kalerkantho

'অশ্বিন ক্রিকেটীয় চেতনায় আঘাত দিয়েছেন' ক্ষুব্ধ ক্রিকেটবিশ্ব‍!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৬ মার্চ, ২০১৯ ১৭:২৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



'অশ্বিন ক্রিকেটীয় চেতনায় আঘাত দিয়েছেন' ক্ষুব্ধ ক্রিকেটবিশ্ব‍!

এভাবেই বাটলারকে মানকড় আউটের শিকারে পরিণত করেন অশ্বিন। ছবি : ক্রিকেট কাউন্টি

আইপিএলের দ্বাদশ আসরের শুরুতেই বড় বিতর্কের জন্ম দিলেন ভারতের জাতীয় দলের তারকা অল-রাউন্ডার রবিচন্দ্রন অশ্বিন। গতকাল সোমবার রাজস্থান বনাম পাঞ্জাব ম্যাচের জয়-পরাজয় ছাপিয়ে আলোচনার কেন্দ্রে অশ্বিনের 'মানকাড়' আউট। রাজস্থানের জস বাটলরকে যেভাবে আউট করেছেন পাঞ্জাব অধিনায়ক, তা নিয়ে নিন্দার ঝড় উঠেছে ক্রিকেটবিশ্বে। তবে অনেককেই আবার পাশে পাচ্ছেন অশ্বিন। তারা বলছেন, অশ্বিন ক্রিকেটের নিয়মের বাইরে তো কিছু করেননি!

ঘটনা রাজস্থানের ইনিংসের ১৩তম ওভারের। শেষ বলটি যখন করতে আসছেন অশ্বিন, তখন ৯ উইকেট হাতে নিয়ে জয় থেকে ৭৭ রান দূরে রাজস্থান। উইকেটে সেট হয়ে যাওয়া ব্যাটসম্যান জস বাটলার অপরাজিত ৬৯ রানে। বল করতে দৌঁড় শুরু করার পর অশ্বিন হঠাৎ খেয়াল করেন যে, উইকেট ছেড়ে বেরিয়ে আছেন ননস্ট্রাইকে থাকা বাটলার। বল না করে স্টাম্প ভেঙে দিলেন। হতভম্ব হয়ে গেলেন বাটলার! ফিল্ড আম্পায়ার কোনো সিদ্ধান্ত না দিয়ে থার্ড আম্পায়ারের সহায়তা চাইলেন। থার্ড আম্পায়ার তাকে আউট ঘোষণা করেন।

এটাই হলো ক্রিকেটের সবচেয়ে বিতর্কিত আইন 'মানকড় আউট"। এ আউট যে মানতে পারেননি খ্যাপাটে ইংলিশ উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান বাটলার। অশ্বিনের সঙ্গে লেগে যায় বিবাদ। ড্রেসিংরুমে ফেরার পথে দুজনকেই দেখা যায় যুদ্ধংদেহী অবস্থায় অশ্রাব্য গালিগালাজ করতে। বাটলারকে হারিয়ে ছন্দ হারিয়ে ফেলা রাজস্থান রয়্যালস ম্যাচ হেরে বসে ১৪ রানে। অবশ্য খেলার শেষে দলের কোচ প্যাডি আপটনের অনুরোধে অশ্বিনের সঙ্গে হাত মেলান বাটলার।

কিন্তু ততক্ষণে সারা ক্রিকেটবিশ্বে শুরু হয়ে গেছে তীব্র সমালোচনা। ধারাভাষ্যকারদের মধ্যে কেভিন পিটারসেন, ব্রেট লিরা বলেছেন, অশ্বিন ক্রিকেটীয় চেতনায় আঘাত দিয়েছেন। অন্যদিকে কুমার সাঙ্গাকারা মনে করেন, অশ্বিন অন্যায় করেননি, নিয়মের ভেতরেই তিনি আউট করেছেন। এছাড়া রাজস্থান মেন্টর শেন ওয়ার্ন টুইটারে লিখেছেন, 'অশ্বিন যে কাজটা করেছে চূড়ান্ত অমর্যাদার। আশা করি ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড আইপিএলে এ ধরনের আচরণ একেবারেই সমর্থন করবে না।'

যাকে নিয়ে এত আলোচনা, সেই অশ্বিন অবশ্য ম্যাচ শেষে জোরাল যুক্তি দিয়ে বলেছেন, তিনি খেলার চেতনাবিরোধী কোনো কাজ করেননি। অশ্বিনের ভাষায়, 'স্বাভাবিকভাবেই আমি এটা করেছি। পরিকল্পিত কিংবা এমন কিছু ছিল না। খেলার নিয়মের মধ্যে থেকেই করেছি। আর চেতনার প্রশ্নটা কেন আসছে সেটা বুঝতে পারছি না, যদি নিয়মটা থেকে থাকে। আইন যদি ব্যবহার না করা যায়, সেটি থেকে লাভ কী?'

মন্তব্য