kalerkantho


সম্ভাবনাময় সবাইকেই দেখতে চাচ্ছেন কোচ

১৫ আগস্ট, ২০১৮ ০০:০০



সম্ভাবনাময় সবাইকেই দেখতে চাচ্ছেন কোচ

আমাদের জুনিয়ররা পারফরম করছে; কিন্তু ধারাবাহিকতা নেই। ওরা যদি পারফরম্যান্সে ধারাবাহিকতা আনতে পারে, তাহলে দলটা শক্তিশালী হবে। দল এখন সিনিয়রদের ওপরই অনেকটা নির্ভরশীল। আকরাম খান

 

ক্রীড়া প্রতিবেদক : সাবেক হেড কোচ চন্দিকা হাতুরাসিংহে যখন-তখন ছুটিতে চলে যেতেন অস্ট্রেলিয়ায়। সেটি নিয়ে অনেক সমালোচনা থাকলেও বরাবরই নীরবতা অবলম্বন করে আসা বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান এত দিন পর একটু মুখ খুললেন, ‘গত চুক্তিতে দেখেছি, আমাদের দরকারের সময় কেউ ছিল না। এবার সে রকম হওয়ার কোনো সুযোগ নেই। আমরা নিশ্চিত করব আমাদের যখন দরকার, তখন যেন কোচ দলের সঙ্গে থাকেন।’

তবে আপাতত হাতুরাসিংহের উত্তরসূরি নতুন হেড কোচ স্টিভ রোডসের ভূমিকায় দারুণ সন্তুষ্ট নাজমুল, ‘এবার সবচেয়ে ভালো দিক হচ্ছে নতুন হেড কোচ খেলা দেখতে আয়ারল্যান্ডেও চলে গেছেন।’ যুক্তরাষ্ট্র থেকে দলের সঙ্গেই ঢাকায় ফিরে বোর্ড সভাপতির সঙ্গে সাক্ষাতে নানা রকম চাহিদাপত্র দিয়ে ছুটিতে যাওয়া রোডসের আয়ারল্যান্ডে বাংলাদেশ ‘এ’ দলের খেলা দেখতে চলে যাওয়ার উদ্দেশ্য আরো কিছু খেলোয়াড়কে নিজের দৃষ্টিসীমার মধ্যে আনা। দায়িত্ব নেওয়ার পরপরই চলে যেতে হয়েছে ক্যারিবীয় দ্বীপপুঞ্জ ও যুক্তরাষ্ট্র সফরে। তাই সময় নিয়ে আরো কিছু খেলোয়াড়কে দেখার উপায় ছিল না। সে জন্যই ছুটির ফাঁকে আয়ারল্যান্ডে যাওয়া রোডসের। ঈদের পর ঢাকায় ফিরেও দেখতে চান বেশ কিছু ক্রিকেটারকে। সে জন্য বিসিবি সভাপতিকে বলে গিয়েছিলেন এশিয়া কাপের প্রাথমিক দলটি যেন ৩০ জনের হয়। সেই চাহিদা মেনেই ৩১ জনের প্রাথমিক দল দিয়েছেন নির্বাচকরা। ১৫ সেপ্টেম্বর থেকে সংযুক্ত আরব আমিরাতে এশিয়া কাপ শুরুর বেশ আগেই কন্ডিশনের সঙ্গে ধাতস্থ হতে বাংলাদেশ দল সেখানে চলে যেতে পারে বলেও জানিয়েছেন বিসিবির ক্রিকেট অপারেশনস কমিটির চেয়ারম্যান আকরাম। বহুজাতিক এ আসরে বাংলাদেশের ভালো করার সম্ভাবনার পক্ষে বাজি ধরার আগে সাবেক এ অধিনায়ক তরুণদের প্রতি নিজেদের মেলে ধরার আকুতিও কম জানাচ্ছেন না। বিষয়টি এই জায়গায় যে চলে এলো, সেটিও অস্বাভাবিক কোনো ব্যাপার নয়।

ওয়েস্ট ইন্ডিজে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের পুরোটা জুড়েই জুনিয়র ক্রিকেটাররা, বিশেষ করে ব্যাটসম্যানরা ব্যর্থতার পরিচয় দিয়ে গেছেন। সিনিয়রদের কাঁধে চড়েই ওয়ানডে সিরিজ জয়ের ট্রফি ছোঁয়া বাংলাদেশ এশিয়া কাপ সামনে রেখে এখন তরুণদের কাছেও পারফরম্যান্স চাইছে। আকরামের কথায় সেটি আরেকবার ফুটে উঠল, ‘আমাদের জুনিয়ররা পারফরম করছে; কিন্তু ধারাবাহিকতা নেই। ওরা যদি পারফরম্যান্সে ধারাবাহিকতা আনতে পারে, তাহলে দলটা শক্তিশালী হবে। দল এখন সিনিয়রদের ওপরই অনেকটা নির্ভরশীল।’ এখনকার তরুণদের অগ্রগতি নিয়েও হতাশা আছে তাঁর কণ্ঠে, ‘আমরা অনূর্ধ্ব-১৯ পর্যায় থেকে তামিম-সাকিবদের দেখছি। দেখছি এখনকার ওই পর্যায়ের ক্রিকেটারদেরও। কিন্তু তামিম-সাকিবরা অনূর্ধ্ব-১৯ পর্যায় থেকে যেভাবে উন্নতি করেছে এবং ব্যক্তিগতভাবে যেভাবে নিজেদের এগিয়ে নিয়ে গেছে, সেভাবে কিন্তু আমাদের জুনিয়ররা এগোচ্ছে না। কাজেই জুনিয়র ক্রিকেটারদের মনোভাবটা বদলাতেই হবে।’

এশিয়া কাপে ভালো কিছু করার লক্ষ্যেও সিনিয়রদের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে জুনিয়রদেরও দায়িত্ব নিতে বলছেন তিনি, ‘গত কয়েকটি এশিয়া কাপের পারফরম্যান্স যদি খেয়াল করেন, তাহলে দেখবেন যে বাংলাদেশ একটি দল হিসেবে খেলেছে। সেখানে সিনিয়র ক্রিকেটাররা যেমন পারফরম করেছে, তেমনি অবদান রেখেছে জুনিয়ররাও। তাই এবারও ভালো কিছু করতে দরকার দল হিসেবে খেলা। যেখানে সবার অবদান থাকবে।’ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে হওয়ায় গতবার এশিয়া কাপ হয়েছিল সংক্ষিপ্ততম ফরম্যাটের। সামনে যেহেতু ২০১৯-এর ওয়ানডে বিশ্বকাপ, তাই এবার এ আসর হচ্ছে ৫০ ওভারের। তাতে ভালো করার বিশ্বাস বাংলাদেশ ওয়েস্ট ইন্ডিজ এবং যুক্তরাষ্ট্র সফর থেকেই নিয়ে এসেছে বলে মনে করেন আকরাম, ‘ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ওয়ানডে আর টি-টোয়েন্টি সিরিজ যখন জিতেই এসেছেন, তখন সেটি অবশ্যই খেলোয়াড়দের মাথায় থাকবে। আশা করছি এশিয়া কাপে ভালোই করবে বাংলাদেশ।’ সেই ভালো করার পূর্বশর্ত তো আগেই বলে দিয়েছেন। তরুণদের কাছ থেকেও চাই পারফরম্যান্স।



মন্তব্য