kalerkantho



মেসি-রোনালদোর রাজত্বে হানা, নতুন রাজা মডরিচ

স্পোর্টস ডেস্ক   

২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ১১:৪৩



মেসি-রোনালদোর রাজত্বে হানা, নতুন রাজা মডরিচ

৩১ আগস্ট লুকা মডরিচকে যখন উয়েফার বর্ষসেরা ফুটবলারের পুরস্কার তুলে দেওয়া হলো, তখনই অনেকটা নিশ্চিত হওয়া গিয়েছিল ফিফার দ্য বেস্ট পুরস্কারটাও ক্রোয়েশিয়ার এই ফুটবলারই পাচ্ছেন। হয়েছেও তাই। লন্ডনে জাঁকজমকপূর্ণ আয়োজনে ইদ্রিস অ্যালবার সপ্রতিভ উপস্থাপনায় হয়ে যাওয়া ফিফার বার্ষিক পুরস্কার বিতরণের রাতে সেরা ফুটবলারের পুরস্কারটা উঠেছে মডরিচের হাতেই।

সিনেমা জগতের মর্যাদার দুটো পুরস্কার হচ্ছে গোল্ডেন গ্লোব আর অস্কার। গোল্ডেন গ্লোব পুরস্কার দেয় হলিউড ফরেন প্রেস অ্যাসোসিয়েশন আর অস্কার দেয় একাডেমি অব মোশন পিকচার্স আর্টস অ্যান্ড সায়েন্সেস। অনেক দিন ধরেই চলে আসা একটা প্রথা মেনে বলা হয়, গোল্ডেন গ্লোব হচ্ছে অস্কারের পূর্বাভাস! গোল্ডেন গ্লোব পাওয়া মানেই অস্কার পাওয়ার শতকরা ৮০ ভাগ সম্ভাবনা! এবার যেমন সেরা অভিনেতা হিসেবে গ্যারি ওল্ডম্যান গোল্ডেন গ্লোব ও অস্কার দুটোই জিতেছেন। সেরা অভিনেত্রী হিসেবে ফ্রান্সিস ম্যাকডোরম্যান্ডও জিতেছেন দুটো পুরস্কারই। ঠিক তেমনি, বলা যায় উয়েফার বর্ষসেরা ফুটবলারের পুরস্কারটা হচ্ছে ব্যালন ডি’অর বা ফিফা দ্য বেস্টের পূর্বাভাস। ২০১০-১১ মৌসুমে লিওনেল মেসি পেয়েছিলেন উয়েফার বর্ষসেরা ফুটবলারের পুরস্কার, পরে ফিফা ব্যলন ডি’অরটাও উঠেছে তাঁরই হাতে। গত দুটি বছর ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো পেয়েছিলেন উয়েফার বর্ষসেরা ও ফিফার দ্য বেস্ট, দুটো পুরস্কারই। তাই তো ৩১ আগস্ট লুকা মডরিচকে যখন উয়েফার বর্ষসেরা ফুটবলারের পুরস্কার তুলে দেওয়া হলো, তখনই অনেকটা নিশ্চিত হওয়া গিয়েছিল ফিফার দ্য বেস্ট পুরস্কারটাও ক্রোয়েশিয়ার এই ফুটবলারই পাচ্ছেন। হয়েছেও তাই। লন্ডনে জাঁকজমকপূর্ণ আয়োজনে ইদ্রিস অ্যালবার সপ্রতিভ উপস্থাপনায় হয়ে যাওয়া ফিফার বার্ষিক পুরস্কার বিতরণের রাতে সেরা ফুটবলারের পুরস্কারটা উঠেছে মডরিচের হাতেই। তবে মেসি ও রোনালদো, কেউই অনুষ্ঠানে যোগ না দেওয়াতে খানিকটা উষ্মাই প্রকাশ করেছে ফিফা।

