kalerkantho



জুভেন্তাসের জয়ের দিনে খলনায়ক হিগুয়েইন

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১২ নভেম্বর, ২০১৮ ১৪:০৫



জুভেন্তাসের জয়ের দিনে খলনায়ক হিগুয়েইন

ছবি : এএফপি

অ্যাওয়ে ম্যাচ হলেও ফেভারিট হয়েই রবিবার সান সিরো স্টেডিয়ামে এসি মিলানের বিপক্ষে খেলতে নেমেছিল মাসিমিলিয়ানো আলেগ্রির দল। কারণ সিরি 'আ'তে দুই দলের গত ১১ বারের মুখোমুখি সাক্ষাতে ১০ বারই ম্যাচের ফল ছিল জুভেন্তাসের পক্ষে। ঘরের মাঠে ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডের বিরুদ্ধে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে হারের ধাক্কা কাটিয়ে ২-০ গোলের জয় তুলে নিয়ে লিগের শীর্ষস্থান আরও মজবুত করে ফেললেন রোনালদোরা। তবে এই ম্যাচে দুটি কাণ্ড ঘটিয়ে খলনায়ক হয়ে গেলেন আর্জেন্টাইন তারকা গঞ্জালো হিগুয়েইন।

ম্যাচের শুরু থেকেই মিলানের রক্ষণে ত্রাসের সঞ্চার করতে থাকেন দিবালা, মানজুকিচরা। জুভেন্তাসের এগিয়ে যাওয়া ছিল সময়ের অপেক্ষা। সেই অপেক্ষা খুব একটা দীর্ঘায়িত হতে দিলেন না 'সুপার মারিও' মানজুকিচ। ৮ মিনিটে এক ডিফেন্ডারকে টপকে বাঁ দিক থেকে অ্যালেক্স সান্দ্রোর পিনপয়েন্ট ক্রস দুর্দান্ত হেডে বল জালে পাঠান এই ক্রোয়েট স্ট্রাইকার।

পিছিয়ে পড়ে প্রথমার্ধ জুড়ে ম্যাচে ফিরে আসার খেলা চালিয়ে যায় এসি মিলান। কিন্তু পাসিংয়ে দক্ষতার অভাব ছন্দ নষ্ট করে মিলানের খেলায়। তবু বিরতির ঠিক আগেই লাইফলাইন পায় তারা। সুসোর বাড়ানো বল হিগুয়েন চিপ করতে গেলে বক্সের মধ্যে তা হাতে লাগিয়ে ফেলেন জুভে ডিফেন্ডার মেহদি বেনাতিয়া। ভিএআরের সাহায্য নিয়ে এসি মিলানকে স্পটকিকের নির্দেশ দেন রেফারি। কিন্তু গ্যালারির হতাশা দ্বিগুণ করে স্পটকিক থেকে গোল করতে ব্যর্থ হন হিগুয়েন। বলা চলে দুর্দান্ত আক্রোবেটিক ডাইভে আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকারের কিক রুখে দেন জুভেন্তাস গোলকিপার সেজনি।

বিরতির পর ঝাঁঝ বাড়িয়ে আক্রমণে উঠলেও বেনাতিয়ার নেতৃত্বে জুভেন্তাসের দুর্ভেদ্য ডিফেন্সের কাছে বার বার আটকে যেতে হয় মিলানকে। এরইমধ্যে দিবালার ফ্রি-কিক বিপক্ষের পোস্ট কাঁপিয়ে বাইরে চলে যায়। তবে ৮১ মিনিটে জুভেন্তাসের জার্সি গায়ে সিরি 'আ' লিগে নিজের ৮ম গোল করে ফেলেন পর্তুগিজ সুপারস্টার ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। বক্সের মধ্যে ক্যানসেলোর জোরালো শট মিলান গোলরক্ষক রুখে দিলে সুযোগসন্ধানী রোনালদো ফিরতি বল জালে জড়ান।

জুভেন্তাসের জয় নিশ্চিত হলেও ম্যাচে নাটক বাকি ছিল তখনও। জুভেন্তাসের দ্বিতীয় গোলের ২ মিনিট পর বেনাতিয়াকে ফাউল করে বসেন হিগুয়েন। রেফারি হলুদ কার্ড দেখালে সিদ্ধান্তের তীব্র অসন্তোষ জানান আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড। তবে প্রতিবাদ মাত্রা অতিক্রম করলে দ্বিতীয় হলুদ কার্ড অর্থাৎ লাল কার্ড দেখান রেফারি। পেনাল্টি নষ্টের পর লাল কার্ড দেখে স্বভাবতই সমর্থকদের চোখে 'খলনায়ক' হয়ে যান হিগুয়েইন। এমনকি মাঠ ছাড়ার সময় হতাশায় জুভেন্তাসের ফুটবলারদের সঙ্গে কথা কাটাকাটিতেও জড়িয়ে পড়েন তিনি।



মন্তব্য