kalerkantho


পবিত্র কোরআনের আলো । ধা রা বা হি ক

কিয়ামতের দিন দুনিয়ার জীবন খুবই সংক্ষিপ্ত মনে হবে

১৪ জুলাই, ২০১৮ ০০:০০



কিয়ামতের দিন দুনিয়ার জীবন খুবই সংক্ষিপ্ত মনে হবে

৫২. যেদিন তিনি তোমাদের ডাকবেন, তোমরা তাঁর হামদ উচ্চারণ করতে করতে তাঁর ডাকে সাড়া দেবে। আর তখন তোমাদের এ ধারণা হবে যে তোমরা অল্পকালই (দুনিয়ায়) অবস্থান করেছিলে। (সুরা : বনি ইসরাঈল, আয়াত : ৫২)

তাফসির : আগের আয়াতে বলা হয়েছিল, পরকাল চিরসত্য। নির্ধারিত সময়ে কিয়ামত কায়েম হবে। কিয়ামতের দিন দ্রুতই আসবে। ওই দিন সবাইকে আবার জীবিত করা হবে। আলোচ্য আয়াতে কিয়ামতের দিনের বিশেষ অবস্থা এবং ওই দিন সাধারণ মানুষের অনুভূতি সম্পর্কে বর্ণনা করা হয়েছে। কিয়ামতের দিন আল্লাহর হুকুমে পুনরুত্থান হবে। হাশরের ময়দানে পৃথিবীর শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত সব মানুষকে সমবেত করার জন্য মহান আল্লাহ ফেরেশতাদের মাধ্যমে ডাক দেবেন। মানুষ বাধ্যতামূলকভাবে আল্লাহর হামদ পাঠ করতে করতে আল্লাহর ডাকে সাড়া দেবে। ওই দিন বিভীষিকাময় পরিস্থিতি তৈরি হবে। মানুষ দুনিয়ার গোটা বয়স ও কবরে অবস্থানের সময় সম্পর্কে এই অনুমান করবে যে খুবই সীমিত সময় তারা অতীতে পার করেছে। কেননা বিপদে পড়ার পর সুখের দিনগুলো মানুষের কাছে খুবই সংক্ষিপ্ত মনে হয়।

দুনিয়ার জীবন ক্ষণস্থায়ী আর পরকালের জীবন চিরস্থায়ী। দুনিয়ার জীবন খুবই সীমিত সময়ের। পরকালে মানুষের মনে হবে, দুনিয়ায় তারা যেন দিনের সামান্য সময় অতিবাহিত করেছে। এ বিষয়ে বর্ণনা করা হয়েছে আলোচ্য আয়াতে। অবিশ্বাসীরা পরকালে বিশ্বাস করে না। তারা মনে করে, শেষ বিচারের দিন বলতে কিছু নেই। আসমানি সব ধর্মে এই বিশ্বাস রয়েছে যে একদিন সব মানুষকে একসঙ্গে সমবেত করা হবে। সেদিন তাদের কৃতকর্মের নিখুঁত হিসাব-নিকাশ হবে। এরপর সবাইকে উপযুক্ত প্রতিদান দেওয়া হবে। সেদিন পরকালের অনন্ত জীবন সবার সামনে থাকবে। তাই ভবিষ্যতের তুলনায় অতীত জীবন অত্যন্ত নগণ্য মনে হবে। সেখানে দুনিয়ার জীবনের প্রতিটি কাজ, প্রতিটি পদক্ষেপের কথা তাদের মনে পড়বে। ফলে মানুষ নিজেদের অপরাধ শনাক্ত করে আল্লাহর ন্যায়বিচারের মর্ম অনুধাবন করতে সক্ষম হবে। একদিকে তাদের সামনে থাকবে আখিরাতের অনন্ত জীবন; অন্যদিকে তারা পেছনে ফিরে তাকাবে। সে সময় তারা উপলব্ধি করতে পারবে যে তারা দুনিয়ার জীবনের সামান্য স্বাদ ও লাভের বিনিময়ে নিজেদের চিরন্তন ভবিষ্যৎ নষ্ট করেছে। মৃত্যুর পরে যে জীবন তা হবে অনন্তকালের। সেই অনন্ত জীবনের তুলনায় দুনিয়ার জীবন খুবই ক্ষুদ্র। এ কথা পবিত্র কোরআনে অনেক স্থানে এসেছে। এক আয়াতে আল্লাহ বলেন, ‘যেদিন তারা তা (কিয়ামত) প্রত্যক্ষ করবে, সেদিন তাদের মনে হবে যেন তারা দুনিয়ায় মাত্র এক সন্ধ্যা বা এক সকাল অবস্থান করেছিল।’ (সুরা : নাজিয়াত, আয়াত : ৪৬)

অন্য আয়াতে এসেছে : ‘আল্লাহ বলবেন, তোমরা দুনিয়ায় কত বছর অবস্থান করেছিলে? তারা বলবে, আমরা অবস্থান করেছিলাম এক দিন বা দিনের কিছু অংশ।’ (সুরা : মুমিনুন, আয়াত : ১১৩)

গ্রন্থনা : মাওলানা কাসেম শরীফ

 



মন্তব্য