kalerkantho

চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী মোহামেডানকে হারাল আবাহনী

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৫ মার্চ, ২০১৯ ১৯:৪৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী মোহামেডানকে হারাল আবাহনী

ফাইল ছবি

বোলারদের নৈপুণ্যের পর ওপেনার জহিরুল ইসলামের ৯৬ রানের সুবাদে ঢাকা প্রিমিয়ার ক্রিকেট লিগে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবকে হারালো আবাহনী লিমিটেড। ৬ উইকেটে জয় তুলে নেয় আবাহনী। এই জয়ে ৬ খেলায় ৫ জয়ে ১০ পয়েন্ট নিয়ে রান রেটে এগিয়ে থেকে টেবিলের শীর্ষে রয়েছে আবাহনী। সমানসংখ্যক ম্যাচে ৩টি করে জয়-হারে ৬ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের পঞ্চম স্থানে মোহামেডান।

মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে টস জিতে প্রথমে বোলিং বেছে নেয় আবাহনী। দুই ওপেনার লিটন দাস ২৭ ও আব্দুল মাজিদ ২৬ রান করে ফিরেন। তবে মিডল-অর্ডার দুই ব্যাটসম্যান ইরফান শুক্কুর ও অধিনায়ক রকিবুল হাসান হাফ-সেঞ্চুরি তুলে নেন। তাদের হাফ-সেঞ্চুরিতে সামনের দিকে এগিয়ে যেতে থাকে মোহামেডান। যদিও হাফ-সেঞ্চুরির পরই থেমে যান দুজনই। শুক্কুর ৫৭ ও রকিবুল ৫১ রান করেন।

আবাহনীর বোলারদের নৈপুণ্যে পরের দিকে আর কোন ব্যাটসম্যানই বড় ইনিংস খেলতে না পারলে ৫০ ওভারে ৭ উইকেটে ২৪৮ রানের সংগ্রহ পায় মোহামেডান। আবাহনীর মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন-নাজমুল ইসলাম ৩টি করে উইকেট নেন। জবাবে উদ্বোধনী জুটিতেই ১০৫ রান পায় আবাহনী। জহিরুল ও সৌম্য সরকার ২০তম ওভারের পঞ্চম বলে বিচ্ছিন্ন হন। ৫৪ বলে ৪৩ রান করেন সৌম্য। এরপর মিডল-অর্ডার ব্যাটসম্যানদের নিয়ে রান দলকে লক্ষ্যের দিকে টেনে নিয়ে যেতে থাকেন জহিরুল। তুলে ফেলেন হাফ-সেঞ্চুরি।

ভারতের ওয়াসিম জাফর ৩৮ ও নাজমুল হোসেন শান্ত ১৬ রানে আউটের পরই বিদায় নেন জহিরুল। ১২টি চারে ১৩১ বলে ৯৬ রান করেন জহিরুল। জহিরুল যখন আউট হন তখন আবাহনীর প্রয়োজন ৩৫ রান। ১৫ বল হাতে রেখে দলের বাকী প্রয়োজন মিটিয়েছেন অধিনায়ক মোসাদ্দেক হোসেন ও সাব্বির রহমান। মোসাদ্দেক ১৮ ও সাব্বির ২১ রানে অপরাজিত থাকেন। ম্যাচ সেরা হয়েছেন আবাহনীর জহিরুল।

মন্তব্য