kalerkantho

গেইমস

নতুন ভোরের আশায়

এস এম তাহমিদ   

২ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



নতুন ভোরের আশায়

সাধারণত উবিসফটের তুমুল জনপ্রিয় গেইম সিরিজ ‘ফারক্রাই’-এর একটি পর্বের সঙ্গে অন্যটির সরাসরি কোনো যোগসূত্র থাকে না। সে অনুযায়ী সিরিজটির সর্বশেষ পর্ব ‘ফারক্রাই নিউ ডন’কে আলাদা বলতেই হবে। কেননা এটি ‘ফারক্রাই ৫’-এর উত্তরসূরি। যুক্তরাষ্ট্রের অঙ্গরাজ্য মনটানার হোপ কাউন্টিতে ‘ফারক্রাই ৫’ শেষ হওয়ার পর কী ঘটেছে, তা নিয়েই এবারের পর্ব।

আগের পর্বের শেষে দেখা যায় হোপ কাউন্টিতে একটি পারমাণবিক বোমা বিস্ফোরিত হয়েছে। নিউ ডনের শুরু সে ঘটনার ১৭ বছর পর থেকে। ধীরে ধীরে সেখানকার বেঁচে যাওয়া মানুষেরা আবারও সমাজ ও সভ্যতা গড়ে তুলতে শুরু করেছে। তবে সে লক্ষ্যে সবাই কাজ করছে না। কিছু মানুষ এ সুযোগে হয়ে উঠেছে দস্যু। দস্যু দলগুলোর মধ্যে সবচেয়ে শক্তিশালী হচ্ছে গেইমটির মূল ভিলেন—লু এবং মিকি। এ দুই বোনের লক্ষ একটিই—হোপ কাউন্টির মধ্যে নিজেদের শাসক হিসেবে প্রতিষ্ঠা করা।

শুরুতে দেখা যাবে টম রাশ নামের একজনকে নিয়ে হোপ কাউন্টিতে এসেছে গেইমের মূল চরিত্র ‘দ্য ক্যাপ্টেন’। রাশের লক্ষ্য, হোপ কাউন্টির মানুষগুলোকে একত্র করে নতুনভাবে সমাজ ও সরকার গঠন করা। ক্যাপ্টেন আর রাশ মিলে এলাকার মানুষগুলোকে আত্মরক্ষার প্রশিক্ষণ দেয়, গ্রামের চারদিকে তৈরি করে প্রতিরক্ষা দেয়াল। তবে সে কাজ বেশিদূর এগোতে পারে না। লু এবং মিকির দলের হাতে মারা যায় রাশ। এরপর শুরু হয় দুই বোনের বিরুদ্ধে ক্যাপ্টেনের লড়াই।

‘ফারক্রাই ৫’-এর ভিলেন জোসেফ সিড বা ‘দ্য ফাদার’ও নিউ ডনে বাদ পড়েনি। তার ছেলে ইথান সিড এবং তার মধ্যকার টানাপড়েন দেখা যাবে গেইমটির শেষের দিকে। মূলত নতুন-পুরান প্রজন্মের মতবিরোধ এবং জোসেফ সিডের পাগলামির পরিণাম নিয়েই সাজানো হয়েছে গেইমটির শেষাংশ।

গেইমটির কাহিনি তেমন একটা শক্তিশালী না হলেও গ্রাফিকস এবং গেইমপ্লে চমৎকার। হোপ কাউন্টি এবার নানা রকম ফুলের রঙে রঙিন, নতুন সব চরিত্র এবং নতুন সব এলাকা গেইমারকে ব্যস্ত রাখবে অনেকটা সময় ধরে। ওপেন ওয়ার্ল্ড ঘরানার গেইমটিতে ইচ্ছামতো ঘুরে বেড়ানো যাবে। এ ছাড়া আছে অনেক সাইড মিশন বা শুধু মজা করার মতো বেশ কিছু মিশন। যাঁরা ফার ক্রাইয়ের গেইমপ্লের ভক্ত তাঁরা হতাশ হবেন না মোটেও।

পিসির পাশাপাশি প্লেস্টেশন ৪ এবং এক্সবক্স ওয়ানেও খেলা যাবে গেইমটি।

 

খেলতে যা যা লাগবে

অন্তত উইন্ডোজ ৭ ৬৪বিট, ইন্টেল কোরআই ৫ ২৪০০ বা এএমডি এফএক্স ৬৪৫০ প্রসেসর, ৮ গিগাবাইট র‌্যাম, এনভিডিয়া জিটিএক্স ৬৭০ বা এএমডি আর৯ ২৭০এক্স গ্রাফিকস, হার্ডডিস্কে ৩০ গিগাবাইট খালি জায়গা।

বয়স

১৮+

মন্তব্য