kalerkantho


রবিবারের ম্যাচটি হতে পারত মাশরাফির ৩১১তম ওয়ানডে!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৮ ডিসেম্বর, ২০১৮ ১৮:৪৯



রবিবারের ম্যাচটি হতে পারত মাশরাফির ৩১১তম ওয়ানডে!

ওয়ানডে ফরম্যাটে ২শতম আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলার মাইলফলক স্পর্শ করতে যাচ্ছেন বাংলাদেশের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। আগামীকাল রবিবার ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম ওয়ানডে খেলতে নামলেই এই মাইলফলক ছুঁয়ে ফেলবেন তিনি। তবে বাংলাদেশের বাংলাদেশের প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে ২০০ ওয়ানডের দুয়ারে থাকলেও বাংলাদেশের জার্সিতে ২০০ ওয়ানডে খেলতে অপেক্ষা করতে হবে আরও কয়েকদিন।

২০০৭ সালের জুনে আফ্রো-এশিয়া কাপে এশিয়া একাদশে দুটি ম্যাচ খেলেছিলেন মাশরাফি। সুতরাং, উইন্ডিজের বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের সবগুলো ম্যাচ খেললেই দেশের জার্সিতে ২০০ ম্যাচ খেলা হয়ে যাবে ম্যাশের। তবে এখননই তিনি বাংলাদেশের হয়ে সবচেয়ে বেশি ম্যাচ খেলা ক্রিকেটারও। দুই নম্বরে আছেন 'মি. ডিপেন্ডেবল' খ্যাত মুশফিকুর রহিম। তার জন্য রবিবারের ম্যাচ হবে ১৯৫তম ওয়ানডে।

রবিবারের ম্যাচটি হতে পারত মাশরাফির ক্যারিয়ারের ৩১১তম ম্যাচ! কিন্তু দুঃখের ব্যাপার হলো, শুধু চোটের কারণেই মাশরাফি এখন পর্যন্ত দেশের হয়ে ১১১টি ওয়ানডে ম্যাচে খেলতে পারেননি। তবে প্রতিটি চোটের পরই তিনি ঘুরে দাঁড়িয়েছেন দারুণ দৃঢ়তায়। ফিরে এসেছেন নতুন উদ্যমে। হাঁটুতে সাতটি অস্ত্রোপচারের ক্ষত তাকে দমিয়ে রাখতে পারেনি। যে কারণে সবার আগে ওয়ানডে খেলার ডাবল সেঞ্চুরি করে ফেলবেন ম্যাশ।

ঝঞ্ঝা বিক্ষুব্ধ ক্যারিয়ারের গোধূলি বেলায় এসব অর্জন আর স্পর্শ করে না ম্যাশকে। আজ সংবাদ সম্মেলনে ২০০তম ওয়ানডের কথা উঠতেই মাশরাফি বলেন, 'ধন্যবাদ মনে করার জন্য। আমার আসলে খেয়াল ছিল না। আমি আগেও বলেছি, এগুলো আমাকে স্পর্শ করে না। আমার কাছে এত গুরুত্বপূর্ণও নয়। গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে কালকের ম্যাচটা জেতা। এইদিক থেকে ভালো লাগছে যে, ওয়ানডেতে অন্তত ২০০ ম্যাচ হচ্ছে। ভালো লাগবে, যখন মানুষ বলবে, তুমি বাংলাদেশের হয়ে ২০০টা ম্যাচ খেলেছ। এটা অবশ্যই একটা অর্জন।'



মন্তব্য