kalerkantho


মুখোমুখি প্রতিদিন

শীর্ষস্থানটা ধরে রাখতে হবে

সামার ওপেন ব্যাডমিন্টনে গৌরব সিংয়ের চমক। মাত্র ১৫ বছর বয়সে সিনিয়রদের এই র‌্যাংকিং টুর্নামেন্টের শিরোপা জিতেছে সে। কালের কণ্ঠ স্পোর্টসের মুখোমুখি হয়ে সেই অনুভূতির কথাই জানিয়েছে সিলেটের এই খেলোয়াড়

২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



শীর্ষস্থানটা ধরে রাখতে হবে

কালের কণ্ঠ স্পোর্টস : সিনিয়র পর্যায়ে প্রথম চ্যাম্পিয়ন হলে, কী করে সম্ভব হলো?

গৌরব সিং : চ্যাম্পিয়ন হওয়াটা অনেক কষ্টের ফল। টুর্নামেন্টের আগে অনেক কষ্ট করতে হয়। ভাগ্যও লাগে। ফিট হয়ে টুর্নামেন্ট শুরু করে একজন খেলোয়াড় ইনজুরড হয়ে গেলে কিন্তু কিছু করার থাকে না। মেয়েদের এককে যেমন শাপলা আপু প্রথম গেমের পর আর খেলতে পারলেন না। তাই ফিট থাকাটা গুরুত্বপূর্ণ। আর অবশ্যই সাধনা লাগবে।

প্রশ্ন : তুমি কতটা কষ্ট করেছ?

গৌরব : ব্যাডমিন্টনে আমার পুরোপুরি সময় দেওয়াটা কঠিন। কারণ আমার পড়ালেখা আছে। আমি এখন ক্লাস নাইনে পড়ি। যতটুকু পারি চেষ্টা করি দুই দিকই ঠিক রাখতে। এটা কঠিন হয়ে যায়। তার পরও খেলার ব্যাপারে আমার আগ্রহটা বেশি থাকায় চালিয়ে নিতে পারছি।

প্রশ্ন : ব্যাডমিন্টন চর্চা চলে কিভাবে?

গৌরব : সিলেটেই নিয়মিত অনুশীলন করি। আমি থাকি শিবগঞ্জে। সেখানে অনেক ভালো ভালো খেলোয়াড় আছেন, যেমন এনাম ভাই, দুলাল ভাই, সালেক ভাই, কাওসার ভাই, সোহেল ভাই—তাঁদের সঙ্গে খেলে খেলেই আমি আমার খেলাটা আরো ভালো করার চেষ্টা করি।

প্রশ্ন : সিনিয়র পর্যায়ে খেলছই তো বেশিদিন হয়নি?

গৌরব : না, এবারই আমি প্রথম ফাইনাল খেললাম। এর আগেরবার সামারে সেমিফাইনাল খেলেছি। জুনিয়রে আমি দুই বছর খেলেছি, সিনিয়রে দুই বছর হলো। সামারে সামারে এটা আমার দ্বিতীয় টুর্নামেন্ট।

প্রশ্ন : এর আগে এমন কম বয়সেই জাতীয় চ্যাম্পিয়ন হয়েছে আয়মান ইবনে জামান, ও নিশ্চয় অনুপ্রেরণা ছিল?

গৌরব : তা তো অবশ্যই। একজন ভালো খেলোয়াড়ের কাছ থেকে অনেক কিছু শেখা যায়। যদিও ওর সঙ্গে অবশ্য আমার খেলা হয়নি। অনেক দিন ধরেই তো আয়মান খেলছেন না। যখন খেলেছে তখন আবার আমি খেলা শুরু করিনি।

প্রশ্ন : এই টুর্নামেন্টে কেমন প্রতিদ্বন্দ্বীদের পেয়েছ?

গৌরব : দ্বিতীয় রাউন্ড থেকেই আমার শক্ত প্রতিপক্ষের বিপক্ষে খেলতে হয়। চট্টগ্রামের মইনুল ভাইকে হারিয়েছি শুরুতে। পঞ্চম রাউন্ডে হারিয়েছি সালমান ভাইকে, যিনি এর আগের দুইবার চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন সিনিয়রে। পরের রাউন্ডে জিতেছি জুমারের বিপক্ষে। সে-ও খুব ভালো খেলোয়াড়। এরপর সেমিফাইনালে হারালাম শুভ ভাইকে, আর ফাইনালে মঙ্গলকে। ও আমার চাচাতো ভাই।

প্রশ্ন : এখন নিশ্চয় জাতীয় চ্যাম্পিয়ন হওয়ারও চেষ্টা করবে?

গৌরব : ধাপে ধাপে আমি এগোতে চাই। র‌্যাংকিং টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ন হয়েছি। এই এক নম্বর অবস্থানটা ধরে রাখাই মূল চ্যালেঞ্জ।



মন্তব্য