kalerkantho


শক্ত কিন্তু ‘চমৎকার’ গ্রুপে বার্সা

১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



শক্ত কিন্তু ‘চমৎকার’ গ্রুপে বার্সা

যেকোনো ড্রয়ের পর প্রথম কাজই ‘গ্রুপ অব ডেথ’ খোঁজা। চ্যাম্পিয়নস লিগের আসছে মৌসুমের গ্রুপ পর্বের ড্রয়ের পরও তাই। কিন্তু এখানে সমর্থক ও বিশ্লেষকরা কিছুটা বিভ্রান্তিতে। বার্সেলোনা, টটেনহাম হটস্পার, পিএসভি আইন্দহফেন, ইন্টার মিলানের সমন্বয়ে গড়া গ্রুপ ‘বি’কে সেই মৃত্যুকূপের তকমা দেওয়া হবে নাকি প্যারিস সেন্ত জার্মেই, নাপোলি, লিভারপুল ও রেড স্টার বেলগ্রেডের গ্রুপ ‘সি’কে?

গত তিন আসরের চ্যাম্পিয়ন রিয়াল মাদ্রিদের ড্র ভাগ্য বরাবর ভালো। এবারও ব্যতিক্রম হয়নি। রোমা, সিএসকেএ মস্কো ও ভিক্তোরিয়া প্লাজেনকে নিয়ে সহজ গ্রুপই পেয়েছে তারা। এর বাইরে বড় খবর বলতে, পুরনো ক্লাব ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের বিপক্ষে ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোর খেলার সম্ভাবনা। তাঁর এখনকার দল জুভেন্টাস যে ম্যানইউর সঙ্গে পড়েছে ‘এইচ’ গ্রুপে; ভ্যালেন্সিয়া ও ইয়াং বয়েজে পূর্ণ যে গ্রুপের চতুর্ভুজ। এর বাইরে বায়ার্ন মিউনিখ, ম্যানচেস্টার সিটি, আতলেতিকো মাদ্রিদের মতো দলগুলো পড়েছে তুলনামূলক সহজ গ্রুপে।

চ্যাম্পিয়নস লিগের গত তিন আসরের কোয়ার্টার ফাইনালে বিদায় হয়েছে বার্সেলোনার। যদিও গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল তারা প্রতিবার; সর্বশেষ ১১ আসর ধরে তা-ই হয়ে আসছে। তবে এবারের চ্যালেঞ্জটা অনেক বেশি। তা স্বীকারে দ্বিধা নেই কোচ এর্নেস্তো ভালভেরদের, ‘এটি শক্তিশালী গ্রুপ। এক অর্থে চমৎকারও। কারণ দলগুলোর খেলার ধরন ভিন্ন। বিরতির পর ইন্টার মিলান চ্যাম্পিয়নস লিগে ফিরেছে; ওরা ভালো করার জন্য মুখিয়ে থাকবে। পিএসভির দায়িত্বে মার্ক ফন বোমেল, যাঁকে আমাদের ভালোই চেনা আর মরিসিত পচেত্তিনোর টটেনহামের দারুণ সব ফুটবলার রয়েছে।’ গেল মৌসুমের গ্রুপ পর্বে টটেনহাম পড়েছিল রিয়াল মাদ্রিদের সঙ্গে। ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নদের হারিয়েছিল তারা। এবার বার্সেলোনাকে পেয়েও তাই ভীত নন স্ট্রাইকার হ্যারি কেন, ‘এ পর্যায়ে কী করতে পারি, তা গতবার দেখিয়েছি আমরা। বিশেষত রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে। বার্সেলোনার পরীক্ষা হবে ভিন্ন। তবে নু ক্যাম্পে বিশ্বসেরা ফুটবলারদের বিপক্ষে খেলাটাও হবে দারুণ কিছু।’

গতবার চমক দেখিয়ে ফাইনালে ওঠা লিভারপুলের অগ্নিপরীক্ষা শুরুতেই। তাতে অবশ্য ঘাবড়াচ্ছেন না কোচ ইয়ুর্গেন ক্লপ, ‘কঠিন গ্রুপে পড়ব বলেই ভাবছিলাম, তা-ই হয়েছে। তবে চ্যাম্পিয়নস লিগ তো এমনই। পিএসজি বিশ্বের অন্যতম রোমাঞ্চকর দল; ওরা এই টুর্নামেন্ট জিততে চায়। নাপোলির মাঠে গিয়ে খেলা কত কঠিন, তা সবাই জানে। রেড স্টারও ভালো দল। কঠিন হলেও এই গ্রুপ নিয়ে আমার কোনো অভিযোগ নেই। এখন মাঠে গিয়ে ভালো খেলতে হবে।’

ম্যানইউ ছাড়ার পর রিয়াল মাদ্রিদের জার্সি গায়ে পুরনো ক্লাবের মুখোমুখি হয়েছেন রোনালদো দুইবার। সে দুই ম্যাচে দুই গোল তাঁর। নতুন ক্লাব জুভেন্টাসের হয়ে সেই ধারা ধরে রাখতে পারেন কি না, তাই এখন দেখার। ইএসপিএন।

 



মন্তব্য