kalerkantho


এবার রিচার্ডসকে ছাড়িয়ে ফখর

২৩ জুলাই, ২০১৮ ০০:০০



এবার রিচার্ডসকে ছাড়িয়ে ফখর

রেকর্ড ভাঙা-গড়ার খেলায় মেতেছেন ফখর জামান। নৌসেনা থেকে ক্রিকেটার হওয়া ফখর আগের ম্যাচেই করেছিলেন ডাবল সেঞ্চুরি। প্রথম পাকিস্তানি হিসাবে ওয়ানডেতে ডাবল সেঞ্চুরির কীর্তিটা তাঁর। সেখানেই থেমে না থেকে ওপেনার ইমাম উল হককে নিয়ে গড়েন ৩০৪ রানের জুটি। পাকিস্তান তো বটেই ওয়ানডে ইতিহাসে এত বড় উদ্বোধনী জুটি ছিল না আর। গতকাল বুলাওয়েতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজের পঞ্চম ওয়ানডেতে আরো কয়েকটি রেকর্ড ওলটপালট করলেন ফখর জামান।

ওয়ানডে ইতিহাসে দ্রুততম ১০০০ রানের কীর্তিটা এখন পাকিস্তানি এই ওপেনারের। এ জন্য দরকার ছিল ২০ রান। গতকাল সেঞ্চুরির সুবাস পেয়ে ফখর থামেন ৮৫ রানে। তাতে ১৮তম ইনিংসে পা রাখেন ১০০০ রানের মাইলফলকে। ১৯৮০ সালে ভিভ রিচার্ডস ২১তম ইনিংসে করেছিলেন ১০০০ রান। কাকতালীয়ভাবে ২১তম ইনিংসে এসে এক হাজার রানের মাইলফলক ছুঁয়েছেন আরো চারজন। ইংল্যান্ডের কেভিন পিটারসেন ও জোনাথন ট্রট, দক্ষিণ আফ্রিকার কুইন্টন ডি কক আর পাকিস্তানেরই বাবর আজম। এই পাঁচজনকে ফখর পেছনে ফেললেন ৩ ইনিংস কম খেলে।

ফখরের রেকর্ড গড়া ম্যাচে পাকিস্তান পেয়েছে ১৩১ রানের সহজ জয়। শুরুতে ব্যাট করে পাকিস্তান করেছিল ৪ উইকেটে ৩৬৪ রান। জবাবে জিম্বাবুয়ে ৪ উইকেটে করতে পারে ২৩৩। তাই ৫-০ ব্যবধানে জিম্বাবুয়েকে হোয়াইটওয়াশ করল সরফরাজ আহমেদের দল। আগের ম্যাচে উদ্বোধনী উইকেটে রেকর্ড ৩০৪ করা ফখর জামান ও ইমাম উল হক গতকালও গড়েন ১৬৪ রানের জুটি। ফখর ৮৫ করে আউট হলেও ইমাম ফেরেন ১১০ করে। সেঞ্চুরি পেয়েছেন বাবর আজমও। তিনি অপরাজিত ১০৬ রানে। জিম্বাবুয়ের হয়ে রায়ান মারি ৪৭ ও পিটার মুর করেছিলেন ৪৪।

একটা সিরিজ স্মরণীয় করে রাখার জন্য যত কীর্তি দরকার সবই করেছেন ফখর জামান। রেকর্ড গড়েছেন পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে সবচেয়ে বেশি রান করারও! চার ম্যাচ শেষে ফখরের রান ছিল ৪৩০। গতকাল ৮৫-তে থামায় এই সিরিজে ফখরের রান ৫১৫। হ্যামিল্টন মাসাকাদজা ৪৬৭ রান নিয়ে শীর্ষে ছিলেন এত দিন। ২০০৯ সালে কেনিয়ার বিপক্ষে সিরিজে ৪৬৭ করেছিলেন জিম্বাবুয়ের এই ওপেনার। বুঝতেই পারছেন রেকর্ড ঝরছে ফখরের ব্যাটে। কীর্তি আছে আরো একটি। এবারের সিরিজে আউট হয়েছেন প্রথম ও শেষ ম্যাচে। মাঝের তিন ইনিংসে অপরাজিত ছিলেন ১১৭, ৪৩ ও ২১০। আউট হওয়ার আগে তাঁর মোট রান ৪৫৫। এটাও রেকর্ড। আগের কীর্তিটা পাকিস্তানেরই মোহাম্মদ ইউসুফের। ২০০২ সালে এক ম্যাচে আউট হওয়ার পর পরেরবার আউট হওয়ার আগে তিনি করেছিলেন ৪০৫।

ফখরের মতো সিরিজটা দুর্দান্ত কাটল অপর ওপেনার ইমাম উল হকেরও। ইনজামাম উল হকের ভাতিজা গতকাল আউট হয়েছেন ১১০ রানে। এই সিরিজে এটা ইমামের তৃতীয় সেঞ্চুরি! তাঁর পাঁচটি ইনিংস ১২৮, ৪৪, ০, ১১৩ ও ১১০। সব মিলিয়ে ক্যারিয়ারের নবম ম্যাচে করেছেন চতুর্থ সেঞ্চুরি। এই ছন্দটা ধরে রাখতে পারলে কোথায় থামবেন ইমাম উল হক? ক্রিকইনফো



মন্তব্য