kalerkantho


গেইম

ব্যাটল রয়্যাল

এস এম তাহমিদ   

১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



ব্যাটল রয়্যাল

সময়ের জনপ্রিয় গেইম ব্যাটল রয়্যাল। অ্যানড্রয়েডের জন্যও বাজারে ছেড়েছে নির্মাতা এপিক গেইমস। ফর্টনাইট খেলা যাবে শুধু মাল্টিপ্লেয়ার মোডেই। দলবদ্ধভাবে বা একা ম্যাচের শেষ পর্যন্ত টিকে থাকাই হবে লক্ষ্য। একসঙ্গে ১০০ গেইমার একটি ম্যাচে অংশ নিতে পারবে।

ম্যাচ শুরুর আগে সবাইকে একটি দ্বীপে একত্র করা হবে। ম্যাচ শুরু হয়ে গেলে সবাইকে উড়ন্ত বাসে করে ফর্টনাইটের মূল দ্বীপে নিয়ে যাওয়া হবে। উড়ে যাওয়ার সময় গেইমারদের মনমতো জায়গায় লাফ দিয়ে সঙ্গের গ্লাইডারে ভেসে অবতরণ করতে হবে।

গেইমের শুরুতে কোনো অস্ত্র দেওয়া হবে না, দ্বীপে থাকা বাড়িঘর বা অন্যান্য স্থান থেকে অস্ত্র জোগার করতে হবে। সেগুলো ব্যবহার করে গেইমারদের টিকে থাকার চেষ্টা করতে হবে। এর মধ্যেই কিছুক্ষণ পর পর নতুন অস্ত্র এবং প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র প্যারাশুটের মাধ্যমে দ্বীপে ফেলা হবে। এভাবেই এগোতে থাকবে ম্যাচ, কমতে থাকবে গেইমারের সংখ্যা।

অংশগ্রহণকারী কমে গেলে একে অপরকে খুঁজে পেতে যাতে সমস্যা না হয়, সে জন্য গেইমের এলাকা ধীরে ধীরে ছোট করে দেওয়া হবে। যারা নিরাপদ জায়গায় পৌঁছতে পারবে না, তারা নিজে থেকেই মারা পড়ে ম্যাচ থেকে বাদ পড়ে যাবে। এভাবে করে শেষ পর্যন্ত যে দল বা যে প্রতিযোগী টিকে থাকবে, সেই বিজয়ী।

প্লেয়ার আননোনস ব্যাটলগ্রাউন্ডসের সঙ্গে ফর্টনাইটে একটি বড় পার্থক্য—এই গেইমে চাইলে কাঠ কেটে বা পাথর সংগ্রহ করে দেয়াল, র‌্যাম্প, সিঁড়ি তৈরি করা যাবে। এর মাধ্যমে নিজেকে রাখা যাবে নিরাপদ, তৈরি করা যাবে প্রয়োজন অনুযায়ী জিনিসপত্র।

গেইমের মধ্যে নিজের চেহারা পাল্টানো বা অন্যান্য জিনিসের চেহারা বদলের জন্য খরচ করতে হবে ভিবাকস। এগুলো ম্যাচ জিতে কামাই করা ছাড়াও ইন-অ্যাপ পারচেইজের মাধ্যমে কেনা যাবে। গেইমটি খেলা যাবে বিনা মূল্যে।

ফর্টনাইট খেলতে হলে শুরুতে এপিক গেইমসের সাইটে অ্যাকাউন্ট খুলতে হবে, তারপর ডাউনলোড করতে হবে এপিকে ফাইল। এরপর ই-মেইলে গেইম খেলার ইনভাইট পেলে তবেই সেটি খেলা যাবে। আপাতত স্যামসাং, গুগল, ওয়ানপ্লাসের মতো কিছু নির্মাতার সর্বশেষ ফ্ল্যাগশিপেই গেইমটি খেলা যাবে।

অ্যানড্রয়েড লিংক: https://www.epicgames.com/fortnite/mobile/android

 



মন্তব্য