kalerkantho


ভ্রমণ: বরফ ঢাকা পর্বত, নদী আর গ্লেসিয়ারের স্বর্গ কুল্লু মানালি

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২১ এপ্রিল, ২০১৭ ১৫:০৪



ভ্রমণ: বরফ ঢাকা পর্বত, নদী আর গ্লেসিয়ারের স্বর্গ কুল্লু মানালি

তুষার ঢাকা পর্বত চূড়া থেকে শুরু করে উষ্ণ বসন্তের দেখা পেতে যেতে হবে ভারতের কুল্লু মানালিতে। প্রকৃতিপ্রেমীদের আদর্শ এক স্থান।

রোমাঞ্চপ্রিয় মানুষরা মানালিতে ছুটে যান। সেখানে আছে বরফাচ্ছাদিত পর্বতমালা, নদী আর অপূর্ব প্রকৃতি। বিশেষ করে অভিযানে যারা নামতে চান, তাদের জন্য ব্যাকপ্যাক কাঁধে ঝোলানা জরুরি। এখানে জেনে নিন, কুল্লু মানালির কয়েকটি দারুণ স্থানের কথা।  

১. হাদিম্বা টেম্পল  


কাঠ ও পাথরের এই মন্দির দেবতা ভিমার স্ত্রী হাদিম্বার প্রার্থনার জন্য বানানো হয়েছে। মহাভারতের পঞ্চ পাণ্ডবের এক ভাই ভিমা। এটি তৈরি হয় ১৫৫৩ সালে। দুনগ্রি পার্কের মাঝে অবস্থিত এটি।  

২. রোহতাং পাস  


বরফে আচ্ছাদিত এক স্থান। লেহ হাইওয়ের পাশেই অবস্থিত। জুন থেকে অক্টোবরের মাঝে এই স্থান খোলা থাকে। এই স্থান সমুদ্র পৃষ্ঠ থেকে ৩৯৭৯ মিটার উঁচুতে। পর্বতের চূড়া, গ্লেসিয়ার আর চন্দ্রা নদীর বিস্ময়কর দৃশ্য নজরে আসে। পর্যটকদের পিক মৌসুমে ভীড় লেগে যায়।  

৩. নাগ্গার 
কুল্লুর আগের রাজধানী শহর নাগ্গার। বিয়াস নদীর তীরে গড়ে উঠেছে শহরটি। মানালি থেকে ২১ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত। রাজা বিসুধপাল এই শহরের গোড়াপত্তন করেন। ১৪০৬ সালে রাজধানী সুলতানপুরে স্থানান্তরিত করার আগ পর্যন্ত নাগ্গার ছিল সেই সময়ের রাজনীতির কেন্দ্রস্থল।  

৪. সোলাং ভ্যালি 


মানালি থেকে ১৩ কিলোমিটার দূরেই সোলাং ভ্যালি। রোমাঞ্চকর ক্রীড়ার স্বর্গ এটি। বিশেষ করে স্কিয়িংয়ের জন্য বিখ্যাত। সোলাং গ্রাম এবং বিয়াস কুন্ডের মাঝামাঝি অবস্থিত। বরফে ঢাকা পর্বত আর গ্লেসিয়ার আপনাকে মুগ্ধ করবে।  

৫. মানিকরন 
পার্বতি নদীর তীরেই অবস্থিত। হট সালফার বসন্তের জন্য বিখ্যাত এক স্থান। হিন্দু ও শিখ পূণ্যার্থীদের অন্যতম গন্তব্য। এখানকার পানি নিতে আসেন অনেকে। বিশ্বাস করা হয়, এই পানিতে অনেক রোগ-বালাই দূর হয়। সূত্র: হ্যাপি ট্রিপস 


মন্তব্য