kalerkantho



মুখোমুখি প্রতিদিন

প্রস্তুতি ম্যাচের অভাবটা থেকে যাবে

২০ জুলাই, ২০১৮ ০০:০০



প্রস্তুতি ম্যাচের অভাবটা থেকে যাবে

এশিয়ান গেমস শুরু হতে খুব বেশিদিন বাকি নেই। বিভিন্ন ডিসিপ্লিনে দলগুলো তাদের চূড়ান্ত প্রস্তুতি শুরু করেছে এরই মধ্যে। আসরে বাংলাদেশের সবচেয়ে সফল দল কাবাডি ক্যাম্প করছে গত ডিসেম্বর থেকেই। দলের বর্তমান প্রস্তুতি নিয়ে কালের কণ্ঠ স্পোর্টসের মুখোমুখি হয়ে কথা বলেছেন শীর্ষ খেলোয়াড় জিয়াউর রহমান

 

কালের কণ্ঠ স্পোর্টস : বাংলাদেশের সবচেয়ে সফল কাবাডি খেলোয়াড়ের নামে আপনার নাম, এটা কতটা উদ্বুদ্ধ করে?

জিয়াউর রহমান : নাম তো সব নয়, পারফরম্যান্সটাই আসল। জিয়া ভাই দীর্ঘদিন খেলেছেন দেশের হয়ে, অনেক সাফল্য তাঁর। আমি এখনো দেশের হয়ে কিছু জিততে পারিনি। নিজেকে তাই তাঁর সঙ্গে তুলনা করতে চাই না। তবে এটা ঠিক, জিয়া ভাই যেমন দলের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড় ছিলেন, আমিও তা-ই হয়ে উঠতে চাই। জিততে চাই অনেক কিছু। গত বিশ্বকাপের দলে ছিলাম, আর এশিয়ান গেমসে এবারই প্রথম খেলব। দেশের হয়ে পদক জেতাই আমার স্বপ্ন।

প্রশ্ন : কাবাডির বর্তমান দলেও অবশ্য আপনি এরই মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছেন, ভারতীয় প্রো-কাবাডিতে বাংলাদেশের খেলোয়াড়দের মধ্যে সবচেয়ে বেশি ম্যাচ খেলেছেন তো আপনিই।

জিয়া : হ্যাঁ, এই প্রো-কাবাডি আমার জন্য বিশাল অভিজ্ঞতার সুযোগ হয়েছে। এই আসরে খেলেই আরো আত্মবিশ্বাসী হয়ে উঠেছি আমি। আশা করি জাতীয় দলেও এর ছাপ রাখতে পারব। জিয়া ভাই রেইডার হিসেবে দীর্ঘদিন দলের এক নম্বর খেলোয়াড় ছিলেন। আমি খেলি ডিফেন্ডার হিসেবে। কিন্তু আসলে যেকোনো পজিশন থেকেই দলকে নেতৃত্ব দেওয়া যায়।

প্রশ্ন : এশিয়ান গেমসের জন্য দল হিসেবে আপনারা কতটা প্রস্তুত?

জিয়া : অন্যান্য সময়ের চেয়ে অনেক ভালো ক্যাম্প হচ্ছে এবার। দলের সঙ্গে ফিজিও যোগ হয়েছেন, ট্রেনার আছেন। এমনটা এর আগে দেখা যায়নি। আর এবার আমরা ক্যাম্পও তো করছি অনেক দিন ধরে। সেই ডিসেম্বর থেকে টানা অনুশীলনের মধ্যে আছি আমরা। অক্টোবরে প্রো-কাবাডি শেষ করেই আমি জাতীয় দলের ক্যাম্পে যোগ দিয়েছি।

প্রশ্ন : দলের বর্তমান অবস্থা কী?

জিয়া : এটা জানাটা অবশ্য একটু কঠিনই। কারণ টানা অনুশীলনের মধ্যে থাকলেও আমরা উল্লেখযোগ্য কোনো প্রস্তুতি ম্যাচ খেলতে পারিনি। থাইল্যান্ড, জাপানের মতো দলগুলোর সঙ্গে যদি এর মধ্যে কয়েকটা ম্যাচ খেলতে পারতাম আমরা, তাহলে নিজেদের অবস্থাটা বুঝে আরো ভালো করে প্রস্তুতি নেওয়া সম্ভব হতো। সেটা হচ্ছে না। এখানে সার্ভিসেস দলগুলোর বিপক্ষেই মূলত নিজেদের ঝালিয়ে নিচ্ছি।

প্রশ্ন : তাতে কি পদক জেতা সম্ভব?

জিয়া : সেই লক্ষ্য নিয়েই যাব আমরা। ভারতের সঙ্গে ইরানও বেশ এগিয়ে গেছে। এখন পাকিস্তান বা কোরিয়ার সঙ্গে আমাদের পদকের লড়াইটা হতে পারে।



মন্তব্য