kalerkantho


গুগলহীন ২৪ ঘণ্টা?

বিনোদন, ব্যবসা, যোগাযোগ—কোথায় নেই গুগল। তবে যদি পুরো এক দিন গুগলের সব সেবা বন্ধ থাকে, তাহলে কেমন হবে অবস্থা! বিয়য়টি পর্যালোচনা করে লিখেছেন মিজানুর রহমান

২৪ নভেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



গুগলহীন ২৪ ঘণ্টা?

কর্মক্ষেত্রে যৌন নিপীড়নের প্রতিবাদে গুগলে কর্মরত প্রকৌশলীদের ডাক দেওয়া কর্মবিরতিতে যুক্ত হয় হাজার হাজার কর্মী। কয়েক ঘণ্টার এই কর্মবিরতিতে দৃশ্যমান কোনো প্রভাব না পড়লেও প্রশ্ন উঠেছে যদি কোনো এক দিন গুগলের সব কর্মী বিরতিতে যায়, তাহলে কী ঘটতে পারে?

 

ইন্টারনেটে ভিজিটর কমে যাবে ৩০%

ইন্টারনেটে বর্তমানে প্রায় ২০০ কোটি ওয়েবসাইট আছে। এসব ওয়েবসাইট খুঁজতে ব্যবহারকারীদের অধিকাংশই গুগলের দ্বারস্থ হন। বলা হয়, গুগল বন্ধ থাকলে ৩০ শতাংশ ইন্টারনেট ব্যবহারকারী কমে যাবে। অনেক ওয়েবসাইট কোনো ভিজিটরই পাবে না।

 

অন্য সার্চ ইঞ্জিনের পোয়াবারো

গুগলের বন্ধ হওয়া সারা বিশ্বের জন্য খারাপ সংবাদ হলেও ইয়াহু, আস্ক, বিং-এর মতো সার্চ ইঞ্জিনগুলোর জন্য বয়ে আনবে সুখবর। এসব সার্চ ইঞ্জিন অনেক বেশি পরিমাণে ভিজিটর পেতে থাকবে।

এমনও হতে পারে, এর মধ্যে অনেকগুলো আবার ভিজিটরের চাপ নিতে না পেরে ক্রাশ করবে, যা পরিস্থিতিকে আরো ভয়াবহ করে তুলবে।

 

স্বাভাবিক জীবন ব্যাহত হবে

ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর জীবনের সঙ্গে গুগল ম্যাপ, জিমেইল, গুগল কনট্যাকস, গুগল ফটো, গুগল প্লেস্টোর ওতপ্রোতভাবে জড়িত।

গুগল ম্যাপ কাজ না করলে পথ খুঁজে পাওয়া অনেক কঠিন হয়ে যাবে। গুগল ম্যাপনির্ভর অ্যাপগুলো যেমন উবার, পাঠাও, ওভাই সব বিভিন্ন অ্যাপ ঠিকমতো কাজ করবে না। যারা গুগল কনট্যাকসের ওপর বেশি নির্ভরশীল তাদের সংরক্ষিত ফোন নম্বরও পাওয়া যাবে না। ফলে পারস্পরিক যোগাযোগ ক্ষতিগ্রস্ত হবে।

ইউটিউব কাজ না করলে বিনোদনের উৎস কমে যাবে। ছাত্ররা ভিডিও টিউটোরিয়াল দেখতে পারবে না। শিক্ষাক্ষেত্রেও অনেক ক্ষতির সম্মুখীন হবে, বিশেষ করে যাঁরা গুগল ক্লাসরুম ব্যবহার করেন তাঁদের শিক্ষাক্রম বন্ধ থাকবে।

 

ব্যাবসায়িক ক্ষতি

বর্তমান সময়ে অনেক ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানই গুগলের ওপর নির্ভরশীল। গুগলের অ্যাডসেন্স ও অ্যাডওয়ার্ডস পণ্যের মার্কেটিংয়ের একটি কার্যকর পন্থা হিসেবেই পরিচিত। এই দুটি সেবা সাময়িকভাবে বন্ধ হয়ে গেলে শতকোটি ডলারের ব্যবসায়িক ক্ষতির মুখে পড়বে গুগল। গুগল প্লেস্টোর থেকে অ্যাপ নামানো না গেলে ক্ষতিগ্রস্ত হবে কোটি কোটি অ্যাপ। জিমেইল কাজ না করলে ব্যবসায়িক যোগাযোগও ক্ষতির মুখে পড়বে।

 

বিকেন্দ্রীকরণের প্রয়োজনীয়তা অনুভব করবে বিশ্ব

এভাবে যদি সত্যিই গুগলের সেবা কোনো দিন মুখ থুবড়ে পড়ে, তাহলে ইন্টারনেট ব্যবহারকারী থেকে শুরু করে ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানগুলো বিকেন্দ্রীকরণের প্রয়োজনীয়তা অনুভব করবে।

একটি কম্পানি থেকে সব সেবা না নিয়ে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান থেকে বিভিন্ন ধরনের সেবা নেবে তারা। যেমন—ফেইসবুক নতুন সার্চ ইঞ্জিনের ঘোষণা দিতে পারে।



মন্তব্য