kalerkantho

নাগালের বাইরে ছিল সেরা গেইমগুলো

সামীউর রহমান   

২৯ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



নাগালের বাইরে ছিল সেরা গেইমগুলো

বাড়ছে প্রযুক্তির বহর, সেই সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে গেইমারদের চাহিদা। স্টুডিওগুলোর কাছে প্রত্যাশা হচ্ছে আকাশচুম্বী। এই ইঁদুরদৌড়ে ক্রমশ পিছিয়ে পড়ছেন পিসি গেইমাররা। কারণ বছরের সেরা সব গেইমই এখন মুক্তি পাচ্ছে কনসোলে। অনেক সময় বিশেষ একটি কনসোলের গেইমারদের কথা মাথায় রেখেই গেইম বানাচ্ছেন ডেভেলাপাররা। ফলে পিসি গেইমারদের আক্ষেপটা বাড়ছে দিন দিন। ২০১৮ সালের সবচেয়ে আলোচিত তিনটি গেইমের একটিতেও যে হাত দেওয়ার উপায় ছিল না পিসি গেইমারদের!

বছরের সেরা গেইমের লড়াইটা ছিল রকস্টার গেইমসের ‘রেড ডেড রিডেম্পশন টু’ আর সনি সান্তা মনিকা স্টুডিওর ‘গড অব ওয়ার’-এর ভেতর। রেড ডেড রিডেম্পশন টু মুক্তি পেয়েছে প্লেস্টেশন ফোরে আর এক্সবক্স ওয়ানে, গড অব ওয়ার শুধুই প্লেস্টেশন ফোরে। দুটো গেইমেরই গ্রাফিকস, কাহিনি, গেইম প্লে সবই মন্ত্রমুগ্ধকর! দ্য গেইম অ্যাওয়ার্ডসে ‘রেড ডেড রিডেম্পশন টু’ চারটি আলাদা ক্যাটাগরিতে পুরস্কার জিতলেও বর্ষসেরা গেইমের পুরস্কারটা জিতেছিল ‘গড অব ওয়ার’। অন্যদিকে গেইমস্পট ওয়েবসাইটের বেছে নেওয়া বছরের সেরা গেইমের পুরস্কারটা আবার উঠেছে আরডিআরটুর হাতেই।

আরেক আলোচিত গেইম ছিল মারভেলের স্পাইডারম্যান। সিনেমায় পিটার পার্কারের দ্বৈতসত্তার স্বত্ব ফিরে পেয়েছে মারভেল, ‘ফ্রেন্ডলি নেইবারহুড’ স্পাইডারম্যান যোগ দিয়েছে অ্যাভেঞ্জারদের দলে। এমন উপলক্ষে স্পাইডারম্যানের নতুন গেইম তো আসারই কথা! এসেছেও, কিন্তু এখানেই পিসি গেইমাররা হতাশ। স্পাইডি শুধুই পিএসফোরের জালে! তাহলে কিছুই কি ছিল না পিসি গেইমারদের জন্য?

মাখনটা না থাকলেও দুধটুকু ছিল! ইউবিসফট তাদের জনপ্রিয় সিরিজ ‘অ্যাসাসিনস ক্রিড’-এর গেইমগুলো বরাবরই সব প্ল্যাটফর্মে মুক্তি দিয়ে থাকে। ফলে বঞ্চিত হন না পিসি গেইমাররা। এবারে ইউবিসফট নিয়ে এসেছিল ‘অ্যাসাসিনস ক্রিড: অডিসি’। ২০১৭ সালে অ্যাসাসিনস ক্রিড: অরিজিনস দিয়ে এই সিরিজের গল্প চলে গিয়েছিল যিশুর জন্মের পূর্বের মিসরে। এবারেও খ্রিস্টপূর্ব সময়ে, তবে মিসর থেকে গ্রিসে। পেলোপনেসিয়ার যুদ্ধকে ঘিরে বিবদমান গ্রিক নগর রাষ্ট্রগুলোর মধ্যে থেকে রাজা লিওনিডাসের এক সৈনিকের ভূমিকায় নেমে গেইমার নিয়েছেন অ্যালেক্সিওস বা কাসান্দ্রার ভূমিকা। অ্যাসাসিনস ক্রিড এই পর্বে এসে অনেকটাই ধারণ করেছে রোল প্লেয়িং গেইমের রূপ। তাতে হাততালি ও সমালোচনা দুই-ই আছে! তলোয়ারবাজির আরেকটা গেইম ‘সউল ক্যালিবার’ এবার পিসি গেইমারদের নাগালে এসেছে! এত দিন আর্কেড এবং কনসোলেই মুক্তি পেয়েছিল বান্দাই নামকো স্টুডিওর এই অসিযুদ্ধের গেইমের আগের পাঁচটি পর্ব। এবারই মাউস আর কি-বোর্ডে চালানো গেছে তলোয়ারের লড়াই।

