kalerkantho



হকিতে আজ ওমান পরীক্ষা

২০ আগস্ট, ২০১৮ ০০:০০



হকিতে আজ ওমান পরীক্ষা

হকিতে গতির সঙ্গে তাল মেলাতে দরকার দুর্দান্ত ফিটনেস। বাংলাদেশের সেখানে ঘাটতি আছে। এর পরও আত্মবিশ্বাস আর গত কিছুদিনের প্রস্তুতি সঙ্গে করে আজ নামছে অগ্নিপরীক্ষায়। জয় ছাড়া দ্বিতীয় ভাবনা নেই সেখানে।

 

জাকার্তা থেকে প্রতিনিধি : মামুনুর রহমান চয়নের সঙ্গে ক্যারিয়ার শুরু করলেও চতুর্থ এশিয়াড খেলা হয়নি রাসেল মাহমুদ জিমির। চয়ন অবশ্য রেকর্ডের চেয়ে বেশি করে ভাবছেন ওমানের সঙ্গে আজকের ম্যাচটা নিয়েই। গতকাল অনুশীলন শেষে চয়ন জানালেন, ‘এটাই হয়তো আমার শেষ এশিয়াড। তবে আমি বেশি করে ভাবছি ওমানের সঙ্গে ম্যাচটা নিয়ে। কারণ এই ম্যাচে হারলে কঠিন হয়ে যাবে পঞ্চম হওয়া। বিশ্বকাপ খেলা দলগুলো এখানে আছে। এ জন্য এখানে পদকের বদলে ৫-৬ নম্বর হওয়াই লক্ষ্য আমাদের।’

ঠিকই বলেছেন বাংলাদেশের পেনাল্টি স্পেশালিস্ট মামুনুর রহমান। বাংলাদেশের এবারের প্রথম লক্ষ্য যথাসম্ভব ভালো খেলা, এরপর পঞ্চম বা ষষ্ঠ হওয়া। সেই পথে সবচেয়ে বড় বাধা ওমান। বাংলাদেশের সঙ্গে গ্রুপ ‘বি’তে রয়েছে পাকিস্তান, মালেশিয়া, থাইল্যান্ড, কাজাখস্তান ও ওমান। র‍্যাংকিং ও শক্তিতে এগিয়ে থাকায় পাকিস্তান, মালেশিয়ার সঙ্গে জয়ের কথা ভাবছে না গোবিনাথন কৃষ্ণমূর্তির দল। হকি র‍্যাংকিংয়ে মালেশিয়া ১২ আর পাকিস্তান আছে ১৩ নম্বরে। থাইল্যান্ড ও কাজাখস্তানের বিপক্ষে অবশ্য বাংলাদেশই ফেভারিট। অগ্নিপরীক্ষা বলতে ওমান। যদিও র‍্যাংকিংয়ে বাংলাদেশ ৩১ আর ওমান আছে ৩৩ নম্বরে। চার বছর আগে ইনচিয়ন এশিয়ান গেমসে ওমানের কাছে স্থাননির্ধারণী ম্যাচে ২-৩ গোলে হেরে অষ্টম হয়েছিল বাংলাদেশ। এ বছরই এশিয়ান কাপ হকি বাছাই পর্বের ফাইনালে হেরেছিল ০-২ গোলে। তবে এবার প্রস্তুতি নিয়ে আশায় আশাবাদী কৃষ্ণমূর্তি, ‘ছেলেরা কঠোর পরিশ্রম করছে। ওমানকে হারানোটা হবে আমার জন্য ওদের দেওয়া উপহার।’

ভালো খেলতে এবার দক্ষিণ কোরিয়ায় প্রস্তুতি নিয়ে এসেছে বাংলাদেশ। একটা ম্যাচে ড্রও করেছে শক্তিশালী কোরিয়ানদের সঙ্গে। জাকার্তায় ভারতের সঙ্গে প্রস্তুতি ম্যাচের সময় এক ভারতীয় খেলোয়াড় নাকি বলেই বসেছিলেন, ‘তোমরা কোরিয়ার সঙ্গে ড্র করলে কিভাবে?’ ভারতের কাছে ১-৭ গোলের হারটা বড় ধাক্কা দেখছেন না চয়ন। কারণ সেটা ছিল নিছকই গা গরমের ম্যাচ। কোচ হিসেবে কৃষ্ণমূর্তির শেখানো কৌশল কাজে লাগিয়ে বাংলাদেশের ভালো শুরুর প্রত্যাশাই করলেন তিনি, ‘কৃষ্ণমূর্তির আগে কোনো দিন মাঠে আসতে পারিনি আমরা। অনেক কিছু বদলে দিয়েছেন তিনি। কাজ করেছেন সব কিছুর গভীরে গিয়ে। একটা সময় ভাবতাম পোস্টের কোনা দিয়ে মারলেই শুধু পেনাল্টি কর্নারে গোল হবে। তিনি বোঝালেন গোলরক্ষকের আশাপাশ দিয়ে মেরেও সুযোগটা নেওয়া যায়।’

এটা ঠিক, হকিতে গতির সঙ্গে তাল মেলাতে দরকার দুর্দান্ত ফিটনেস। বাংলাদেশের সেখানে ঘাটতি আছে। এর পরও আত্মবিশ্বাস আর গত কিছুদিনের প্রস্তুতি সঙ্গে করে আজ নামছে অগ্নিপরীক্ষায়। জয় ছাড়া দ্বিতীয় ভাবনা নেই সেখানে।



মন্তব্য