প্রতিদিনের হয়ে উঠলেও তা বাধা হতে পারেনি পর্যটন খাতের সাফল্যে। গত বছর বিশ্বে আন্তর্জাতিক পর্যটক আগমন উল্লেখযোগ্য হারে বেড়েছে। বিশ্ব পর্যটন সংস্থার (ইউএনডাব্লিউটিও) সর্বশেষ প্রতিবেদনে বলা হয়, ২০১৭ সালে আন্তর্জাতিক পর্যটক আগমন ৭ শতাংশ বেড়ে হয়েছে ১৩২ কোটি ২০ লাখ। এটি ২০১০ সালের পর সর্বোচ্চ প্রবৃদ্ধি। গত সাত বছর বিশ্বে পর্যটক আগমনে গড় প্রবৃদ্ধি ছিল ৪ শতাংশ। আশা করা হচ্ছে, এ বছরও শক্তিশালী প্রবৃদ্ধি অব্যাহত থাকবে।

আরও পড়ুন: আইপিএলে এবার চোখ ধাঁধানো প্রযুক্তি

গত বছর বিশ্বের বেশ কিছু অঞ্চলেই পর্যটক আগমনে সুসংহত প্রবৃদ্ধি অর্জিত হয়েছে। যেসব অঞ্চলে ২০১৬ সালে পর্যটক আগমন কমেছিল সেগুলোতেও বেড়েছে। ইউরোপে পর্যটক এসেছে ৬৭১ মিলিয়ন, যা আগের বছরের চেয়ে ৮ শতাংশ বেশি। এশিয়া ও প্যাসিফিক অঞ্চলে পর্যটক আগমন ৬ শতাংশ বেড়ে হয়েছে ৩২৪ মিলিয়ন। এর মধ্যে দক্ষিণ এশিয়ায় পর্যটক আগমন বেড়েছে ১০ শতাংশ, দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় ৮ শতাংশ, ওশেনিয়ায় ৭ শতাংশ এবং উত্তর-পূর্ব এশিয়ায় বেড়েছে ৩ শতাংশ।

আরও পড়ুন: আইপিএলের নিলাম অনুষ্ঠানে সাকিবসহ ৫৭৮ ক্রিকেটার

২০১৭ সালে আমেরিকায় পর্যটক বেড়েছে ৩ শতাংশ, আন্তর্জাতিক পর্যটক এসেছে ২০৭ মিলিয়ন। তবে উত্তর আমেরিকার কানাডা ও মেক্সিকোতে পর্যটক আগমন বাড়লেও কমেছে যুক্তরাষ্ট্রে। এ ছাড়া আফ্রিকায়ও গত বছর পর্যটক আগমন ৮ শতাংশ বেড়ে হয়েছে রেকর্ড ৬২ মিলিয়ন। যুদ্ধবিধ্বস্ত মধ্যপ্রাচ্যে আন্তর্জাতিক পর্যটক গেছে ৫৮ মিলিয়ন, যা ২০১৬ সালের চেয়ে ৫ শতাংশ বেশি।

আরও পড়ুন: দুর্দান্ত হ্যাটট্রিক করে সিটিকে জেতালেন আগুয়েরো

ইউএনডাব্লিউটিও জানায়, ২০১৮ সালেও এ খাতে জোরালো প্রবৃদ্ধি অব্যাহত থাকবে। এ বছর আন্তর্জাতিক পর্যটক আগমন ৪ থেকে ৫ শতাংশ বাড়বে, যা ২০১০-২০ সালের গড় প্রবৃদ্ধি ৩.৮ শতাংশ থেকে কিছুটা বেশি। এর মধ্যে আমেরিকা ও ইউরোপে পর্যটক আগমন বাড়বে ৩.৫-৪.৫ শতাংশ হারে। এশিয়া ও প্যাসিফিক অঞ্চলে বাড়বে ৫ থেকে ৬ শতাংশ। আফ্রিকায় ৫ থেকে ৭ শতাংশ এবং মধ্যপ্রাচ্যে বাড়বে ৪ থেকে ৬ শতাংশ হারে।

আরও পড়ুন: 'রিয়ালে রোনালদোর সঙ্গে চমৎকার বন্ধুত্ব হবে নেইমারের'

ইউএনডাব্লিউটিওর সেক্রেটারি জেনারেল জুরাব পলোলিকাশভিলি বলেন, 'আন্তর্জাতিক পর্যটন খাত শক্তিশালী প্রবৃদ্ধিতে রয়েছে। ফলে অর্থনৈতিক উন্নয়নে প্রধান চালিকাশক্তি হয়ে উঠেছে এটি, যা বিশ্বের তৃতীয় বৃহৎ রপ্তানি খাত। বিশ্বজুড়ে কর্মসংস্থান সৃষ্টি ও কমিউনিটি উন্নয়নে পর্যটন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ খাত।'

আরও পড়ুন: হ্যাজার্ডের জোড়া গোলে চেলসির বিশাল জয়


মন্তব্য