kalerkantho


নতুন ‘মা’ শেলির কীর্তি

২৩ জুলাই, ২০১৮ ০০:০০



নতুন ‘মা’ শেলির কীর্তি

বয়স ৩১ বছর পেরিয়েছে। প্রথম সন্তানের জন্মও দিয়েছেন গত বছর। জ্যামাইকান কিংবদন্তি শ্যালি অ্যান ফ্রেজার প্রাইসের তাই শেষ দেখে ফেলেছিলেন অনেকে। ২০০৮ ও ২০১২ অলিম্পিকের ১০০ মিটার স্প্রিন্ট জয়ী এই তারকা হাল ছাড়েননি। কঠোর অনুশীলন করে আবারও ফিরেছেন ট্র্যাকে। শুধু ফেরার জন্য ফেরা নয়। ১১ মাস আগে সন্তান জন্ম দেওয়ার পর ‘লন্ডন অ্যানিভারসারি গেমসে’ জিতলেন সোনাও। ছয় বছর আগে যে ট্র্যাকে ১০.৭৫ সেকেন্ডে অলিম্পিক সোনা জিতেছিলেন, সেখানে এবার বাজিমাত ১০.৯৮ সেকেন্ডে। যুক্তরাষ্ট্রের ডেজারা ব্রায়ান্ট ১১.০৪ সেকেন্ডে রুপা আর জ্যামাইকার জনিয়েলা স্মিথ ১১.০৭ সেকেন্ডে জিতেছেন ব্রোঞ্জ।

বাতিলের খাতা থেকে মা হওয়ার ১১ মাস পর ১০০ মিটার জিতে উচ্ছ্বাসে ভাসছেন শ্যালি অ্যান ফ্রেজার প্রাইস। এই ছন্দটা ধরে রাখতে চান আগামী বছরও, ‘আমি কারো করুণার পাত্রী হতে চাইনি। জীবনে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ছিল মা হওয়াটা। এর অনুভূতি বলে বোঝানো যাবে না। এরপর ট্র্যাকে ফিরতে কঠোর পরিশ্রম করেছি। অনেক দিন পর ১১ সেকেন্ডের নিচে ১০০ মিটার শেষ করতে পারাটা বেশি অনুপ্রেরণা জোগাচ্ছে আমাকে। আগামী বছর আরো ভালো করতে চাই।’

মেয়েদের ১০০ মিটারে শেলি ছাড়া ১১ সেকেন্ডের কমে স্প্রিন্ট শেষ করতে পারেননি কেউ। তবে ছেলেদের ১০০ মিটার উপভোগ্য ছিল ভীষণ। ফাইনালে ছয়জন স্প্রিন্ট শেষ করেছেন ১০ সেকেন্ডের কমে। গত বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপেও এত বেশিজন ১০ সেকেন্ডের কমে ১০০ মিটার শেষ করতে পারেননি। শেষ পর্যন্ত সোনা জিতেছেন যুক্তরাষ্ট্রের রনি বেকার, তাঁর টাইমিং ৯.৯০ সেকেন্ড। ইংল্যান্ডের জাহারনাল হিউজস ৯.৯৩ সেকেন্ডে রুপা আর গত কমনওয়েলথ গেমসজয়ী দক্ষিণ আফ্রিকান আকানি সিমবিনে ৯.৯৪ সেকেন্ডে জিতেছেন ব্রোঞ্জ। হাড্ডাহাড্ডি লড়াই শেষে সোনা জেতা বেকার দারুণ খুশি নিজের পারফরম্যান্সে, ‘হিটেও ১০ সেকেন্ডের কম টাইমিং ছিল। লন্ডনের ট্র্যাক অনেক দ্রুতগতির। জানতাম শুধু ১০ সেকেন্ডের কমে দৌড়ালে হবে না, আরো ভালো করতে হবে। নিজের টাইমিংয়ে খুশি আমি।’ বিবিসি



মন্তব্য