kalerkantho


কৌশলে প্রিন্টারের কালি সাশ্রয়

তুসিন আহমেদ   

১ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



কৌশলে প্রিন্টারের কালি সাশ্রয়

কিছু কাজে অনেক বেশি প্রিন্ট নিতে হয়। এ নিয়ে বাসায় বা অফিসে প্রিন্টারের কালির খরচের বিষয়টি আলোচনায় আসে। এমন ক্ষেত্রে কিছু কৌশল অবলম্বন করলে প্রিন্টারের কালি সাশ্রয় করা যায়।

 

শুধু প্রয়োজনীয় টেক্সট প্রিন্ট করা

অনেক সময় পিডিএফ বা অন্য ফাইলের নির্দিষ্ট কিছু টেক্সট প্রিন্টের প্রয়োজন হয়। এ ক্ষেত্রে পুরো পেইজটি প্রিন্ট করলে বেশি কালি খরচ হবে। প্রয়োজনীয় টেক্সটুকু মাউসের বাঁ বাটন চেপে নির্বাচন করে ডান বাটন চেপে Copy করে নিতে হবে। এরপর ওয়ার্ড বা ডক ফাইল খুলে ওপরের Edit থেকে Paste Special চাপলে শুধু টেক্সটটুকু পেস্ট হবে। এই ডক ফাইলটি প্রিন্ট করলে তুলনামূলক অনেক কালি কম খরচ হবে।

 

স্ট্যান্ডবাই মোডে প্রিন্টার

প্রিন্টার প্রতিবার চালুর সময় কিছু কালি খরচ হয়। একে ইনিশিয়ালাইজেশন প্রসেস বলে। যদি এক প্রিন্টার থেকে নিয়মিত বিরতিতে প্রিন্ট করার প্রয়োজন পড়ে সে ক্ষেত্রে বারবার প্রিন্টার বন্ধ না করে স্ট্যান্ডবাই মোডে রাখা ভালো। এতে প্রিন্টার রাখলে কালি সাশ্রয় হবে।

 

ওয়েব পেইজ এডিট

অনেক সময় ওয়েবসাইটের কিছু অংশ প্রিন্ট করার প্রয়োজন হয়। এমন ক্ষেত্রে ওয়েবসাইটের হেডার, ফুটার, ওয়েব অ্যাড্রেসসহ অনেক কিছু প্রিন্ট হয়ে যায়। এতে অনেক বেশি কালি ব্যয় হয়। বিশেষ করে ওয়েবসাইটটি অনেক বেশি কালারফুল হলে কালি খরচ হয় বেশি।

এ ক্ষেত্রে কালি বাঁচাতে ওয়েবসাইট ওপেন করে ওয়েব ব্রাউজারের মেন্যুবারে File থেকে Page-এ গিয়ে Setup-এ ক্লিক করে ok করুন। এতে শুধু পেইজের কনটেন্টটুকু প্রিন্ট হবে। এর বিপরীতে আপনি যদি শুধু হেডার বা ফুটারের অংশ প্রিন্ট করতে চান, তাহলে আগের নিয়মে সেটআপে ঢুকে হেডার ও ফুটার বক্সে এন্টার করে অন্য অপশনগুলো যথাযথভাবে পূর্ণ করে ওকে করতে হবে।

 

কার্ট্রিজের ব্যবহার

‘কালি শেষ হয়ে যাচ্ছে’—এমন মেসেজ দেখলেই নতুন কার্ট্রিজ ভরে ফেলবেন না। পুরনো কার্ট্রিজটি বের করে ডানে-বাঁয়ে মৃদুভাবে কিছুক্ষণ ঝাঁকিয়ে পুনরায় প্রিন্টারে ঢোকাতে হবে। এতে কার্ট্রিজের অবশিষ্ট কালি পুনর্বণ্টিত হবে। প্রিন্ট করা যাবে আরো কিছু পেইজ।



মন্তব্য