kalerkantho


জীবনের শেষ টেস্টে হতাশাই সঙ্গী হলো রঙ্গনা হেরাথের

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৯ নভেম্বর, ২০১৮ ১৮:১১



জীবনের শেষ টেস্টে হতাশাই সঙ্গী হলো রঙ্গনা হেরাথের

ছবি : এএফপি

না, জাঁকজমক কিছুই হলো না। শ্রীলঙ্কার স্পিন মহাতারকা তার জীবনের শেষ টেস্টের শেষে মাঠ ছাড়লেন মাথা নিচু করেই। কারণ হেরাথের বিদায়টা জয় দিয়ে রাঙ্গাতে পারেনি শ্রীলঙ্কা। সিরিজের প্রথম টেস্টে ইংল্যান্ডের কাছে ২১১ রানের বড় ব্যবধানে হেরেছে তারা। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ইংলিশদের এটিই সবচেয়ে বড় ব্যবধানে জয়। পাশাপাশি সাড়ে ৬ বছর পর শ্রীলঙ্কার মাটিত টেস্ট জিতল ইংল্যান্ড। 

গল টেস্ট জয়ের জন্য তৃতীয় দিন শেষে শ্রীলঙ্কাকে ৪৬২ রানের বিশাল টার্গেট দেয় ইংল্যান্ড। জবাবে তৃতীয় দিন শেষে বিনা উইকেটে ১৫ রান করে শ্রীলঙ্কা। তাই ম্যাচের বাকী দুই দিনে জয়ের জন্য শ্রীলঙ্কার প্রয়োজন পড়ে আরও ৪৪৭ রান। ইংল্যান্ডের দরকার ১০ ছিলো উইকেট। দুই ওপেনার দিমুথ করুনারত্নে ৭ এবং কুশল সিলভা ৮ রানে অপরাজিত ছিলেন।

চতুর্থ দিন সকাল থেকে বেশ সর্তকতার সাথে খেলতে থাকেন শ্রীলঙ্কার দুই ওপেনার করুনারত্নে ও সিলভা। জুটি পঞ্চাশ ছাড়িয়ে যায়। এরপরই শ্রীলঙ্কার উদ্বোধনী জুটিতে ভাঙ্গন ধরান বাঁ-হাতি স্পিনার জ্যাক লিচ। ৩০ রান করা সিলভাকে সাজ ঘরে পাঠান তিনি। কিছুক্ষণ বাদে প্যাভিলিয়নে ফিরেন করুনারত্নেও। প্রথম ইনিংসে ৪ উইকেট নিয়ে ইংল্যান্ডের সফল বোলার অফ-স্পিনার মঈন আলীর শিকার হন ২৬ রান করা এই ব্যাটসম্যান।

দুই ওপেনারের মত তিন নম্বরে নেমে বড় ইংনিস খেলতে ব্যর্থ হন ধনঞ্জয়া ডি সিলভা। ২১ রান করে ইংল্যান্ডের মিডিয়াম পেসার বেন স্টোকসের বলে আউট ডি সিলভা। এরপর বড় ইনিংস খেলার ইঙ্গিত দিয়েছিলেন কুশল মেন্ডিস ও সাবেক অধিনায়ক অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুজ। কিন্তু বেশি দূর যেতে পারেননি তারা। মেন্ডিস ৪৫ ও ম্যাথুজ ৫৩ রান করেন।

মেন্ডিস ও ম্যাথুজের বিদায়ের পর আর কোন ব্যাটসম্যানই বড় ইনিংস খেলতে পারেননি। শেষ পর্যন্ত ২৫০ রানে গুটিয়ে যায় শ্রীলঙ্কা। সেই সাথে বড় ব্যবধানে হার নিশ্চিত হয়ে যায় স্বাগতিকদের। ইংল্যান্ডের পক্ষে দ্বিতীয় ইনিংসে মঈন ৪টি ও লিচ ৩টি উইকেট নেন। ম্যাচ সেরা হয়েছেন ইংল্যান্ডের উইকেটরক্ষক বেন ফোকস। অভিষেক ম্যাচ খেলতে নেমে দুই ইনিংসে ১০৭ ও ৩৭ রান করেন ফোকস।

ক্যান্ডিতে আগামী ১৪ নভেম্বর থেকে শুরু হবে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্ট।



মন্তব্য