kalerkantho


এভাবেও কেউ আউট হয়!

১৯ অক্টোবর, ২০১৮ ০০:০০



এভাবেও কেউ আউট হয়!

মাত্র ১ রানের জন্য ক্যারিয়ারে প্রথম টেস্ট শতরান পাননি বাবর আজম। আরো একবার শতরান না পাওয়ার আক্ষেপে পুড়েছেন সরফরাজ আহমেদও। নড়বড়ে নব্বইয়ে (৯৪) আউটের পর দ্বিতীয় ইনিংসে ৮১ রানে ফিরে আসেন পাকিস্তান অধিনায়ক। এর পরও চার হাফসেঞ্চুরিতে ভর করে জয়ের জন্য অস্ট্রেলিয়ার সামনে ৫৩৮ রানের কঠিন লক্ষ্য দিয়েছে পাকিস্তান। পাহাড় ডিঙানোর সেই মিশনে নেমে তৃতীয় দিন শেষে  ১ উইকেটে ৪৭ রান করেছে অস্ট্রেলিয়া। অবশ্য সব ছাপিয়ে আবুধাবি টেস্টের তৃতীয় দিনের আলোচনা আজহার আলীর সেই অদ্ভুতুড়ে রানআউট! ইংল্যান্ডের সাবেক অধিনায়ক মাইকেল ভন কৌতুক করে যেটিকে বলছেন, ‘সর্বকালের সেরা রানআউট’!

অনেক হাস্যকর আউট আছে ক্রিকেটে। উদ্ভট আউটে পাকিস্তানি ক্রিকেটারদেরও জুড়ি মেলা ভার। তবে সব যেন পেছনে পড়ে গেছে আবুধাবিতে আজহারের আউটে! ঘটনা তৃতীয় দিনের নবম এবং পাকিস্তানের দ্বিতীয় ইনিংসের ৫৩তম ওভারের। পিটার সিডলের একটি বলে স্কয়ার ড্রাইভ করেন আজহার। বল চলে যায় গালি দিয়ে থার্ডম্যান বাউন্ডারির দিকে। বলটি বাউন্ডারি হয়েছে ধরে নিয়ে উইকেটের মাঝে আসাদ শফিকের সঙ্গে কথা বলায় ডুবে যান তিনি। পরে হুঁশ হয় দুজনেরই। তবে ততক্ষণে সর্বনাশ যা হওয়ার তা হয়ে গেছে! বাউন্ডারি লাইনের কাছ থেকে মিচেল স্টার্কের ফেরত পাঠানো বলে উইকেটের বেল ফেলে দেন টিম পেইন। সম্মিলিতভাবে ১৩০টি টেস্টে ২৫ সেঞ্চুরি আর ৯ হাজারের ওপর রান করার অভিজ্ঞতাসম্পন্ন দুজন ব্যাটসম্যানই কিনা বলটি বাউন্ডারি লাইন অতিক্রম করেছে কি করেনি, তা যাচাইয়ের ন্যূনতম প্রয়োজন অনুভব করলেন না! সেই থেকে ওটা ভাইরাল হয়ে গেছে সর্বত্র।

আজহারের এমনতর রানআউটের ঘটনায় চাপা পড়ে গেছে আবুধাবিতে জিতে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে পাকিস্তানের সিরিজ জয়ের সুবাস পাওয়াটাও। বাবর আজমের ৯৯, সরফরাজের ৮১, ফখরের ৬৬ এবং আজহারের ৬৪—এই চার হাফসেঞ্চুরিতে ভর করে ৯ উইকেটে ৪০০ রানে দ্বিতীয় ইনিংস ঘোষণা করে পাকিস্তান। জয়ের জন্য অস্ট্রেলিয়ার সামনে লক্ষ্য দাঁড়ায় ৫৩৮ রান।  জবাব দিতে নেমে শন মার্শের উইকেট হারিয়ে ৪৭ রান করে তৃতীয় দিনের খেলা শেষ করেছে অস্ট্রেলিয়া। ম্যাচ বাঁচাতে হলেও অন্তত আরো দুই দিন ব্যাট করতে হবে টিম পেইনের দলকে। যা প্রায় অসম্ভই! ক্রিকইনফো



মন্তব্য