kalerkantho


নক আউট পর্ব নিশ্চিত করতে চায় বেলজিয়াম

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২২ জুন, ২০১৮ ১১:২২



নক আউট পর্ব নিশ্চিত করতে চায় বেলজিয়াম

প্রথম ম্যাচের উজ্জীবিত পারফরমেন্সের ধারাবাহিকতায় বিশ্বকাপে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচেই নক আউট পর্ব নিশ্চিত করতে চায় তারকা সমৃদ্ধ বেলজিয়াম। আগামীকাল তিউনিশিয়ার বিপক্ষে গ্রুপের দ্বিতীয় ম্যাচের আগে দলের তারকা ফরোয়ার্ড এডেন হ্যাজার্ড মনে করেন এবারের বিশ্বকাপটা তার।

রেড ডেভিলস খ্যাত বেলজিয়াম সোমবার প্রথম ম্যাচে ৩-০ গোলে পানামাকে উড়িয়ে দিয়ে বিশ্বকাপে শুভ সূচনা করেছে। কিন্তু এই ফলও দেশের মাটিতে সমর্থকদের সমালোচনাকে রুখতে পারেনি। বিশেষ কওের প্রথমার্ধে গোলশুন্য ড্র কোনোভাবেই মেনে নিতে পারছেনা বেলজিয়াম ভক্তরা।

চেলমি ফরোয়ার্ড হ্যাজার্ড মনে করেন, বেলজিয়ামের প্রতি এই ধরনের প্রত্যাশা কিছুটা অবাস্তব। যদিও শনিবার তিউনিশিয়ার বিপক্ষে দলের আরো ভাল পারফরমেন্স তিনিও আশা করছেন।

গণমাধ্যমের কাছে তিনি বলেছেন, আমাদের কাছে সমর্থকদের প্রত্যাশা অনেক বেশী। কিন্তু আমরা এবারের বিশ্বকাপে দেখেছি বেশীরভাগ দলই এক বা দুই গোলের ব্যবধানে জিতেছে, ব্যতিক্রম ছিল শুধুমাত্র সৌদি আরবের বিপক্ষে রাশিয়ার উদ্বোধনী ম্যাচটি। সে কারনেই আমি বলবো আমরা যে ৩-০ ব্যবধানে জিতেছি তা মোটেই খারাপ নয়। বেলজিয়ামের কাছ থেকে প্রত্যেকের প্রত্যাশাটা সবসময়ই একটু বেশী। কারন আমরা সবসময়ই সঠিক ফুটবল খেলি। আগের বিভিন্ন ম্যাচে ৮০ শতাংশ বল পজিশন আমাদের ছিল, আমরা গোলে ৫০টিরও বেশী শট নিয়েছি যার মধ্যে ৪০টি গোল এসেছে। কিন্তু পরিস্থিতি সবসময় এক রকম থাকে না। কখনো কখনো ম্যাচের আবহ ভিন্ন হয়ে যায়। তখন হয়তবা ১-০ গোলে জয়টাই গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠে। এখানে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে আমরা প্রথম ম্যাচে জয় পেয়েছি। আমাদের দলে এত বেশী প্রতিভাবান খেলোয়াড় আছে যে সকলের প্রত্যাশার মাত্রাটা বিস্ময়কর কিছু নয়।

এবারের বিশ্বকাপে যে কয়জন তারকার কাছ থেকে ভাল পারফরমেন্স আশা করা হচ্ছে তার মধ্যে হ্যাজার্ড অন্যতম। চেলসির এই তারকা নিজেও মনে করেন নিজের যোগ্যতা প্রমাণের এটাই সবচেয়ে বড় মঞ্চ হতে পারে।

এ সম্পর্কে তিনি বলেন, আমার মধ্যে একটি অনুভূতি প্রথম থেকে কাজ করছে, এটা আমার বিশ্বকাপ হতে যাচ্ছে। আমার বয়স এখন ২৭ বছর। এটি আমার দ্বিতীয় বিশ্বকাপ। ব্যক্তিগতভাবে একটি দারুন মৌসুম কাটিয়ে আমি এখানে খেলতে এসেছি। একটি ভাল টুর্নামেন্ট খেলতে হলে সব নিয়ামকগুলোই একসাথে কাজ করে।

এই নিয়ে চতুর্থবারের মত বেলজিয়াম ও তিউনিশিয়া একে অপরের মুখোমুখি হতে যাচ্ছে। এর আগে প্রত্যেকেই একটি করে ম্যাচ জিতেছে, বাকি ম্যাচটি ড্র হয়েছে। বেলজিয়াম বিশ্বকাপের তাদের শেষ ১০টি গ্রুপ ম্যাচে অপরাজিত রয়েছে। এর মধ্যে শেষ পাঁচটি ম্যাচে টানা জয়ী হয়েছে। বেলজিয়ামের শেষ ১১টি বিশ্বকাপ গোল এসেছে দ্বিতীয়ার্ধে।

অন্যদিকে তিউনিশিয়া বিশ্বকাপে তাদের শেষ ১২টি ম্যাচে জয়বিহীন রয়েছে। ১৯৭৮ সালে প্রথমবারের মত বিশ্বকাপে খেলতে এসে সেখানে মেক্সিকোর বিপক্ষে সর্বশেষ ৩-১ গোলের জয় পেয়েছিল।



মন্তব্য