kalerkantho


ইরান ম্যাচেই শেষ ষোল নিশ্চিত করতে চান রোনালদো

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৪ জুন, ২০১৮ ২০:৩৭



ইরান ম্যাচেই শেষ ষোল নিশ্চিত করতে চান রোনালদো

ছবি : এএফপি

সাবেক পর্তুগাল কোচ কার্লোস কুইরোজের ইরানকে পরাস্ত করে আগামীকাল সোমবার পর্তুগালকে শেষ আটে পৌঁছে দিতে চান অধিনায়ক ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। দুজনই চতুর্থবার বিশ্বকাপে অংশ নিচ্ছেন। একজন খেলোয়াড় হিসেবে এবং আরেকজন কোচ হিসেবে। তাদের মধ্যে সম্পর্কও বেশ পুরনো। ২০০৩ সালে কিশোর বয়সে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে যোগ দেয়ার পর থেকেই কুইরোজের সঙ্গে সম্পর্ক রোনালদোর।

নক-আউট পর্বে পৌঁছাতে হলে কালকের ম্যাচে ড্র করলেই চলবে পর্তুগালের। অন্যদিকে ৬৫ বছর বয়সী কুইরোজ রিয়াল মাদ্রিদের কোচের দায়িত্ব পালন করার আগে দুই মৌসুম কাটিয়েছেন অ্যালেক্স ফার্গুসনের সহকারী হিসেবে। যেখানে ২০০৯ সালে যোগ দেন রোনালদো। আর ওই প্রক্রিয়ায় সহায়তা করেছিলেন কুইরোজ।

তবে ওই সম্পর্কে চ্ছেদ ধরে ২০১০ বিশ্বকাপে। যেখানে স্পেনের কাছে হেরে বিশ্বকাপের দ্বিতীয় রাউন্ড থেকে বিদায় নিতে হয়েছিল পর্তুগালকে। আর ওই হারের জন্য কুইরোজকেই দোষারোপ করেছিলেন রোনালদো। পরে অবশ্য ২০১৪ সালে ব্রাজিল বিশ্বকাপে গ্রুপ পর্ব থেকেই বিদায় নিতে হয় রোনালদোর পর্তুগালকে। তবে এবারের বিশ্বকাপে পাঁচবারের বর্ষসেরার খেতাবধারী এ তারকা একাই টেনে নিয়ে চলেছেন নিজ দেশকে। প্রথম দুই ম্যাচে দলীয় চার গোলের সবকটিই করেছেন 'সিআর সেভেন'।

মরক্কোর বিপক্ষে 'বি' গ্রুপের ম্যাচে জয় নিয়ে সর্বমোট চার পয়েন্ট সংগ্রহের মাধ্যমে গ্রুপ শীর্ষে উঠে যাওয়া পর্তুগাল সুপার স্টার রোনালদো বলেন,' আমাদের প্রত্যাশা হচ্ছে এই জয়ের ধারা বজায় রেখে গ্রুপে নিজেদের অবস্থানকে আরো সৃমদ্ধ করা। আগে আমাদের সেখানে (নকআউট পর্বে) পৌঁছাতে হবে। এর পর দেখব কি হয়।'

এই মুহুর্তে গোল্ডেন বুট জয়ের দৌড়ে বেলজিয়ান তারকা রোমেলু লুকাকুর সহাবস্থানে রয়েছেন রোনালদো। আর্জেন্টিনার ব্যর্থতার কারণে তার আসল প্রতিদ্বন্দ্বি লিওনেল মেসি এখনো পর্যন্ত গোলের দেখাই পাননি। জাদুকরী এই ফুটবল তারকাকে 'পোর্ট ওয়াইন' বোতল আখ্যা দিয়ে পর্তুগাল কোচ ফার্নান্দো স্যান্টোস বলেন, ৩৩বছর বয়সেও রোনালদোর তার বয়সকে হার মানিয়েছে।

সাবেক আর্জেন্টাইন মিডফিল্ডার এবং অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের কোচ দিয়েগো সিমিওনে বলেছেন, তিনি তার দলের জন্য মেসির পরিবর্তে রোনালদোকেই বেশী প্রাধান্য দিবেন। তিনি বলেন,' মেসি খুবই ভালো খেলোয়াড়। তবে এটি পরিস্কার যে দলে অসাধারণ কিছু খেলোয়াড় পাওয়ার কারনে তিনি ভালো খেলোয়াড় হিসেবে প্রতিষ্ঠা পেয়েছেন।'

নক আউট পর্বে যেতে পারলে সেখানে প্রতিপক্ষ হিসেবে রাশিয়া অথবা উরুগুয়েকে পেতে পারে পর্তুগাল। এর আগে ২০০৬ সালে বিশ্বকাপে ইরানের মুখোমুখি হয়েছিল দেশটি। ২-০ গোলে জয় পাওয়া ওই ম্যাচে পেনাল্টি থেকে গোল করেছিলেন রোনালদো। কালকের ম্যাচে অসুস্থ মিডফিল্ডার হোয়াও মুতিনহোকে ছাড়াই মাঠে নামতে পারে ইউরো চ্যাম্পিয়নরা। পায়ের সমস্যার কারণে লেফট ব্যাক রাফায়েল গুয়েরেইরোও দলের বাইরে থাকতে পারেন।

গ্রুপ পর্বে প্রথম ম্যাচে মরক্কোকে ১-০ ব্যবধানে হারানোর পর স্পেনের বিপক্ষে একই ব্যবধানে পরাজিত হওয়া ইরানকে প্রথমবার বিশ্বকাপের নক আউট পর্বে যেতে হলে অবশ্যই পর্তুগালের বিপক্ষে জয় পেতে হবে। ২০০২ সালে দক্ষিন আফ্রিকাকে বিশ্বকাপে পৌঁছে দেয়া ইরানের কোচ কুইরেজ আসন্ন ম্যাচকে 'সবচেয়ে আকর্ষনীয় এবং ইরানের হয়ে নিজের সাত বছরের ক্যারিয়ারে সবচেয়ে গুরুত্বপুর্ন ম্যাচ' হিসেবে অভিহিত করেছেন।



মন্তব্য