kalerkantho


আবাহনীকে হারাল শেখ রাসেল

ইয়াহইয়া ফজল, সিলেট

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ১০:৫৮



আবাহনীকে হারাল শেখ রাসেল

ছবি : আশকার আমিন রাব্বি

ঘরের মাঠে শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রের সঙ্গে দেশের ঐতিহ্যবাহী দল আবাহনীর ম্যাচ। বাংলাদেশ প্রিমিয়ার ফুটবল লিগের বড় দুই দলের খেলা বলেই হয়তো জমজমাট লড়াইয়ের প্রত্যাশায় গতকাল সিলেট জেলা স্টেডিয়ামে দর্শক উপস্থিতি ছিল প্রায় দ্বিগুণ। তাদের হতাশও করেনি দুই দল। মাঝখানের কিছুটা সময়ের এলোমেলো ফুটবল বাদ দিলে বাকিটা সময় আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণে প্রাণবন্ত ফুটবলই উপহার দিয়েছে দুই দল। তবে ঘরের মাঠ প্রতি ম্যাচেই ভালো খেলা শেখ রাসেল গতকালও ছিল একই মেজাজে। তাতে ২-০ গোলে আবাহনীকে হারিয়ে নিজেদের মাঠে দ্বিতীয় জয়টি তুলে নেয় তারা।

গতকাল শুরু থেকেই দুই দল আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণে জমজমাট ম্যাচের ইঙ্গিত দিয়ে রাখে। তবে সময় গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে আক্রমণের ধার বাড়াতে থাকে স্বাগতিকরা। যদিও তার বিপরীতে খেলার সাত মিনিটের মাথায় গোলের সহজ সুযোগ তৈরি করে আবাহনী। মাঠের বাঁ প্রান্ত থেকে রুবেল মিয়ার নেওয়া শট আবাহনীর গোলরক্ষক শাহীদুল আলমকে ফাঁকি দিতে পারলেও গোলপোস্টের পাশ ঘেঁষে বাইরে দিয়ে চলে যায়। চার মিনিটের ব্যবধানে দলের রক্ষণভাগের রায়হান হাসান আরেকটি জোরালো শট নিলেও তা গোলবারের ওপর দিয়ে চলে যায়। খেলার ২৩ মিনিটে মাঠের বাঁ দিক থেকে পোস্ট লক্ষ্য করে দারুণ শট নেন শেখ রাসেলের লোকাল বয় বিপলু। যদিও তাঁর শট পোস্টের খানিকটা ওপর দিয়ে চলে যায়। তবে ঠিক পরের মিনিটে পাওয়া সুযোগটি হাতছাড়া করেননি শেখ রাসেলের নাইজেরিয়ান স্ট্রাইকার রাফায়েল ওডইন। মাঠের ডান দিক থেকে সতীর্থ ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড অ্যালেক্স রাফায়েল দ্য সিলভা অ্যান্টোনিওর দুর্দান্ত মাইনাস থেকে উড়ে আসা বলে হেডে গোল করেন তিনি। পরের মিনিটে ডি বক্সের কাছাকাছি থেকে আবারও শট নেন এই ব্রাজিলিয়ান; কিন্তু তা গোলবারের ওপর দিয়ে চলে যায়।

এক গোল হজম করে তেতে ওঠে যেন আবাহনী। প্রথমার্ধের বাকিটা সময় আক্রমণে আক্রমণে তারা গোল পরিশোধে মরিয়া হয়ে ওঠে। তাদের একাধিক আক্রমণ গোলবারের কাছাকাছি এসে ঠিকানা হারাতে থাকে। প্রথমার্ধের একেবারে শেষ সময়ে আরেকটি সংঘবদ্ধ আক্রমণ থেকে তপু বর্মণের নেওয়া জোরালো হেড দুর্দান্ত নৈপুণ্যে ঠেকিয়ে আবাহনীকে গোলবঞ্চিত করেন গোলরক্ষক রানা। প্রথমার্ধে ১-০-তে এগিয়ে থাকে স্বাগতিক শেখ রাসেল।

খেলার ৮৫ মিনিটের মাথায় তারা সংঘবদ্ধ আক্রমণ চালায় শেখ রাসেলের সীমান্তে। কিন্তু আক্রমণ থেকে তারা ফল বের করতে পারেনি। উল্টো প্রতি আক্রমণে আরেকটি গোল হজম করতে হয় তাদের। ডি বক্সের কাছ থেকে ক্লিয়ার হওয়া বল পেয়ে যান শেখ রাসেলের ব্রাজিলিয়ান রাফায়েল দ্য সিলভা। মাঝ মাঠ থেকে তিনি প্রায় একক প্রচেষ্টায় গোল করেন। এরপর যেন ক্লান্তি খানিকটা ভর করে আবাহনী শিবিরে। তাতে ২-০ গোল ব্যবধানের হার নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয় বর্তমান চ্যাম্পিয়ন আবাহনীকে।



মন্তব্য