kalerkantho


৪০০ গোলের চূড়ায় রোনালদো

২২ অক্টোবর, ২০১৮ ০০:০০



৪০০ গোলের চূড়ায় রোনালদো

প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে ইউরোপের শীর্ষ পাঁচ লিগে ৪০০তম গোলের কীর্তি তাঁর। গত পরশু সিরি ‘এ’তে জেনোয়ার বিপক্ষে ১৮তম মিনিটে করেন মাইলফলকের গোলটি।

 

রেকর্ডের মুকুটে আরো এক পালক ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোর। প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে ইউরোপের শীর্ষ পাঁচ লিগে ৪০০তম গোলের কীর্তি তাঁর। গত পরশু সিরি ‘এ’তে জেনোয়ার বিপক্ষে ১৮তম মিনিটে করেন মাইলফলকের গোলটি। এর পরও স্মরণীয় হয়নি রাতটা, জুভেন্টাস নিজেদের মাঠেই মৌসুমে প্রথমবার হোঁচট খায় ১-১ গোলের ড্রতে। একই রাতে ফ্রেঞ্চ লিগে মোনাকোর কোচ হিসেবে অভিষেক থিয়েরি অঁরির। সেটা দুঃস্বপ্নের হয়েছে ১০ জনের দলে পরিণত হয়ে স্ট্রাসবার্গের কাছে ১-২ গোলের হারে। নেইমার, থিয়াগো সিলভাদের ছাড়া পিএসজি রেকর্ড গড়ে টানা দশম জয়ের। তারা ৫-০ গোলে বিধ্বস্ত করে আমিয়াঁকে। এ ছাড়া ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে মো সালাহর একমাত্র গোলে লিভারপুল হারায় হাডার্সফিল্ডকে।

ধর্ষণের অভিযোগ মাঠের খেলায় প্রভাব ফেলেনি রোনালদোর। জুভেন্টাসে যোগ দিয়ে গত পরশু সিরি ‘এ’তে করেছেন নিজের পঞ্চম গোল। ১৮তম মিনিটে জোয়াও কানসেলোর শট একজনের পায়ে লেগে পোস্টে যাওয়ার সময় কোনো রকমে ঠেকান জেনোয়া গোলরক্ষক। ফিরতি বল ফাঁকায় পেয়ে জালে জড়াতে ভুল করেননি রোনালদো। ইউরোপিয়ান সেরা পাঁচ লিগে এটা তাঁর ৪০০তম গোল। ২০০৩ সালে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে যোগ দিয়ে প্রিমিয়ার লিগে করেছিলেন ৮৪ গোল। রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে লা লিগায় লক্ষ্যভেদ ৩১১ বার। আর সিরি ‘এ’তে গোল ৫টি। সব মিলিয়ে প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে সেরা পাঁচ লিগে ৪৮৭তম ম্যাচে পা রাখলেন ৪০০তম গোলের মাইলফলকে। ‘এক ক্লাবের খেলোয়াড়’ লিওনেল মেসি বার্সার হয়ে লা লিগায় করেছেন রেকর্ড ৩৮৯ গোল। রোনালদোর ম্যাচপ্রতি গোল গড় ০.৮ আর মেসির ০.৯২। এই তালিকায় ৩৬৬ গোল নিয়ে তিনে টটেনহামের জিমি গ্রেভস। ১৯৫৭ থেকে ১৯৭১ পর্যন্ত ৫২৯ ম্যাচে ৩৬৬ গোল এই স্পার্স তারকার।

রোনালদোর মাইলফলকের ম্যাচেও ১-১এ জেনোয়ার সঙ্গে ড্র করেছে জুভেন্টাস। ৬৭ মিনিটে সমতা ফেরান ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডার দানিয়েল বেসা। ৬৯ মিনিটে রোনালদোর লাফিয়ে উঠে নেওয়া হেড অল্পের জন্য ক্রসবারের ওপর দিয়ে যাওয়ায় ড্র নিয়ে মাঠ ছাড়ে জুভেন্টাস। এই মৌসুমে নবম ম্যাচে এসে প্রথম পয়েন্ট হারাল তারা। এর পরও ৯ ম্যাচ শেষে ২৫ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে জুভেন্টাস। ২১ পয়েন্ট নিয়ে তাদের পরেই রয়েছে নাপোলি। গত পরশু নাপোলি ৩-০ গোলে উদিনেসকে হারিয়ে কমিয়েছে ব্যবধান।

ফ্রেঞ্চ লিগ ওয়ানে ২০১৭ সালে চ্যাম্পিয়ন আর গতবার  রানার্স-আপ হওয়া মোনাকোর দুঃস্বপ্নই চলছে যেন। ভাগ্য বদলাল না থিয়েরি অঁরিকে দায়িত্ব দিয়েও। ১০ জনের দলে পরিণত হয়ে স্ট্রাসবার্গের কাছে ১-২ গোলে হেরেছে তারা। এই হারে পয়েন্ট টেবিলের একেবারে তলানিতে মোনাকো। ১৯ ম্যাচে সংগ্রহ মাত্র ৬ পয়েন্ট। ১৯৯৮ বিশ্বকাপজয়ী তারকা অঁরি অবশ্য ভেঙে পড়ছেন না এখনো, ‘অভিষেকটা স্বপ্নের মতো হয় না সব সময়। আমরা লড়াই করে গেছি। গোলরক্ষকের ভুলে একটা গোল খেয়েছি। দল দশজন হওয়ার পরও হাল ছাড়িনি।’

চ্যাম্পিয়নস লিগের জন্য নেইমার, থিয়াগো সিলভাদের বিশ্রাম দেওয়া পিএসজি ৫-০ গোলে জিতেছে আমিয়াঁর সঙ্গে। একটি করে গোল মারকুইনোস, র‌্যাবিয়ট, ড্রেক্সলার, এমবাপ্পে ও দিয়াবির। দশ ম্যাচে দশ জয়ে ৩০ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে পিএসজি। দুইয়ে থাকা লিলের পয়েন্ট ২২। এমন প্রতিদ্বন্দ্বীহীন এগিয়ে চললেও অন্য ক্লাবগুলোর দুর্বলতা দেখছেন না কোচ টমাস টাসেল, ‘আমরা নিজেদের খেলার মান বাড়ানোর চেষ্টা করে যাচ্ছি। ফ্রেঞ্চ লিগে এর আগে কোনো দল টানা ১০ ম্যাচে জয় পায়নি।’

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে মো সালাহর ২৪ মিনিটের একমাত্র গোলে ১-০ ব্যবধানে হাডার্সফিল্ডকে হারিয়েছে লিভারপুল। এ নিয়ে চার ম্যাচ পর গোলে ফিরলেন মো সালাহ। কষ্টের জয়টা কোচ ইয়ুর্গেন ক্লপের কাছে ‘গড়পড়তা’। তবে গোলখরা কাটানোয় খুশি সালাহ, ‘গোল না এলেও চিন্তিত হইনি। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে দলের জয়ে অবদান রাখা। সেটাই করতে চাই।’ এই জয়ে ৯ ম্যাচে ম্যানচেস্টার সিটির সমান ২৩ পয়েন্ট লিভারপুলের। তবে গোলগড়ে শীর্ষে সিটি আর দুইয়ে লিভারপুল। এএফপি



মন্তব্য