kalerkantho


ইতালির সঙ্গে নেই তারাও

১৭ নভেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



আটটি দল ভাগাভাগি করে জিতেছে বিশ্বকাপের ২০ শিরোপা। সেই আট দলের সাতটিই খেলছে রাশিয়ায়।

নেই শুধু ইতালি। ১৯৫৮ সালের পর এবারই প্রথম বিশ্বকাপের আঙিনায় পা রাখা হচ্ছে না চারবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের। ইতালিয়ান ফুটবলজুড়ে তাই হাহাকার। চাকরি হারিয়েছেন কোচ। অবসরে জিয়ানলুইজি বুফনের মতো কিংবদন্তি। তাঁকে অনুসরণ করে আন্তর্জাতিক ফুটবল থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন দানিয়েল দ্য রসসি, আন্দ্রেয়া বারজাগলি ও জর্জিয়ো কিয়েলিনি। একটা যুগেরই অবসান হয়েছে তাতে।

ইতালির পর রাশিয়ার টিকিট না পাওয়া ইউরোপিয়ান দলগুলোর মধ্যে অন্যতম নেদারল্যান্ডস, চেক প্রজাতন্ত্র, ওয়েলস, স্কটল্যান্ড, অস্ট্রিয়া, তুরস্ক, রিপাবলিক অব আয়ারল্যান্ড ও গ্রিস। গত বিশ্বকাপেও সেমিফাইনাল খেলেছে নেদারল্যান্ডস।

কমলা ঝড় তুলে স্বাগতিক ব্রাজিলকে হারিয়ে তৃতীয় হয়েছিল তারা। ১৯৭৪, ১৯৭৮ ও ২০১০ বিশ্বকাপের ফাইনালিস্টও নেদারল্যান্ডস। আরিয়েন রবেন, ওয়েসলি স্নাইডারের মতো তারকারা তাই থাকছেন না রাশিয়ায়। অথচ গ্রুপ পর্বে সুইডেনের সমান পয়েন্ট ছিল ডাচদের। গোল গড়ে পিছিয়ে পড়ার কারণে খেলা হয়নি প্লে-অফে। গ্রুপ এইচে বেলজিয়ামের সঙ্গে ছিল গ্রিস ও বসনিয়া অ্যান্ড হার্জেগোভিনা। ২০০৪ ইউরো চ্যাম্পিয়ন গ্রিস গ্রুপ রানার্স-আপ হয়ে পায় প্লে-অফের টিকিট। ক্রোয়েশিয়ার কাছে প্লে-অফে পাত্তা পায়নি তারা। প্রথম লেগে ৪-১ গোলে হারটাই করে সর্বনাশ। দ্বিতীয় লেগে গোলশূন্য ড্রতেও কাজ হয়নি আর। রিপাবলিক অব আয়ারল্যান্ড প্লে-অফের প্রথম লেগে ডেনমার্কের মাটিতে গোলশূন্য ড্র করে ছিল সুবিধাজনক অবস্থানে। ফিরতি লেগে ক্রিস্তিয়ান ইয়েরিকসনের হ্যাটট্রিকে ৫-১ ব্যবধানে বিধ্বস্ত হয়ে ছিটকে যায় রাশিয়ার কক্ষপথ থেকে। রিয়াল মাদ্রিদ তারকা গ্যারেথ বেলের ওয়েলস আবার টিকিটই পায়নি প্লে-অফের। নিজেদের গ্রুপে তৃতীয় হয়েছিল তারা।

লাতিন অঞ্চল থেকে রাশিয়ার টিকিট পায়নি চিলি, প্যারাগুয়ে ও ইকুয়েডর। শেষ ম্যাচ পর্যন্ত অবশ্য আশা বেঁচে ছিল চিলি ও প্যারাগুয়ের। ব্রাজিলের কাছে অ্যালেক্সিস সানচেস, আর্তুরো ভিদালরা বিধ্বস্ত হয় ৩-০ গোলে। টানা দুইবারের কোপা চ্যাম্পিয়নরা ২৬ পয়েন্ট নিয়ে পিছিয়ে পড়ে পয়েন্ট টেবিলের ছয় নম্বরে। নিজেদের মাঠে দুর্বল ভেনিজুয়েলার বিপক্ষে জিতলেই বিশ্বকাপের টিকিট পেত প্যারাগুয়ে। বাঁচা-মরার সেই ম্যাচে ১-০ গোলে হেরে ছিটকে যায় তারাও।

কনকাকাফ অঞ্চলে যুক্তরাষ্ট্রের ছিটকে পড়াটা বিস্ময়ের। শেষ দিন পর্যন্ত সরাসরি বিশ্বকাপ খেলার সম্ভাবনা ছিল তাদের। কিন্তু শেষ ম্যাচে হেরে জায়গা হয়নি প্লে-অফেও। ১৯৮৬ সালের পর এবারই প্রথম যুক্তরাষ্ট্রকে ছাড়া হচ্ছে বিশ্বকাপ। আফ্রিকা থেকে আইভরি কোস্ট, ক্যামেরুন, ঘানার ছিটকে যাওয়াটাও বড় অঘটন। এএফপি


মন্তব্য