kalerkantho


ম্যাচ ফিক্সিং : ৪ গুণ বাড়ল পাকিস্তানি ওপেনারের সাজা!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১০ আগস্ট, ২০১৮ ২০:৫৯



ম্যাচ ফিক্সিং : ৪ গুণ বাড়ল পাকিস্তানি ওপেনারের সাজা!

প্রথমে সাজা হয়েছিল ১ বছরের। কিন্তু সেটা মনে ধরেনি পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি)। তারা নতুন করে সাজা বাড়ানোর আবেদন করে। এরপরেই স্পট ফিক্সিং কেলেংকারিতে জড়িত থাকার দায়ে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জয়ী পাকিস্তান ওপেনার শাহজাব হাসানের নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ ১ বছর থেকে বাড়িয়ে ৪ বছর করা হয়েছে। দেশটির ক্রিকেটে বোর্ডের আবেদনের প্রেক্ষিতে এক সদস্যের স্বাধীন বিচার কমিটি আজ (শুক্রবার) এ রায় দেয়।

ম্যাচ ফিক্সিংয়ের একটি প্রস্তাব পেয়ে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) দুর্নীতি বিরোধী ইউনিটকে না জানানোয় দোষী প্রমাণিত হওয়ার পর এ বছরের ফেব্রুয়ারী মাসে ২৮ বছর বয়সী হাসানকে এক বছরের জন্য নিষিদ্ধ ও দশ লাখ রুপি জরিমানা করা হয়েছিল।এই শাস্তি খুবই কম হয়েছে উল্লেখ করে পিসিবি তা বাড়ানোর আবেদন করে।

পিসিবির আইন উপদেষ্টা তাফাজ্জুল রিজভি গণমাধ্যমকে বলেন, 'স্বাধীন বিচারক বিচারপতি (অব:) হামিদ হুসেইন পিসিবির আবেদন গ্রহণ করেছেন এবং নিষিদ্ধাদেশ বাড়িয়ে চার বছর করেছেন। আর্থিক জরিমানাও বহাল রেখেছেন।'

পাকিস্তান সুপার লিগ (পিএসএল) টি-২০ টুর্নামেন্টের গত আসরে স্পট ফিক্সিং মামলায় শাস্তি পাওয়া ৬ ক্রিকেটারের একজন হচ্ছেন হাসান। এর আগে আক্রমণাত্মক ওপেনার শারজিল খান, খালিদ লতিফ, মোহাম্মদ ইরফান, মোহাম্মদ নওয়াজ এবং নাসির জামশেদকে বিভিন্ন মেয়াদে শাস্তি দেয়া হয়েছে।

জামশেদের বিরুদ্ধে অন্য অভিযোগও রয়েছে এবং তাকে আজীবনের জন্য নিষিদ্ধ করা হতে পারে। আগামী সপ্তাহে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত দেয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। হাসানের আইনজীবি কাশিফ রিজওয়ানা জানান, এ রায়ের বিরুদ্ধে আদালতে আপিল করতে পারেন তার মক্কেল।

হাসান ২০১০ সালের নভেম্বরে নিজ ক্যারিয়ারের শেষ তিন ওয়ানডে খেলেছেন। এ ছাড়া পাকিস্তানের হয়ে ১০টি টি-২০ ম্যাচ খেলেছেন তিনি। ২০০৯ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জয়ী পাকিস্তান দলের সদস্য ছিলেন তিনি। জামশেদের মত হাসানও বর্তমানে যুক্তরাজ্যে বসবাস করছেন।



মন্তব্য