kalerkantho


ঝড় তুলে শেষ আটে জুভেন্টাস

৯ মার্চ, ২০১৮ ০০:০০



ঝড় তুলে শেষ আটে জুভেন্টাস

সময়ের ব্যবধান মাত্র তিন মিনিটের! আরো নির্দিষ্ট করে বললে দুই মিনিট ৪৯ সেকেন্ড। গোলপোস্টে নিজেদের প্রথম দুটি শট। এবং দুটিতেই গোল! ওয়েম্বলিতে ওই তিন মিনিটের ঝড়েই লেখা হয়ে যায় টটেনহাম-জুভেন্টাস ম্যাচের ভাগ্যও। যেখানে এগিয়ে গিয়েও ভুলের চড়া মাসুল গুনে কোয়ার্টার ফাইনালে ওঠার স্বপ্ন ভেঙে চুরমার স্পার্সদের। আর ফিরে আসার অসাধারণ কাব্য রচনা করে ২-১ গোলের জয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ আটে ‘তুরিনের ওল্ড লেডিরা’।

এফসি বাসেলের কাছে অপ্রত্যাশিতভাবে হেরে গেছে ইংল্যান্ডের আরেক ক্লাব ম্যানচেস্টার সিটিও। সিটিজেনদেরও হার ২-১ গোলে। নিজ মাঠে টানা ৩৬ ম্যাচ অজেয় থাকার গৌরবের রেকর্ডও তাতে থেমে গেছে পেপ গার্দিওলার শিষ্যদের। সের্হিয়ো আগুয়েরো, কেভিন ডি ব্রুইন, দাভিদ সিলভার মতো তারকাদের সাইডবেঞ্চে বসিয়ে রেখে অপ্রত্যাশিত এ হারের পরও অবশ্য ৫-২ গোলে এগিয়ে থেকে শেষ আটের টিকিট পেয়েছে সিটিজেনরা।

ওয়েম্বলিতে জুভেন্টাসের জয়ের নায়ক দুই আর্জেন্টাইন—গনসালো হিগুয়েইন ও পাউলো দিবালা। তুরিনে প্রথম লেগে দুই গোল করেও পেনাল্টি মিস করায় নায়ক হতে পারেননি হিগুয়েইন। এবার একটি গোল নিজে করে দিবালাকে দিয়ে আরেকটি করিয়ে জুভেন্টাসের জয়ের নায়ক আর্জেন্টাইন এই ফরোয়ার্ড। অবশ্য গল্পটা অন্য রকমও হতে পারত! ৩৭ মিনিটে সন হিওন মিনের গোলে লিড নিয়েছিল টটেনহামই। কিয়েরার ট্রিপিয়েরের ক্রসে খুব কাছ থেকে বল জালে জড়িয়েছেন দক্ষিণ কোরিয়ান এই তারকা। যদিও ১৭ মিনিটে একটি  পেনাল্টি থেকে বঞ্চিত হয়েছে জুভেন্টাস। ব্রাজিলিয়ান উইঙ্গার ডগলাস কস্তাকে ইয়ান ভারটঙ্গেন বক্সের মধ্যে ফেলে দিলেও রেফারির চোখ এড়িয়ে যাওয়ায় বেঁচে যায় স্পার্সরা। তাতে কী, তিন মিনিটেই তো ম্যাচের বাঁক বদলে দিয়েছেন হিগুয়েইন-দিবালা।

৬৪ মিনিটে বদলি স্টিফেন লিচস্টেইনার ডান দিক থিকে ক্রস করেছিলেন সামি খেদিরাকে। জার্মান মিডফিল্ডারের হেডের বলে ভলিতে চমৎকার গোলে ম্যাচে ১-১ এ সমতা ফেরান হিগুয়েইন। ওয়েম্বলির ম্যাচে ওটাই ছিল লক্ষ্যে ইতালিয়ান জায়ান্টদের প্রথম শট। অ্যাওয়ে গোলে এগিয়ে থাকায় ওই স্কোরলাইন থাকলেও অবশ্য শেষ আটে উঠে যেত টটেনহাম। কিন্তু প্রতিপক্ষ যে গত তিন আসরে দুইবার ফাইনাল খেলা জুভেন্টাস। একটি গোল হজম করে তাই যেন আরো ভিতসন্ত্রস্ত হয়ে পড়ে পচেত্তিনোর শিষ্যরা। ফলে আবারও ভুল! এবং দুই মিনিট ৪৯ সেকেন্ড পরে আবার গোল জুভেন্টাসের। হিগুয়েইনের বাড়ানো বলে গতিতে টটেনহাম ডিফেন্ডারদের পেছনে ফেলে চমৎকার ফিনিশিংয়ে গোলরক্ষক লরিসকে হারিয়ে বল জালে জড়িয়ে দেন দিবালা। প্রথম লেগের খেলা ড্র হয়েছিল ২-২ গোলে। তাতে দুই লেগ মিলিয়ে ৪-৩ গোলে এগিয়ে থেকে শেষ আটে জুভেন্টাস। এপি


মন্তব্য