kalerkantho


সংক্ষিপ্ত

অপবাদের শেষ চান নেইমার

১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



অপবাদের শেষ চান নেইমার

ক্যারিয়ারের শুরু থেকেই পিছু ধাওয়া করছে এ অপবাদ। রাশিয়া বিশ্বকাপের সময় যা রূপান্তরিত রীতিমতো কোলাহলে। ফাউল আদায়ের জন্য প্রতিপক্ষের সামান্য ধাক্কাতেই নাকি চিৎপটাং হয়ে যান নেইমার; আশ্রয় নেন অতিনাটকীয়তার। পরশু এল সালভাদরের বিপক্ষে ব্রাজিলের প্রীতি ম্যাচের সময়ও তো পেনাল্টি আদায়ের জন্য ‘ডাইভ’ দেওয়ায় তাঁকে হলুদ কার্ড দেখিয়েছেন রেফারি। এটি আবার মেনে নেননি নেইমার। এটিকে রীতিমতো ‘অশ্রদ্ধা’ হিসেবেই দাবি তাঁর।

‘অমন ট্যাকলের পর আমার দাঁড়িয়ে থাকার অবস্থা ছিল না। এর পরও রেফারি যদি পেনাল্টি না দিতে চান, সেটি মেনে নেওয়া যায়। কিন্তু সে জন্য আমাকে হলুদ কার্ড দেখানোটা অশ্রদ্ধার প্রকাশ। সেটি শুধু আমার প্রতি না, সতীর্থদের প্রতিও। কেননা হলুদ কার্ড নিয়ে খেলাটা বেশ ঝুঁকির। রেফারি এসেছেন ব্রাজিলের ম্যাচ পরিচালনা করতে। এত বড় দলের ম্যাচ চালাতে এসে করলেন এমন কাণ্ড, যা মোটেই ঠিক হয়নি’— রেফারি জাইর মারুফোকে নিয়ে এমনই ক্ষুব্ধ নেইমার। অল্পতে পড়ে গিয়ে ফাউল আদায়ের যে কুখ্যাতি, এ নিয়েও ক্রুদ্ধ তিনি। অভিনয় করার অপবাদের শেষও দেখতে চান ২৬ বছরের এই ব্রাজিলিয়ান, ‘আমি জানি না, কী করব! এর শেষ হওয়া উচিত। যদিও ব্যাপারটি আমার হাতে নয়। আমি কখনোই এসব নিয়ে কিছু বলতে চাই না। শুধু উপভোগ করতে চাই নিজের ফুটবলটা।’

এ সপ্তাহে দুটি আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেছে ব্রাজিল। বিশ্বকাপ বিপর্যয়ের দুঃস্বপ্ন ভোলার প্রতিশ্রুতি তাদের খেলায়। হোক না প্রতিপক্ষ দুর্বল, তবু যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে ২-০ এবং এল সালভাদরের বিপক্ষে ৫-০ গোলের জয়ে ভঙ্গুর আত্মবিশ্বাস ফিরেছে নিশ্চয়ই। নিজের খেলা ও দলের খেলা নিয়ে ব্রাজিল অধিনায়কের উপলব্ধি তাই এমন, ‘প্রতিবার বল পেলে আমি শুধু সামনে তাকাই। চেষ্টা করি গোলের সুযোগ তৈরির। পাস দিই সতীর্থদের। আমাদের খেলতে হবে আনন্দ নিয়ে। কোচ তিতে যেমনটা বলেন, উপভোগ করতে হবে। আমরা সবাই সে চেষ্টা করি। ব্রাজিল জাতীয় দলে খেলা আমাদের সবারই স্বপ্ন। ইএসপিএন



মন্তব্য