kalerkantho



মুখোমুখি প্রতিদিন

সুযোগ কাজে লাগানোটা জেমিই শিখিয়েছেন

১৪ নভেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



সুযোগ কাজে লাগানোটা জেমিই শিখিয়েছেন

মতিন মিয়া ফেডারেশন কাপেও দারুণ খেলছেন। বদলি নেমে এরই মধ্যে ২ গোল করে ফেলেছেন। দুটি গোলই ছিল দর্শনীয়। এ মুহূর্তে অনূর্ধ্ব-২৩ দলের ক্যাম্পে আছেন তিনি। কালের কণ্ঠ স্পোর্টসের মুখোমুখি সেই ক্যাম্প ও ফেডারেশন কাপে নিজের পারফরম্যান্স নিয়েই কথা বলেছেন জাতীয় দলের স্ট্রাইকার।

 

কালের কণ্ঠ স্পোর্টস : ফেডারেশন কাপের মাঝপথে জাতীয় দলের ক্যাম্পে ফিরে কেমন লাগছে?

মতিন মিয়া : ভালোই লাগছে। এই সময়ে তো আমাদের প্রীতি ম্যাচ খেলার কথা ছিল। সেটা হয়নি। এখন এএফসি চ্যাম্পিয়নশিপ বাছাইয়ের জন্য ক্যাম্প করছি। পুরনো অনেক খেলোয়াড় একসঙ্গে, নতুন আরো বেশ কয়েকজন যোগ দিয়েছে। জেমি ডে-ও তাদের কাছে নতুন। কোচও তাদের দেখে নিচ্ছেন। আমরা তো জানিই উনি কিভাবে খেলাতে চান এবং ক্যাম্পে কিভাবে থাকতে হয়, তাই কোনো সমস্যা হচ্ছে না।

প্রশ্ন : ফেডারেশন কাপে এরই মধ্যে দর্শনীয় দুটি গোল করেছেন, জেমি কি দেখেছেন তা?

মতিন : মোহামেডানের বিপক্ষে প্রথমটি দেখেছেন কি না জানি না। তবে কোয়ার্টার ফাইনালেরটি নিশ্চয়ই দেখেছেন। আমাকে আলাদাভাবে কিছু বলেননি, শুধু গোলগুলোর জন্য অভিনন্দন জানিয়েছেন। আমার বিশ্বাস, গোলটি উনি দেখে থাকলে নিশ্চয়ই খুশি হয়েছেন।

প্রশ্ন : কম সময় পাচ্ছেন খেলার জন্য, সব ম্যাচেই নেমেছেন বদলি হিসেবে, সেটুকুই কাজে লাগাচ্ছেন।

মতিন : হ্যাঁ, এটা জেমির কাছেই শিখেছি। যখই সুযোগ পাব ও যেটুকুই সুযোগ পাব, তা যেন কাজে লাগানোর চেষ্টা করি। আমি তো আসলে পুরো সময়ই খেলতে চাই। বদলি নেমে ভালো পারফরম করতে পারলে নিশ্চয়ই শুরুর একাদশে থাকার সেই সুযোগটাও আসবে। বেশি সময় পেলে আমি আরো ভালো করব, গোল করার সুযোগও বাড়বে।

প্রশ্ন : অস্কার ব্রুজন আপনার পারফরম্যান্সে কতটা খুশি?

মতিন : উনি কখনোই আমাকে খারাপ বলেননি। সব সময়ই ইতিবাচক কথা বলে উৎসাহ দিচ্ছেন। আমাকে পারফরম করেই একাদশে জায়গা করে নিতে হবে। দলে অনেক তারকা খেলোয়াড় আছে, তবে আমারও যথেষ্ট আত্মবিশ্বাস আছে নিজের ওপর।

প্রশ্ন : বিজেএমসির বিপক্ষে শেষ ম্যাচে পুরো দলই দুর্দান্ত খেলেছে, এই ধারাটা কতটা ধরে রাখা সম্ভব?

মতিন : টুর্নামেন্টটা শুরু করেছিলাম আমরা মোহামেডানের বিপক্ষে দারুণ এক জয় দিয়ে। পরের দুই ম্যাচে সেটা আমরা ধরে রাখতে পারিনি। সেখান থেকে আবার আমরা আমাদের সেরাটা দেখিয়েছি। এখন পারফরম্যান্সটা ধরে রাখতেই হবে আমাদের। সামনে সেমিফাইনাল ও ফাইনাল, সেখানে আসলে ভুল করার কোনো সুযোগও নেই।

প্রশ্ন : এএফসি চ্যাম্পিয়নশিপের বাছাই পর্বে আপনাদের কী লক্ষ্য থাকবে?

মতিন : আমরা মাত্র দুই দিন অনুশীলন করলাম। এখনো তেমন কিছু আলোচনা হয়নি। তবে বাছাই পর্ব যেহেতু, আমরা অবশ্যই তা পেরোনোর চেষ্টা করব।



মন্তব্য