kalerkantho


আর্জেন্টিনা-ব্রাজিল দলে ওলটপালট

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৯ আগস্ট, ২০১৮ ১১:৩৬



আর্জেন্টিনা-ব্রাজিল দলে ওলটপালট

বিশ্বকাপে প্রত্যাশা পূরণ হয়নি ব্রাজিল-আর্জেন্টিনার। নতুন যুগে নতুন চক্রে ব্যাপক রদবদল তাই প্রত্যাশিত। আগামী মাসের দুই প্রীতি ম্যাচের জন্য দল ঘোষণায় তারই প্রতিফলন। ব্রাজিলের বিশ্বকাপ স্কোয়াড থেকে বাদ পড়েছেন আটজন। আর আর্জেন্টিনার বিশ্বকাপ স্কোয়াড থেকে রয়েছেন মোটে ৯ জন; বাদবাকি ১৪ জনই বাদ!

লিওনেল মেসিকে অবশ্য বাদ বলার উপায় নেই। আর্জেন্টিনার জাতীয় দল থেকে অনির্দিষ্টকালের ছুটির আবেদন করে রেখেছেন অধিনায়ক; তা অনুমোদিত হওয়ার খরবও পাওয়া যাচ্ছিল। নতুন অন্তর্বর্তীকালীন কোচ লিওনেল স্কালোনি তাই আগামী মাসে গুয়াতেমালা ও কলম্বিয়ার বিপক্ষে স্কোয়াডে রাখেননি মেসিকে। যে সিদ্ধান্তের সঙ্গে সহমত কিংবদন্তি ডিয়েগো ম্যারাডোনারও, ‘মেসিকে বিশ্রাম দেওয়াই ভালো; ওকে একটু দম ফেলবার সময় দেওয়া উচিত। আমি ওকে বলব ইউরোপেই খেলতে। আর্জেন্টিনা জাতীয় দলের সঙ্গে ভ্রমণ করা এবং ফেডারেশনের ওকে ব্যবহার করার সুযোগ দেওয়ার দরকার নেই। ও থাকলেই দল জেতে, সে কারণে এসব প্রীতি ম্যাচে মেসির খেলার প্রয়োজন নেই।’

মেসির কারণটা না হয় বোঝা গেল, তবে গনসালো হিগুয়াইন, আনহেল দি মারিয়া, সের্হিয়ো আগুয়েরোর মতো তারকারা বাদই পড়েছেন। প্রত্যাবর্তনের তালিকায় সবচেয়ে উজ্জ্বল নাম মাউরো ইকার্দি। ইন্টার মিলানে দুর্দান্ত মৌসুম কাটানোর পরও বিশ্বকাপ স্কোয়াডে যাঁকে রাখেননি কোচ হোর্হে সাম্পাওলি। নতুন অন্তর্বর্তী কোচ স্কালোনি প্রথম সুযোগেই দলে ডেকেছেন ইকার্দিকে।

আর্জেন্টিনার কোচ বদলেছে, ব্রাজিলের নয়। কোচ আদেনর বাক্কি তিতে স্কোয়াডের খোলনলচেও অমন বদলে ফেলেননি। অবশ্য যুক্তরাষ্ট্র ও এল সালভাদরের বিপক্ষে প্রীতি ম্যাচ দুটিতে মার্সেলো, পাউলিনিয়ো, মিরান্দা, ফের্নান্দিনিয়োর মতো তারকার ওপর কোপ পড়েছে ঠিকই। তাঁদের সঙ্গে বাদ গাব্রিয়েল জেসুস; বিশ্বকাপের পাঁচ ম্যাচ খেলেও কোনো গোল করতে পারেননি যে স্ট্রাইকার। ব্রাজিলিয়ান লিগে ফ্লুমিনেসে খেলা পেদ্রা ও গ্রেমিওর এভারতনকে সে জায়গায় দেখতে চাইছেন তিতে, ‘জাতীয় দলে ডাক পাওয়াটা পেদ্রোর প্রাপ্য, ও দারুণ খেলছে। এভারতনও ওর দলের অন্যতম সেরা ফুটবলার। যেমনটা বলা যায় ফ্লামেঙ্গোর পাকুয়েতার বেলাতেও।’ ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে খেলা আন্দ্রেয়াস পেরেইরা এবং বার্সেলোনায় নাম লেখানো আর্তুরের মতো প্রতিভাবানরাও প্রথমবারের মতো ডাক পেয়েছেন ব্রাজিল দলে। রয়টার্স

ব্রাজিল স্কোয়াড
গোলরক্ষক : আলিসন, নেতো, উগো। ডিফেন্ডার : আলেক্স সান্দ্রো, দেদে, ফাবিনিয়ো, ফাগনের, ফেলিপে, ফিলিপে লুইস, মারকিনিয়োস, থিয়াগো সিলভা। মিডফিল্ডার : আন্দ্রেয়াস পেরেইরা, ফ্রেদ, আর্তুর, ফিলিপে কৌতিনিয়ো, কাসেমিরো, লুকাস পাকুয়েতা, রেনাতো অগুস্তো। ফরোয়ার্ড : দগলাস কস্তা, এভারতন, রবের্তো ফিরমিনো, নেইমার, পেদ্রো, উইলিয়ান।

আর্জেন্টিনা স্কোয়াড
গোলরক্ষক : ফ্রাংকো আরমানি, হেরোনিমো রুলি, সের্হিয়ো রোমেরো। ডিফেন্ডার : ফাব্রিসিও বুস্তোস, গাব্রিয়েল মেরকাদো, হেরমান পেসেইয়া, রামিরো ফুনেস মোরি, আলান ফ্রাংকো, নিকোলাস তাগলিয়াফিকো, ওয়ালতের কানেমান, লিওনেল দি প্লাসিদো, এদুয়ার্দো সালভিও, মার্কোস আকুনা। মিডফিল্ডার : লিওনার্দো পারেদেস, সান্তিয়াগো আসকাসিবার, রদ্রিগো বাত্তাগলিয়া, গনসালো মার্তিনেস, জিওভান্নি লো সেলসো, ফ্রাংকো সেরভি, মাক্সি মেসা, মাতিয়াস ভারগাস, ফ্রাংকো ভাসকেস, এসেকিয়েল পালাসিওস। ফরোয়ার্ড : আনহেল কোররেয়া, লতারো মার্তিনেস, মাউরো ইকার্দি, জিওভান্নি সিমিওনে, ক্রিস্তিয়ান পাভন, পাউলো দিবালা। 



মন্তব্য