kalerkantho


স্টোকস আর রাবাদাকেই চাইছে সবাই!

২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



স্টোকস আর রাবাদাকেই চাইছে সবাই!

ভারতে লম্বা সফর করে যাওয়ার কারণে কন্ডিশনের সঙ্গে দ্রুত মানিয়ে নেওয়া, নাকি গত কয়েক বছরে ওয়ানডেতে সবচেয়ে বেশি তিন শর ওপরে রান করা? কারণটা যা-ই হোক, এবার ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের নিলাম শুরুর ২৪ ঘণ্টা আগেও চাহিদা বেশি ইংল্যান্ডের ক্রিকেটারদের। এউইন মরগান, বেন স্টোকস ও জনি বেয়ারস্টো—তিনজনেরই বেস প্রাইস অনেক।

সঙ্গে দক্ষিণ আফ্রিকার কাগিসো রাবাদা, নিউজিল্যান্ডের কলিন ডি গ্র্যান্ডহোমের দিকেও নজর অনেক ফ্র্যাঞ্চাইজির। বাংলাদেশের তামিম ইকবাল, মেহেদি হাসান মিরাজ, সাব্বির রহমানদের নামও আছে নিলাম তালিকায়, তবে খুব একটা আলোচনায় নেই কেউই।

দিল্লি ডেয়ারডেভিলসের হাতে আছে ২৩ কোটি রুপি, দলে পাঁচজন বিদেশি খেলোয়াড়সহ আছে ১৭ জন। কমপক্ষে ২৭ জনের স্কোয়াড হতে হবে আর বিদেশি রাখা যাবে সর্বোচ্চ ৯ জন। সেই হিসাবে চারজন বিদেশি ক্রিকেটার নেওয়ার জায়গা আছে দিল্লির। তারা খুঁজছে বিদেশি অলরাউন্ডার, রাডারে আছে আফগান তারকা মোহাম্মদ নবী, কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম ও এভিন লুইস। কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের নজর বিদেশি অলরাউন্ডার ও ফাস্ট বোলারের দিকে। সর্বোচ্চ চারজন বিদেশি খেলোয়াড়সহ মোট আটজন খেলোয়াড় নিতে পারবে কিংস ইলেভেন, তাদের নজরে আছে কাগিসো রাবাদা ও প্যাট কামিন্সের মতো পেসার ও অস্ট্রেলিয়ান অলরাউন্ডার ড্যান ক্রিস্টিয়ান। তাদেরও বাজেট সাড়ে ২৩ কোটি রুপি।

বিরাট কোহলি, ক্রিস গেইল, এবি ডি ভিলিয়ার্সদের নিয়ে গড়া রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুও খুঁজছে অলরাউন্ডার। শেন ওয়াটসনের ধার কমছে যে! তাদের চোখ বেন স্টোকস, অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুজ ও কোরে অ্যান্ডারসনের দিকে। মাত্র একজন বিদেশি খেলোয়াড়ের জায়গা ফাঁকা থাকায় খুব বেশি ভাবনাচিন্তার মাঝে নেই কোহলির দল, দেশীয়দের মধ্যে ইরফান পাঠান কিংবা ইশান্ত শর্মার মতো একজন পেসার খুঁজছে আরসিবি। হায়দরাবাদ সানরাইজার্সে মুস্তাফিজুর রহমানের সম্ভাব্য সঙ্গী হতে পারেন কাগিসো রাবাদা বা প্যাট কামিন্স, এঁদের কাউকেই নিলাম থেকে তোলার ঝোঁক ফ্র্যাঞ্চাইজি কর্তৃপক্ষের। গতবারের চ্যাম্পিয়নরা খেলোয়াড় কিনতে পারবে ১০ জন, বিদেশি চারজন আর বাজেট প্রায় ২১ কোটি রুপি। কলকাতা নাইট রাইডার্সে বিদেশি অলরাউন্ডার শুধুই সাকিব আল হাসান, শাহরুখ খানের দলের ‘থিংক ট্যাংক’ তাই খুঁজছে ভিনদেশি পেস বোলিং অলরাউন্ডার। তাদেরও চোখ বেন স্টোকসও ও কোরে অ্যান্ডারসনের দিকে। এ ছাড়া টপ অর্ডারে বিদেশি বিস্ফোরক ওপেনার হিসেবে অ্যালেক্স হেলসকেও ভাবছে তারা। সুনীল নারিনের সঙ্গে ইমরান তাহিরকে যদি জুড়তে পারে, তাহলে ঘরের মাঠের ম্যাচগুলোয় নাইটদের সামনে কেউ দাঁড়াতেই পারার কথা নয়! তাই এই লেগ স্পিনারও আছেন কেকেআরের রাডারে। বাজেট প্রায় ২০ কোটি আর বিদেশি ছয়জনসহ নিতে পারবে ১৪ ক্রিকেটার। আম্বানিদের মুম্বাই চাইছে বিদেশি ওপেনার, কারণ জস বাটলার খুব বেশিদিন খেলতে পারবেন না। তাদের চোখ জেসন রয় ও কলিন মুনরোর দিকে। পোলার্ডের ব্যাকআপ হিসেবে বিদেশি অলরাউন্ডার খুঁজতে তাদের চোখ ডি গ্র্যান্ডহোম ও অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুজের দিকে। মাত্র সাতজন খেলোয়াড় নিতে পারবে মুম্বাই, বিদেশি তিনজন। তাই লক্ষ্য স্থির করেই নিলামে আসবেন নীতা আম্বানি, বাজেট সাড়ে ১১ কোটি।

আইপিএলের অপেক্ষাকৃত নতুন দুই দল, পুনে ও গুজরাটের চোখ থাকবে স্টোকস, রাবাদা ও অ্যান্ডারসনের ওপর। বিশেষ করে পুনে খুঁজছে পেসার, যেখানে টাইমাল মিলস, রাবাদা ও ট্রেন্ট বোল্ট পছন্দের শীর্ষে। গুজরাটেরও চাই ফাস্ট বোলার ও স্পিনার; তারাও রাবাদা, কামিন্স ও তাহিরকে চাইবে।

কামিন্সের ভিত্তিমূল্য ২ কোটি রুপি। মরগান, বেন স্টোকস, ক্রিস ওকসেরও তাই। ট্রেন্ট বোল্টের ভিত্তিমূল্য দেড় কোটি আর রাবাদার এক কোটি। যেহেতু বেশ কটি ফ্র্যাঞ্চাইজিই চাইছে তাঁদের, তাই দামটা হয়তো চড়বে তাঁদেরই। ক্রিকইনফো, আইপিএল ওয়েবসাইট


মন্তব্য