মডরিচই যে পুরস্কারটা পাবেন, সেটা তো আন্দাজ করাই যাচ্ছিল। সেরা কোচের পুরস্কারটা দেওয়ার জন্য বিশ্বকাপজয়ী কোচের চেয়ে উপযুক্ত ব্যক্তিই বা আর কে হতে পারেন! সেরা কোচ দিদিয়ের দেশম। তবে সেরা গোলের জন্য মোহাম্মদ সালাহর পুরস্কার প্রাপ্তিটা অনেকেরই ভ্রু কুঁচকানোর কারণ। এভারটনের বিপক্ষে তুষারঝরা রাতে একজনকে কাটিয়ে বাঁ পায়ের হাওয়া ভাসানো শটে করা যে গোলটার জন্য পুরস্কার পেলেন এই মিসরীয় ফরোয়ার্ড, এর চেয়ে চমৎকার দুটি গোল চ্যাম্পিয়নস লিগের সেমিফাইনালে রোমার বিপক্ষে তিনি নিজেই করেছেন! মনোনীত ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো ও গ্যারেথ বেলের দুটি ওভারহেড শটের গোলকে উপেক্ষা করেই ৩৮ শতাংশ ভোট পেয়েছে সালাহর গোলটা। তাই পুসকাস অ্যাওয়ার্ডটা পেয়েছেন সালাহ, প্রথমবারের মতো ‘দ্য বেস্ট’-এর জন্য মনোনয়ন পেয়ে পুরস্কার নিতে আসা রাতে সেরা ফুটবলারের পুরস্কারটা না পেলেও ফুটবলারদের যেটা আরাধ্য সেই গোলের জন্যই পুরস্কার পেয়েছেন ইজিপশিয়ান কিং। বর্ষসেরা মহিলা ফুটবলার ব্রাজিলের মার্তা, মেয়েদের ফুটবলের বর্ষসেরা কোচ অলিম্পিক লিওঁর মহিলা দলকে ট্রেবল জেতানো কোচ রেইনালদ পেদ্রোস। ফিফা ফ্যান অ্যাওয়ার্ড পেয়েছে পেরুর সমর্থকরা। ৩৬ বছর পর বিশ্বকাপের চূড়ান্ত পর্বে খেলা পেরুর রাশিয়া বিশ্বকাপ খেলা দেখতে ১৪ হাজার কিলোমিটার দূর থেকে ছুটে এসেছে প্রায় ৪০ হাজার পেরু সমর্থক। লেনার্ট দাই পেয়েছেন ফেয়ার প্লে পুরস্কার। ডাচ লিগে খেলা এই জার্মান ফুটবলার আইন্দহোফেনের বিপক্ষে ম্যাচের একাদশ থেকে নিজেকে প্রত্যাহার করে নিয়েছিলেন লিউকেমিয়া আক্রান্ত এক রোগীকে রক্তদান করবার জন্য।

বিশ্বকাপের সেরা খেলোয়াড়, ইউরোপের সেরা খেলোয়াড়, এখন বিশ্বের (অন্তত ২০১৮ সালে!) সেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কারটা মডরিচের হাতে। ক্রোয়েশিয়াকে ফাইনালে জেতাতে পারলে হয়তো এর চেয়ে কয়েক শ গুণ খুশি হতেন! শরণার্থীশিবিরে কাটানো শৈশব থেকে এই পর্যন্ত আসতে পারা মডরিচ জানালেন নিজের অনুভূতির কথা, ‘অবিশ্বাস্য অনুভূতি। আমার জন্য, আমার ক্যারিয়ারের জন্য বিশেষ একটা রাত। এত মানুষ মিলে আমাকে সেরা বেছে নিয়েছে, এর চেয়ে বড় কোনো পুরস্কার নেই। তাদের সবাইকে আমার ধন্যবাদ।’ মডরিচকে দ্য বেস্ট জয়ের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন তাঁর জাতীয় দল ও ক্লাব সতীর্থরা। ইভান রাকিটিচ টুইটারে লিখেছেন, ‘দ্য বেস্ট—অভিনন্দন ওস্তাদ লুকা মডরিচ। তুমিই এই পুরস্কারটার যোগ্য আর গোটা ক্রোয়েশিয়া তোমাকে নিয়ে গর্ব করে। সব কিছুর জন্য ধন্যবাদ অধিনায়ক।’ ইনস্টাগ্রামে গ্যারেথ বেল মডরিচের সঙ্গে ছবি দিয়ে লিখেছেন,‘অভিনন্দন বন্ধু। অবিশ্বাস্য একজন খেলোয়াড়, অসাধারণ একটা মৌসুম।’ অভিনন্দন জানিয়েছেন টটেনহামে তাঁর সাবেক কোচ হ্যারি রেডন্যাপ, সদ্য অবসরে যাওয়া জাতীয় দল সতীর্থ মারিও মান্দজুকিচসহ অনেকেই। সেরা কোচের পুরস্কার পাওয়া দেশম জানিয়েছেন, ‘আমাদের খেলোয়াড়দের ছাড়া আমরা কিছুই না। আমি ধন্যবাদ জানাতে চাই গোটা দলকে। তারাই কঠিন পরিশ্রম করে আমাদের আজ এই জায়গায় নিয়ে এসেছে।’

