kalerkantho


মেসি-রোনালদোরা মর্মাহত

বার্সেলোনায় সন্ত্রাসী হামলা

১৯ আগস্ট, ২০১৭ ০০:০০



ফুটবল, শিল্প, সৌন্দর্যের শহরে সন্ত্রাসের থাবা। বার্সেলোনায় আইএসের এমন বর্বর হামলা নাড়া দিয়েছে পুরো ক্রীড়াবিশ্বকে। গত পরশু লাস রাম্বলায় পথচারীদের ওপর গাড়ি চালিয়ে দেয় সন্ত্রাসীরা, তাতে ১৩ জন নিহত আর আহত হন শতাধিক। ন্যক্কারজনক এই ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন লিওনেল মেসি, ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো, নেইমারসহ সময়ের সেরা সব খেলোয়াড়। বার্সেলোনা, রিয়াল মাদ্রিদ, এস্পানিওল গতকাল অনুশীলনে পালন করে এক মিনিট নীরবতা। স্প্যানিশ লিগে আজ বার্সা মাঠে নামবে কালো আর্মব্যান্ড পরে।

হতাহতদের প্রতি শোক ও সমবেদনা জানিয়ে বার্সার প্রতীক হয়ে ওঠা লিওনেল মেসি ইনস্টাগ্রামে বার্সেলোনা শহরের ছবি পোস্ট করে ওপরে রেখেছেন শোকের কালো প্রতীক। সেই সঙ্গে দিয়েছেন শান্তির বার্তা, ‘আমাদের ভালোবাসার শহর বার্সেলোনায় এই সন্ত্রাসী হামলায় নিহতদের পরিবার আর বন্ধুদের সমবেদনা জানাচ্ছি। আমি আশা ছাড়ছি না। আমরা সংখ্যায় অনেক, যারা বিশ্বে শান্তিতে থাকতে চাই, ঘৃণা ছাড়া। সেই পৃথিবীতে সম্মান আর সহিষ্ণুতা থাকবে পাশাপাশি।’ ২২২ মিলিয়ন ইউরোয় বার্সা ছেড়ে গেলেও বর্বর এই ঘটনায় স্তম্ভিত নেইমার, ‘খুবই কষ্ট পেয়েছি। বার্সেলোনার এ ঘটনায় আমি শোকার্ত। হতাহতদের পরিবারের প্রতি সমবেদন রইল।’ গোলরক্ষক টের স্টেনগান শহরের একটি ছবি টুইটারে পোস্ট করে বার্সেলোনার ‘বি’ শব্দটা লিখেছেন লাল রঙে। জেরার্দ পিকে, হাভিয়ের মাসচেরানো, আন্দ্রেস ইনিয়েস্তাদের পাশাপাশি বার্সার সাবেক তারকা রোনালদিনহোও মর্মাহত, ‘বার্সেলোনা থেকে এমন খবর পেয়ে কষ্ট পেয়েছি। সবার প্রতি সমবেদনা।’

বার্সেলোনা, এস্পানিওল আর রিয়াল মাদ্রিদ অফিশিয়াল টুইটারে সমবেদনা জানিয়েছে হতাহতদের প্রতি। চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী রিয়াল মাদ্রিদের খেলোয়াড় ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো, সের্হিয়ো রামোস, দানি কারভাহালরাও ব্যথিত এমন আক্রমণে। হতাহতদের পাশে থাকার অঙ্গীকার জানালেন রোনালদো, ‘আমি হতবিহ্বল হয়ে পড়েছি। হতাহত ও তাঁদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা রইল, তাঁদের পাশেই আছি আমি।’ ১৫ গ্র্যান্ড স্লামজয়ী কিংবদন্তি রাফায়েল নাদাল ও গত মাসে উইম্বলডন জেতা গারবিনে মুগুরুজা দুজনই নিজেদের দেশে এমন আক্রমণে হতচকিত। নাদালের টুইট, ‘হূদয় ভেঙে গেছে আমার। বার্সেলোনা শহরের মানুষ আর আক্রান্তদের সমবেদনা জানাচ্ছি।’ মুগুরুজার তো ঘটনাটা বিশ্বাসই হচ্ছে না, ‘এখনো বিশ্বাস হচ্ছে না আমারই দেশে এমন কিছু ঘটে গেছে। প্যারিস, লন্ডনে এ ধরনের ঘটনাগুলো ঘটার পর ঘৃণা জানাতাম। বার্সেলোনা আক্রান্ত হতে পারে ধারণাতেও ছিল না।’ এএফপি



মন্তব্য