এ ছাড়া বন্দুকবাজির গেইম ‘ব্যাটলফিল্ড ৫’, আততায়ীর ভূমিকায় নেমে পড়ার সেই চেনা টেকো মাথার এজেন্ট ৪৭-এর গেইম ‘হিটম্যান-২’, ডাইনোসরদের নিয়ে বানানো পার্ক চালানোর গেইম ‘জুরাসিক ওয়ার্ল্ড ইভাল্যুশন’, গোপন সামরিক অভিযান নিয়ে নতুন গেইম ‘কল অব ডিউটি: ব্ল্যাক অপস’-এর চতুর্থ কিস্তি, অতল জলের গহিনের গল্প নিয়ে ‘সাবনটিকা’—এমন অনেক বৈচিত্র্যপূর্ণ গেইমই হাতে পেয়েছেন গেইমাররা, যা কখনো তাঁদের নিয়ে গেছে ভবিষ্যতের যুদ্ধক্ষেত্রে, জুরাসিক যুগের ডাইনোসরের থাবার নিচে অথবা সাগরতলের অজানা জগতে।

বছরের শুরুর প্রান্তিকে মুক্তি পাওয়া ‘ফার ক্রাই ৫’ ছিল অন্যতম চাহিদাসম্পন্ন গেইম। স্নায়ুযুদ্ধ, টুইন টাওয়ার ধ্বংসসহ অনেক ঐতিহাসিক ঘটনাও ঘুরেফিরে এসেছে এই গেইমের কাহিনিতে। কারণ রাজনীতি এখানে এক মহাগুরুত্বপূর্ণ ভূমিকায়। মনটানার এক উগ্র ধর্মীয় নেতার শিক্ষায় পথ হারানো একদল যুদ্ধংদেহী মানুষের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ডেপুটি শেরিফের ভূমিকায় নামতে হয়েছে। 

এ ছাড়া জেল পালানোর গল্প নিয়ে ‘এওয়ে আউট’, রেসিং গেইম ‘ফোরজা হরাইজোন ফোর’ ও ‘ফরমুলাওয়ান ২০১৮’, ফুটবলে ফিফা গেইমের নতুন সংস্করণ ‘ফিফা ১৯’; অনেক গেইমই হাতে পেয়েছেন গেইমাররা। এসেছে টম্ব রেইডারের নতুন কিস্তি শ্যাডো অব টম্ব রেইডারও।

তবে এত নতুনের ভিড়েও ‘মারিও’র আবেদন বিন্দুমাত্র কমেনি! আমাজন ডটকমের জরিপ তো তাই বলছে। বছরের সবচেয়ে বেশি বিক্রি হওয়া গেইমের তালিকার প্রথম দুটো হচ্ছে ‘মারিও সুপার স্ম্যাশ ব্রাদার্স আলটিমেট’ আর ‘সুপার মারিও পার্টি’; দুটোই নিনতেনদো সুইচ কনসোলে। তিনে রেড ডেড রিডেম্পশন টু। 

মন্তব্য