তারা ঝলমলে এই আয়োজনে সবচেয়ে বড় কমতি ছিল মেসি ও রোনালদোর অনুপস্থিতি। মেসি সেরা তিনেও মনোনয়ন পাননি, রোনালদো সেরা তিনে থাকার পরও আসেননি। তাই তো এ দুই তারকাকে নিয়ে খানিকটা উষ্মাই প্রকাশ করা হয়েছে ফিফার তরফ থেকে। সেই সঙ্গে সেরা তিন ফুটবলারের তালিকায় বিশ্বকাপজয়ী ফরাসি দলের কেউ না থাকাতেও অবাক হয়েছেন অনেকে। যাঁদের ভেতর সেরা কোচের পুরস্কার পাওয়া দেশমও আছেন! ফিফা

আরো একবার মার্তা, আবার মার্তা
মেয়েদের ফুটবলে বছরের সেরা খেলোয়াড়ের মনোনয়ন তালিকায় নাম উঠেছে ১৪ বার, এর মধ্যে ১২ বারই তাঁর ঠাঁই হয়েছে সেরা তিনে। ২০০৬ থেকে ২০১০, টানা পাঁচ বছর হয়েছেন ফিফার বর্ষসেরা মহিলা ফুটবলার। ২০১৬-তে ফিফা দ্য বেস্ট পুরস্কার চালু হওয়ার পর প্রথম বছরই রানার্স-আপ হয়েছিলেন মার্তা, পরের বছর জায়গা হয়নি সেরা তিনে। এবার ‘দ্য বেস্ট’ পুরস্কারটাই পেলেন মার্তা, প্রথমবারের মতো! এই বছর ব্রাজিলকে মেয়েদের কোপা আমেরিকা জিতিয়েছেন, যুক্তরাষ্ট্রের মহিলা লিগে অরল্যান্ডো প্রাইডসের হয়ে গত বছর ২৪ ম্যাচে ১৩ গোল। মার্তার বয়স হয়েছে ৩২ বছর।

বর্ষসেরা একাদশ
ফিফা দ্য বেস্ট পুরস্কার দেওয়ার রাতে ঘোষণা করা হয়েছে ফিফার বর্ষসেরা একাদশ। ২০১৭-১৮ মৌসুমের পারফরম্যান্সের ওপর ভিত্তি করে গড়া এই একাদশে ঠাঁই পেয়েছেন দাভিদ দে গেয়া, দানি আলভেস, মার্সেলো, সের্হিয়ো রামোস, রাফায়েল ভারান, এডেন হ্যাজার্ড, এনগোলো কান্তে, লুকা মডরিচ, কিলিয়ান এমবাপ্পে, ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো ও লিওনেল মেসি। অবাক করা ব্যাপার হচ্ছে, বর্ষসেরা ফুটবলারের মনোনয়নে সেরা তিনে থাকা এবং সেরা গোলের পুরস্কার পাওয়া মোহাম্মদ সালাহর জায়গা হয়নি ফিফপ্রো একাদশে!

ফিফার ক্ষোভ
২০০৭ থেকে ২০১৭—১০ বছরে পুরস্কারটার নাম ফিফা বর্ষসেরা ফুটবলার, ফিফা ব্যালন ডি’অর হয়ে ফিফা দ্য বেস্ট হয়েছে। এই এক দশকে অনেক কিছুই বদলেছে, শুধু বদলায়নি ফিফার বর্ষসেরার পুরস্কারে সেরা তিনে লিওনেল মেসি ও ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোর থাকাটা। এবার মেসি ছিলেন না সেরা তিনে, রোনালদো ছিলেন। কিন্তু দুজনের কেউই আসেননি লন্ডনে। এতেই তাঁদের ওপর খানিকটা ক্ষুব্ধ ফিফার কর্তাব্যক্তিরা। অনুষ্ঠানে ফিফার একজন প্রতিনিধি জানিয়েছেন, ‘তারা দুজনই ফুটবলের অগৌরব।’



মন্তব্য