kalerkantho



#মিটু অভিযোগ 'সাজানো': মুক্তি পেলেন বিসিসিআই প্রধান

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২১ নভেম্বর, ২০১৮ ২১:০৯



#মিটু অভিযোগ 'সাজানো': মুক্তি পেলেন বিসিসিআই প্রধান

বিশ্বজুড়ে চলমান #মিটু আন্দোলনের মাঝে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিসিআই) প্রধান নির্বাহী রাহুল জোহরির বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ ওঠায় তোলপাড় শুরু হয়েছিল। তার সাবেক কর্মস্থলের এক সহকর্মী নারী অভিযোগ তুলেছিলেন যে, ভালো কাজের লোভ দেখিয়ে তাকে বাড়িতে ডেকে নিয়ে গিয়ে যৌন হেনস্থা করেছিলেন রাহুল জোহরি। কিন্তু শেষ পর্যন্ত অভিযোগ ধোপে টিকল না। বিসিসিআইয়ের কমিটি অফ অ্যাডমিনিস্টেটর্সের ঘোষণা দিয়েছে, রাহুল জোহরি নির্দোষ।

অভিযোগ ওঠার পর গত তিন সপ্তাহ আগেই বিসিসিআইয়ের পদ থেকে অব্যহতি দেওয়া হয়েছে জোহরিকে। এবার থেকে তিনি আবার নিজের দায়িত্বে বহাল থাকবেন। বোর্ডের সিওএ কমিটি জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার থেকেই নিজের অফিসে বসে কাজ শুরু করে দিতে পারবেন তিনি। রাহুলের বিরুদ্ধে এসব অভিযোগের কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি। সেই নারীর দায়ের করা অভিযোগ কার্যত সাজানো এবং ভিত্তিহীন। অফিসে বা বাড়িতে, রাহুল কোথাও সেই মহিলাকে যৌন হেনস্থা করেননি। মিথ্যা অভিযোগ করে রাহুলের ভাবমূর্তি নষ্ট করার চেষ্টা করা হয়েছিল।

রাহুল জোহরির বিরুদ্ধে অভিযোগের আঙুল ওঠার পর থেকে বিসিসিআইয়ের সিওএ কমিটি দুই ভাগে বিভক্ত হয়েছিল। সিওএ প্রধান বিনোদ রাই জোহরির পাশে দাঁড়িয়েছিলেন। কিন্তু ডায়ানা এডুলজি সরাসরি জোহরির পদত্যাগ দাবি করেছিলেন। ২৫ অক্টোবার প্রুভ প্যানেল গঠন করা হয়েছিল। ১৫ দিনের মধ্যে সেই কমিটিকে রাহুল জোহরির উপর তদন্ত শেষ করে রিপোর্ট জমা দিতে বলেছিল সিওএ। সেই একই রিপোর্ট সুপ্রিম কোর্টেও জমা দেওয়া হবে। যদিও রাহুল জোহরির নির্দোষ প্রমাণের খবরটা আজ বুধবার প্রকাশ্যে আনতে চাননি ডায়ানা এডুলজি।

তিনি চেয়েছিলেন, এই ব্যাপারে আরও কিছুদিন তদন্ত চালিয়ে যেতে। তবে বিনোদ রাই অনেকটা তড়িঘড়ি করেই খবরটা সংবাদমাধ্যমের সামনে প্রকাশ করেন। রাহুল জোহরির বিরুদ্ধে অবশ্য আরও দুটি অভিযোগ রয়েছে। আরও একজন নারী জোহরির বিরুদ্ধে যৌন নিগ্রহের অভিযোগ এনেছিলেন। তিনি সিঙ্গাপুরে জোহরির সঙ্গে কাজ করতেন।

এদিকে ভারতীয় গণমাধ্যম জানিয়েছে, বিসিসিআইয়ের আভন্তরীন অনেক ঘটনায় নাকি জোহরির নামে একাধিক অভিযোগ জমা পড়েছে। তিনি ভারতীয় বোর্ডের নারী সহকর্মীদের সঙ্গে সঠিক আচরণ করেন না। সুতরাং, একটি অভিযোগ থেকে রেহাই পেলেও জোহরি যে বাকী অভিযোগগুলোতে ফেঁসে যাবেন না, তার কোনো গ্যারান্টি আপাতত নেই। এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত অভিযোগকারী নারীর কোনো প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।



মন্তব্য